Advertisement
১৬ জুন ২০২৪
EPL

ইংল্যান্ডের ফুটবলে আবার ডামাডোল, আর্থিক মন্দার দায়ে বিক্রি হওয়ার মুখে আরও এক ক্লাব

এভার্টন বিক্রি করে দেওয়া হতে পারে। মালিক ফারহাদ মোশিরি নাকি ইতিমধ্যেই ইচ্ছুক ক্রেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা শুরু করে দিয়েছেন।

Everton fans display a banner in reference to the board after the match

মাঠ এবং মাঠের বাইরে একের পর এক সমস্যার সম্মুখীন এভার্টন। পয়েন্ট তালিকায় শেষ থেকে দু’নম্বরে রয়েছে তারা। ছবি: রয়টার্স

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ২৮ জানুয়ারি ২০২৩ ১৮:০৭
Share: Save:

ইংল্যান্ডের ঘরোয়া ফুটবলে আবার বিতর্ক। লিভারপুল, ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের পরে এ বার বিক্রি হওয়ার মুখে আর এক ক্লাব। শোনা যাচ্ছে, এভার্টন বিক্রি করে দেওয়া হতে পারে। মালিক ফারহাদ মোশিরি নাকি ইতিমধ্যেই ইচ্ছুক ক্রেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা শুরু করে দিয়েছেন।

গত বছরই ক্লাবের বেশির ভাগ শেয়ার কিনে নিয়েছিলেন মোশিরি। কিন্তু অল্প দিনের মধ্যেই মোহভঙ্গ হয়েছে তাঁর। মাঠ এবং মাঠের বাইরে একের পর এক সমস্যার সম্মুখীন এভার্টন। পয়েন্ট তালিকায় শেষ থেকে দু’নম্বরে রয়েছে তারা। ১৯ ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট পেয়েছে তারা। এ ভাবে চলতে থাকলে অবনমন নিশ্চিত। মাঠের বাইরেও সমস্যা কাটছে না তাদের।

কিছু দিন আগে পর্যন্তও এই ক্লাবের কোচ ছিলেন ফ্র্যাঙ্ক ল্যাম্পার্ড। কিন্তু ক্লাবের এই দুরবস্থা কাটাতে না পারায় তাঁকে বরখাস্ত করা হয়েছে। আগামী ৪ ফেব্রুয়ারি লিগে সবার উপরে থাকা আর্সেনালের বিরুদ্ধে খেলবে তারা। সেই ম্যাচ হয়তো কোচহীন হয়েই খেলতে হবে তাদের। কারণ এভার্টনের দায়িত্ব কেউই নিতে পারবেন না। মার্সেলো বিয়েলসাকে কোচ করে আনার চেষ্টা করা হয়েছিল। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে তিনিও আর আগ্রহী হচ্ছেন না।

এ ছাড়া, আর্নট ডানজুমাকে সই করাতে মরিয়া হয়েছিল এভার্টন। ক্লাবের এই অবস্থা দেখে তিনিও মুখ ঘুরিয়ে চলে গিয়েছেন টটেনহ্যাম হটস্পারে। এর মধ্যেই নতুন স্টেডিয়াম তৈরির কাজে হাত দিয়েছে এভার্টন। এই আর্থিক চাপ সামলাতে পারছেন না মোশিরি। তাই ক্লাবকে আংশিক বা পুরোপুরি বিক্রি করে দিতে চাইছেন তিনি।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

EPL Everton Frank Lampard
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE