×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৯ জুন ২০২১ ই-পেপার

১৯৫ রানে শেষ অস্ট্রেলিয়া, জবাবে ময়াঙ্ককে হারিয়ে ভারতের সংগ্রহ ৩৬

সংবাদ সংস্থা
মেলবোর্ন ২৬ ডিসেম্বর ২০২০ ০৮:৫৮
বক্সিং ডে টেস্টে বুমরাদের দাপট। ছবি সোশ্যাল মিডিয়া

বক্সিং ডে টেস্টে বুমরাদের দাপট। ছবি সোশ্যাল মিডিয়া

মেলবোর্নে বক্সিং ডে টেস্টে অ্যাডভান্টেজ ভারত। অস্ট্রেলিয়াকে ১৯৫ রানে আটকে রাখার পর প্রথম দিনের শেষে ১ উইকেটে ৩৬ তুলেছে টিম ইন্ডিয়া। এখনও ১৫৯ রানে পিছিয়ে রয়েছে ভারত। ফিরে গিয়েছেন ওপেনার ময়াঙ্ক আগরওয়াল। কিন্তু অভিষেকেই শুভমন গিলকে দেখাচ্ছে স্বচ্ছন্দ। তিনি খেলছেন ২৮ রানে। অপরাজিত রয়েছেন চেতেশ্বর পূজারাও (৭)।

Advertisement

এসসিজি-তে সারা দিন পড়ল ১১ উইকেট। সকালে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে দুশোরও আগে শেষ হয়ে গেল অস্ট্রেলিয়ার প্রথম ইনিংস। ভারতীয় বোলারদের দাপটে কখনই স্বস্তিতে দেখাল না টিম পেনের দলকে। যশপ্রীত বুমরা ৫৬ রানে নিলেন ৪ উইকেট। রবিচন্দ্রন অশ্বিন ৩৫ রানে নিলেন ৩ উইকেট। অভিষেককারী মহম্মদ সিরাজ ৪০ রানে নিলেন ২ উইকেট। বাকি উইকেটটি রবীন্দ্র জাডেজার।


প্রথম সেশনেই ৩৮ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে সমস্যায় পড়েছিল অস্ট্রেলিয়া। জো বার্নস (০), ম্যাথু ওয়েড (৩০), স্টিভ স্মিথ (০) ফিরেছিলেন দ্রুত। ইনিংস মেরামতে নেমেছিলেন মার্নাস লাবুশানে ও ট্র্যাভিস হেড। কিন্তু, দ্বিতীয় সেশনে হেড (৩৮) ও লাবুশানে (৪৮) ফেরার পর চাপ আরও বাড়ল অস্ট্রেলিয়ার উপরে। চায়ের বিরতিতে অর্ধেক দল হারিয়ে ১৩৬ তুলেছিল তারা। তৃতীয় সেশনে ৫৯ রান তুলতে গিয়ে শেষ ৫ উইকেট হারাল অস্ট্রেলিয়া।


টিম পেনের দলকে দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম দিনের সকালে চাপে রাখলেন কোনও পেসার নন, বরং একজন স্পিনার। অফস্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন ফেরালেন ওপেনার ওয়েড ও তিনে নামা স্মিথকে। লাঞ্চের আগে আরও একটি উইকেট পেয়ে গিয়েছিলেন তিনি। তাঁর বলে লেগ বিফোর উইকেট হয়েছিলেন মার্নাস লাবুশানে। কিন্তু রিভিউয়ে দেখা যায় বল স্টাম্পের উপর দিয়ে বেরিয়ে যাচ্ছে।

আরও পড়ুন: দৌড়তে সমস্যা হচ্ছে, ওয়ার্নারকে নিয়ে তৃতীয় টেস্টেও থাকছে অনিশ্চয়তা​

আরও পড়ুন: অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে রাহানের ডেপুটি হলেন পূজারা

তবে অস্ট্রেলিয়াকে প্রথম ধাক্কা দিয়েছিলেন যশপ্রীত বুমরা। দ্রুত ফিরিয়ে দিয়েছিলেন ওপেনার বার্নসকে। উইকেটকিপার ঋষভ পন্থকে ক্যাচ দিয়েছিলেন তিনি। এর পর অশ্বিনকে মারতে গিয়ে ক্যাচ তুলে ফেরেন ওয়েড। যা ধরেন রবীন্দ্র জাডেজা। আর কোনও রান করার আগেই ফেরেন স্মিথ। অশ্বিনের বলে লেগ স্লিপে চেতেশ্বর পূজারাকে ক্যাচ দেন তিনি। এই প্রথম টেস্টে ভারতের বিরুদ্ধে শূন্য রানে ফিরলেন স্মিথ। অ্যাডিলেডে গোলাপি বলে দিনরাতের টেস্টেও তিনি অশ্বিনের শিকার হয়েছিলেন। ফিরেছিলেন মাত্র ১ রানে।


