Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৬ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

French Open 2022: আগ্রাসন আর সংকল্পে জোকার-বধ, নাদাল দেখালেন রোলা গাঁরোর সম্রাট এখনও তিনিই

জোকোভিচকে হারিয়ে ফরাসি ওপেনের সেমিফাইনালে পৌঁছে গেলেন নাদাল। ম্যাচের ফল ৬-২, ৪-৬, ৬-২, ৭-৬ (৭-৪)।

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ০১ জুন ২০২২ ০৪:৪৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
ফরাসি ওপেনের সেমিফাইনালে নাদাল।

ফরাসি ওপেনের সেমিফাইনালে নাদাল।
—ফাইল চিত্র

Popup Close

ফরাসি ওপেনের সেমিফাইনালে রাফায়েল নাদাল। বিশ্বের এক নম্বর নোভাক জোকোভিচকে হারিয়ে দিলেন লাল সুরকির সম্রাট। চার ঘণ্টা ১২ মিনিটের লড়াই শেষে নাদাল জিতলেন ৬-২, ৪-৬, ৬-২, ৭-৬ (৭-৪) ব্যবধানে।

এই মুহূর্তের অন্যতম সেরা দুই টেনিস তারকার লড়াই দেখতে বিশ্বের নজর ছিল রোলা গাঁরোতে। ম্যাচ শুরুর আগে অনেকেই এগিয়ে রেখেছিলেন জোকোভিচকে। তিনি বিশ্বের এক নম্বর। নাদালের থেকে অনেক বেশি ফিট। নাদাল নিজে চেয়েছিলেন জোকোভিচের বিরুদ্ধে দিনের আলোয় খেলতে। রাত বাড়লে লাল সুরকির কোর্টে তাঁর সমস্যা হবে বলেই মনে করেছিলেন নাদাল। রাত বাড়ল। দর্শকরা চাদর মুড়ি দিলেন, আর দেখলেন কী ভাবে ধীরে ধীরে খোলস ছেড়ে বেরলেন লাল সুরকির সম্রাট।

প্রথম সেটে নাদাল প্রায় কোনও জায়গাই ছাড়েননি জোকোভিচকে। ৬-২ ব্যবধানে সার্বিয়ার টেনিস তারকার বিরুদ্ধে প্রথম সেট জেতেন তিনি। সমস্ত চোট উপেক্ষা করে নাদাল নিজের সবটুকু দিয়ে লড়াই করতে নেমেছিলেন। জোকোভিচ তাঁকে কোর্টে দৌড় করালেন, ব্যাকহ্যান্ড মারতে বাধ্য করলেন, তবু নাদাল লড়াই চালিয়ে গেলেন। তিনি তাঁর লক্ষ্যে স্থির।

Advertisement

দ্বিতীয় সেটে নাদাল একটা সময় এগিয়েছিলেন ৩-০ ব্যবধানে। সেই সেটে চতুর্থ গেমটি জিতে নেন জোকোভিচ। জয়ের পরেই সার্বিয়ার টেনিস তারকার মুখে দেখা গেল হাসি। প্রথম বার স্বস্তির হাসি জোকোভিচের মুখে। নাদাল চিন্তিত। ডাবল্ ফল্ট করলেন। জোকোভিচ ম্যাচে ফিরতে শুরু করলেন। দ্বিতীয় সেটে ৬-৪ ব্যবধানে জিতে হুঙ্কার দিলেন জোকোভিচ। নাদাল সমর্থকদের মনে আশঙ্কা। ম্যাচ কি হাতছাড়া হতে চলেছে?

তৃতীয় সেটেই নাদাল বুঝিয়ে দিলেন কেন তাঁকে লাল সুরকির রাজা বলা হয়। সেই সেট জিততে নাদাল সময় নিলেন মাত্র ৪১ মিনিট। দ্বিতীয় সেটে দাপট দেখানো জোকোভিচকে এ বার দৌড় করালেন নাদাল। কোর্টের মাঝখানে দাঁড়িয়ে জোকোভিচকে এ প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে দৌড় করালেন বার বার। জোকোভিচ যে ভাবে নেটের কাছে টেনে আনতে চাইছিলেন নাদালকে, এ বার সেটাই করলেন স্প্যানিশ তারকা। আর সেই দৌড়তে গিয়ে কখনও জোকোভিচের পা আটকে গেল, কখনও র‍্যাকেট।

প্রথম থেকেই ঘামছিলেন নাদাল। বার বার ঘাম মুছছেন। অন্যদিকে জোকোভিচ তিনটি সেট খেলে ফেললেও ক্লান্তিহীন। কিন্তু তিনিই রয়েছেন পিছিয়ে। চতুর্থ সেটের খেলায় শুরুতেই ৩-০ এগিয়ে গেলেন জোকোভিচ। সেখান থেকে ধীরে ধীরে ম্যাচে ফিরলেন নাদাল। একটা সময় সমতা ফেরালেন তিনি। ৫-৫ হল, ৬-৬ হল। ম্যাচ গড়াল টাইব্রেকারে। যত জয়ের দিকে এগোলেন, ততই আক্রমণাত্মক হয়ে উঠলেন নাদাল। অন্যদিকে জোকোভিচের জিভ বেরিয়েছে। চার ঘণ্টা ১২ মিনিটের লড়াই শেষে হার তাঁকে ক্লান্ত করে দিয়েছে। টাইব্রেকারে ৪-৭ ব্যবধানে হারতেই সেমি ফাইনালে জায়গা করে নিলেন নাদাল।

কিছু দিন আগে নাদাল বলেছিলেন, তাঁর কাছে প্রতিটা ম্যাচই শেষ ম্যাচ। তেমন ভাবেই খেললেন তিনি। নিজেকে উজাড় করে দিয়ে খেললেন। জিতলেন। শুক্রবার নিজের জন্মদিনের দিন কোর্টে নামবেন নাদাল। আরও এক বার শেষ ম্যাচ খেলছেন ভেবেই হয়তো নামবেন।

লাল সুরকির কোর্টে এটাই কি নাদালের শেষ গ্র্যান্ড স্ল্যাম। এমন আশঙ্কা ছিল ম্যাচ শেষে নাদালের সাক্ষাৎকার নিতে আসা সঞ্চালকের মনেও। তিনি আরও এক বার ফরাসি ওপেন খেলতে অনুরোধ করলেন নাদালকে। লাল সুরকির সম্রাট হাসলেন, ধন্যবাদ জানালেন বার বার। কিছুটা হয়তো এড়িয়ে গেলেন সেই প্রশ্নের জবাব। রোলা গাঁরোর সম্রাট হয়তো এখন শুধু ১৪তম ট্রফি জয়টাকেই লক্ষ্য করেছেন। তাঁর কাছে যে এখন সব ম্যাচই শেষ ম্যাচ।

সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ



Something isn't right! Please refresh.

Advertisement