Advertisement
১৪ এপ্রিল ২০২৪
Indian FootballTeam

সুনীলদের নিয়ে ক্লাস কিংবদন্তি বোরার, চনমনে ভারতীয় শিবির

পরিব্রাজক’ কোচ হিসেবে পরিচিত বোরা ভারতীয় দলের কোচ ইগর স্তিমাচের অনুরোধে চলে আসেন ভারতীয় দলের অনুশীলন দেখতে। সুনীলদের প্রস্তুতির আগে দীর্ঘ সময় বোরা কথা বলেন ভারতীয় ফুটবলারদের সঙ্গে।

An image of Sunil Chhetri

অতিথি: দোহায় প্রস্তুতি শিবিরে ভারতীয় ফুটবল দলের সঙ্গে কোচ মিলুতিনোভিচ (মাঝে)।  ছবি: এআইএফএফ।

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ০৩ জানুয়ারি ২০২৪ ০৫:৫৫
Share: Save:

নতুন বছরের শুরুতেই ভারতীয় ফুটবল দল পেয়ে গেল দুর্দান্ত উপহার। নোভাক জোকোভিচের দেশ সার্বিয়ার কিংবদন্তি কোচ বোরা মিলুতিনোভিচ মাঠে নেমে পরামর্শ দিয়ে গেলেন সুনীল ছেত্রীদের।

১৯৮৬ সালে মেক্সিকো, ১৯৯০ সালো কোস্টা রিকা, ১৯৯৪ সালে আমেরিকা, ১৯৯৮ সালে নাইজিরিয়া এবং ২০০২ সালে চিন জাতীয় দলের কোচ হিসেবে বোরা আলোড়ন ফেলে দিয়েছিলেন বিশ্বফুটবলে। ‘পরিব্রাজক’ কোচ হিসেবে পরিচিত বোরা ভারতীয় দলের কোচ ইগর স্তিমাচের অনুরোধে চলে আসেন ভারতীয় দলের অনুশীলন দেখতে। সুনীলদের প্রস্তুতির আগে দীর্ঘ সময় বোরা কথা বলেন ভারতীয় ফুটবলারদের সঙ্গে। দিয়েছেন মূল্যবান পরামর্শ। তাঁর উপস্থিতি রাতারাতি চাঙ্গা করে দিয়েছে ভারতীয় শিবিরকে। পরে বল নিয়ে নিজে মাঠেও নেমে পড়েন ৭৯ বছরের কিংবদন্তি কোচ।

কী বলে গেলেন মিলুতিনোভিচ? সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের ওয়েবসাইটে ভারতীয় দলের অভিজ্ঞ গোলরক্ষক গুরপ্রীত সিংহ সাঁধু বলেছেন, ‘‘ওঁকে চোখে সামনে দেখে বিস্ময়ে হতবাক হয়ে গিয়েছিলাম। বোরার মতো ব্যক্তিত্বের সঙ্গে দেখা হওয়াটা ভাগ্যের ব্যাপার, নিজেকে ভাগ্যবান বলেই মনে করি। এমন কিছু পরামর্শ পেয়েছি, যা কোনওদিন ভুলতে পারব না।’’

গুরপ্রীত আরও বলেছেন, ‘‘বোরা শুরুতেই আমাদের মনে করিয়ে দিয়েছিলেন ফুটবলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তটা কি।’’ আরও যোগ করেন, ‘‘আমাদের দিকে সেই প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে বোরা নিজেই তার উত্তর দিয়ে দেন। তিনি বলেন, পরের মুহূর্তটায় কী হবে, সেই সম্পর্কে ভাবন যেন তৈরি থাকে। যদি গোল করি, তা হলে সেটাকে ধরে রাখতে হবে। বিপক্ষে গোল হলে পরের মুহূর্তে পাল্টা আক্রমণ করতে হবে। ওঁর মুখ থেকে এমন পরামর্শ শোনা নিঃসন্দেহে সেরা একটা প্রাপ্তি।’’

ভারতীয় দলের ডিফেন্ডার সন্দেশ ঝিঙ্গন জানিয়েছেন, প্রবাদপ্রতিম কোচের বিনয় এবং প্রত্যেকের প্রতি স্নেহশীল মনোভাব তাঁকে মোহিত করে দিয়েছে। সন্দেশ বলেছেন, ‘‘প্রথমেই এসে জানিয়ে দিলেন তাঁর ইংরাজি নাকি তেমন ভাল নয়। তার পরে পুরো সময়টা আমাদের সঙ্গে কথা বলে গেলেন বিশুদ্ধ ইংরাজিতে।’’

ভারতীয় দলের ডিফেন্ডার আরও যোগ করেছেন, ‘‘কথাবার্তার ফাঁকে বোরা এমন কিছু শব্দ এবং প্রবাদ ব্যবহার করেছেন, যা শুনে আমি খুবই প্রভাবিত হয়েছি। তিনি আমাদের সকলকে বুঝিয়েছেন স্বপ্ন দেখা কতটা গুরুত্বপূর্ণ এবং তাকে বাস্তবায়িত করা আরও কতটা প্রয়োজনীয়।’’

সন্দেশ যোগ করেন, ‘‘সেই সময় অনুশীলনের ব্যস্ততা থাকায় তাঁর মন্তব্যগুলোকে তেমন মন দিয়ে শুনতে পারিনি। হোটেলে ফেরার পরে নতুন ভাবে তাঁর পরামর্শগুলো নিয়ে বিশ্লেষণ করতে শুরু করি। তখনই নতুন ভাবে অনুভব করতে শুরু করি, বোরার পরামর্শের অন্তর্নিহিত অর্থটা কী। ওঁকে পেয়ে আমরা অভিভূত।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE