Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২২ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

ধোনিকে চার নম্বরেই পাকাপাকি দেখতে চাইছেন সৌরভ

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ১৯ জানুয়ারি ২০১৯ ১০:১৮
আগেও ধোনিকে চার নম্বরে নামানোর কথা বলেছিলেন সৌরভ।

আগেও ধোনিকে চার নম্বরে নামানোর কথা বলেছিলেন সৌরভ।

সিডনি ও অ্যাডিলেডে নেমেছিলেন পাঁচ নম্বরে। মেলবোর্নে নামলেন চার নম্বরে। তিন ম্যাচেই করেছেন হাফ-সেঞ্চুরি। একদিনের সিরিজ জিতিয়ে ইতিহাস গড়ে হয়েছেন সিরিজের সেরাও। মহেন্দ্র সিংহ ধোনির ফর্ম ভারতীয় মিডল অর্ডারে নির্ভরতা জোগালেও শুরু হয়েছে নতুন সমস্যা। বিশ্বকাপের কথা মাথায় রাখলে ঠিক কোথায় নামা উচিত এমএসডির, সরগরম ক্রিকেটমহল।

সিডনিতে হেরে যাওয়ার পর শতরানকারী রোহিত শর্মা সাফ বলেছিলেন যে তিনি ধোনিকে দেখতে চ।ন চার নম্বরে। কিন্তু, ভারতীয় দল তাঁকে পাঁচ নম্বরেই সাধারণত ভাবছে। অধিনায়ক বিরাট কোহালিও রাঁচির ৩৭ বছর বয়সীর ব্যাটিংয়ের আদর্শ জায়গা হিসেবে পাঁচ নম্বরকেই দেখাচ্ছেন। স্বয়ং ধোনি আবার ১১৪ বলে ৮৭ রানের ম্যাচ-জেতানো ইনিংসের পর যে কোনও জায়গায় নামার কথা বলেছেন।

এই আবহেই মুখ খুলেছেন প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। অনেকদিন ধরেই ধোনিকে চার নম্বরে নামানোর কথা বলে আসছেন তিনি। ফের সেই দাবি তুলে সৌরভ এক টিভি শোয়ে বলেছেন, “যে ভাবে ধোনি এই সিরিজে ব্যাট করেছে, তা অনেক দিন পরে দেখা গেল। সিরিজে ০-১ পিছিয়ে পড়ার পর ভারত আরও একবার ২-১ জিতল সিরিজ। অ্যাডিলেড ওয়ানডের পর অনেক কথা বলা হচ্ছিল ধোনিকে নিয়ে। কিন্তু জানতাম এই ইনিংস ওকে আত্মবিশ্বাস জোগাবে। আর ঠিক সেটাই হয়েছে।”

Advertisement

আরও পড়ুন: ধোনি, চহাল, না কেদার, মেলবোর্নে জয়ের নেপথ্যে কে​

আরও পড়ুন: অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ওয়ানডে ফরম্যাটে হাজার রান সিরিজের সেরা ধোনির​

কিন্তু ধোনির ঠিক কোথায় ব্যাট করা উচিত? সৌরভ বলেছেন, “আমার মনে হয় কেদার যাদব নামবে পাঁচ নম্বরে। আর ধোনি অবশ্যই খেলবে চারে। এই পজিশনে নামার সুযোগ কাজে লাগিয়েছে ওরা। তাই বিরাট কোহালি নামুক তিনে, ধোনি চারে, পাঁচে কেদার, ছয়ে দীনেশ কার্তিক। চার নম্বরে ধোনি নামলে ও ক্রিজে থিতু হওয়ার সময় পাবে। ইনিংস গড়তে পারবে নিজের মতো করে। তাই এটাই ঠিকঠাক কম্বিনেশন।” অর্থাৎ, প্রথম এগারোয় অম্বাতি রায়ডুর কোনও জায়গা দেখছেন না সৌরভ।


অবিচ্ছিন্ন চতুর্থ উইকেটে ধোনির সঙ্গে ১২১ রানের জুটি গড়ে তোলেন কেদার। কোহালি যখন আউট হন, তখনও ১১৮ রান দরকার ছিল জেতার জন্য। ধোনি যথারীতি অনেক ডট বল খেলে ফেলেছিলেন। কিন্তু কেদারের ৫৭ বলে ৬১ রানের ইনিংস চাপ কমিয়ে দেয়। সৌরভ বলেছেন, “কেদারকে ফর্মে পাওয়া এই ম্যাচ থেকে ভারতের আরও এক প্রাপ্তি। ধোনির সঙ্গে জুটিতে কেদারই ম্যাচ ছিনিয়ে নিয়ে আসে। এই সিরিজে এর আগে খেলেনি কেদার। কোনও প্র্যাকটিস ম্যাচও খেলেনি। শুধু নেটে ব্যাট করেছে। তাই বাইশ গজে এই ইনিংসের পর ওর আত্মবিশ্বাস আরও বাড়বে।”


(আইসিসি বিশ্বকাপ হোক বা আইপিএল ,টেস্ট ক্রিকেট, ওয়ান ডে কিংবা টি-টোয়েন্টি। ক্রিকেট খেলার সব আপডেট আমাদের খেলা বিভাগে।)

আরও পড়ুন

Advertisement