দ্বিতীয় সেশনের ড্রিঙ্কস ব্রেকে ৩ উইকেটে ১১৭ ছিল অস্ট্রেলিয়ার স্কোর। ক্রিজে ছিলেন মার্নাস লাবুশানে ও ট্র্যাভিস হেড। দু’জনে চতুর্থ উইকেটে ৮৬ রান যোগ করে ভদ্রস্থ করছিলেন ইনিংস। এই সময়ই আঘাত হানলেন বুমরা। তাঁর বলে গালিতে রাহানেকে ক্যাচ দিলেন হেড। ১২৪ রানে পড়েছিল চতুর্থ উইকেট। পঞ্চম উইকেট পড়ল তার কিছু ক্ষণের মধ্যেই। সেট ব্যাটসম্যান লাবুশানেকে ফেরালেন মহম্মদ সিরাজ। ব্যাকওয়ার্ড স্কোয়ার লেগে ঝাঁপিয়ে দুর্দান্ত ক্যাচ ধরলেন শুভমন গিল।


মহম্মদ সিরাজের দ্বিতীয় উইকেট এল শেষ সেশনে। ক্যামেরন গ্রিনকে এলবিডব্লিউ করলেন তিনি। রিভিউ নিয়েও লাভ হল না গ্রিনের। ফিরতেই হল ১২ রানে। অস্ট্রেলিয়ার রান তখন ১৫৫ রান। ওই রানেই ফিরলেন অধিনায়ক টিম পেন। এ বার আঘাত হারলেন সেই অশ্বিন। তাঁর বলে ব্যাকওয়ার্ড স্কোয়ার লেগে হনুমা বিহারিকে ক্যাচ দিলেন পেন (১৩)।


এর পরই বুমরাকে ফের আক্রমণে আনলেন অধিনায়ক রাহানে। আর তা কাজেও এল। বুমরার বাউন্সারে ফাইন লেগে মিচেল স্টার্কের (৭) সহজ ক্যাচ ধরলেন জাডেজা। নবম উইকেটে ২৭ রান যোগ করে দুশোর কাছে পৌঁছে দিয়েছিলেন নেথান লিয়ন ও প্যাট কামিন্স। কিন্তু, বুমরাই ফেরালেন লিয়নকে (২০)। করলেন এলবিডব্লিউ। ১৯১ রানে নবম উইকেট হারিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। শেষ উইকেট পড়ল ৪ রান পরে। জাডেজাকে মারতে গিয়ে সিরাজকে ক্যাচ দিলেন কামিন্স (৭)। বোলারদের ব্যবহারে মুন্সিয়ানার জন্য প্রশংসিত হল রাহানের নেতৃত্ব।

তবে ভারতের ইনিংসের শুরুটাও ভাল হয়নি। প্রথম ওভারেই মিচেল স্টার্কের বলে এলবিডব্লিউ হলেন ময়াঙ্ক আগরওয়াল (০)। রিভিউ নিয়েও লাভ হয়নি। ফিরতেই হল তাঁকে। জুটি বদলেও ওপেনিং নিয়ে সমস্যা থেকেই গেল। কোনও রান বোর্ডে ওঠার আগেই পড়ে গেল উইকেট। শুরুতে স্টার্কের সঙ্গে প্যাট কামিন্সও আগুনে বোলিং করলেন। কিন্তু, ভারতের সৌভাগ্য, অ্যাডিলেডের মতো একের পর এক পিছনে খোঁচা যায়নি। এবং ক্যাচও পড়ল গিলের।

ভারতের প্রথম রান এল চতুর্থ ওভারে। কামিন্সকে ড্রাইভে সীমানায় পাঠালেন অভিষেককারী শুভমন গিল। তবে ওই ওভারেই স্লিপে তাঁর ক্যাচ পড়ল। তৃতীয় স্লিপে লাবুশানে ফেললেন তাঁকে। জীবন পেয়ে পরের ওভারেই স্টার্ককে দুরন্ত শটে কভার বাউন্ডারিতে পাঠালেন গিল। এবং ক্রমশ আত্মবিশ্বাসী দেখাল তাঁকে। ৩৮ বলের ইনিংসে মারলেন ৫টি বাউন্ডারি। অন্যদিকে, পূজারা ছিলেন যথারীতি জমাট। শেষবেলায় উইকেট না পড়া নিঃসন্দেহে স্বস্তি দিচ্ছে ভারতীয় শিবিরে।


এটা ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার শততম টেস্ট। তার উপর বক্সিং ডে টেস্ট। ফলে এই ম্যাচ নিয়ে রয়েছে রীতিমতো উৎসাহ। মেলবোর্নের গ্যালারিতেও তা ধরা পড়ছে। অন্যদিকে, ভারতের কাছে এই টেস্ট সিরিজে ফেরার লড়াই। বিরাট কোহালি ও মহম্মদ শামি নেই। বাদ পড়েছেন পৃথ্বী শ, ঋদ্ধিমান সাহা। চারটি পরিবর্তন করে এই টেস্টে নেমেছে রাহানের ভারত। দুই অভিষেককারী শুভমন ও সিরাজ প্রথম দিনেই নজর কাড়লেন। রবীন্দ্র জাডেজা দুটো ক্যাচ নিলেন, পেলেন উইকেটও। তবে স্টাম্পের পিছনে ঋষভ পন্থকে স্পিনের বিরুদ্ধে নড়বড়েই দেখাল।

Advertisement