×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০২ অগস্ট ২০২১ ই-পেপার

India football team: ভারতকে হারিয়েই গুরপ্রীতের লড়াইকে কুর্নিশ জানালেন কাতারের ফুটবলার

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ০৪ জুন ২০২১ ১৩:৫১
কাতারের বিরুদ্ধে অপ্রতিরোধ্য হয়ে ওঠেন গুরপ্রীত সিংহ সান্ধু

কাতারের বিরুদ্ধে অপ্রতিরোধ্য হয়ে ওঠেন গুরপ্রীত সিংহ সান্ধু
ফাইল চিত্র

বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জনকারী পর্বে ভারতকে ১-০ গোলে হারালেও গোলরক্ষক গুরপ্রীত সিংহ সান্ধুকে কুর্নিশ জানালেন কাতারের আবদুল করিম হাসান। খেলার শেষে তাঁকে শুভেচ্ছা জানিয়ে গেলেন। প্রথমার্ধ থেকে ১০ জনে খেলেও কাতারের মতো এশিয়ার সেরা দলকে আটকে রেখেছিল ভারত। আর তাই খেলা শেষের পর দোহার জাসিম বিন হামাদ স্টেডিয়ামের দর্শকরা ভারতীয় দলকে সেলাম জানাল। যদিও গুরপ্রীত মনে করেন এই ম্যাচটা তাদের জেতা উচিত ছিল।

খেলার শেষে সমর্থকদের ধন্যবাদ জানিয়ে গুরপ্রীত বলেন, “এমন ফলাফল সত্যি দুর্ভাগ্যজনক। মাঠে থাকা প্রত্যেকে নিজের ১০০ শতাংশ উজাড় করে দিয়েছিল। কাতারের মতো দলের বিরুদ্ধে ১০ জন নিয়ে মোকাবিলা করা কিন্তু সহজ নয়। আমরা সুযোগ পেয়েছিলাম। মনবীর গোলটা করে দিলে আমাদের আত্মবিশ্বাস আরও বেড়ে যেত। দিনের শেষে এই হার মেনে নেওয়া ছাড়া উপায় নেই। এ বার আমাদের বাকি দুই ম্যাচ নিয়ে ভাবতে হবে।”

১৭ মিনিটে জোড়া হলুদ কার্ড দেখে মাঠের বাইরে চলে যান রাহুল ভেকে। সুনীল ছেত্রী তেমন ছন্দে ছিলেন না। মনবীর সিংহ সহজ সুযোগ পেলেও গোল করতে পারেননি। তবে গুরপ্রীত তেকাঠির নীচে অপ্রতিরোধ্য হয়ে ওঠেন। তিনি বেশ কয়েকটা কাতারের নিশ্চিত গোল বাঁচান। ৫১ মিনিটে দুরন্ত একটা সেভ করেন গুরপ্রীত। জোরাল একটা শট নিয়েছিলেন আজিজ। কিন্তু গুরপ্রীতের তালুতে লেগে সেই বল ফিরে আসে। একটা সময় মনে হচ্ছিল ভারতের বিরুদ্ধে নয়, কাতার যেন গুরপ্রীতের বিরুদ্ধে খেলছে। ৬৬ মিনিটে আবার পতন রোধ করেন গুরপ্রীত।

Advertisement



কাতারের বিরুদ্ধে প্রথম পর্বের ম্যাচেও এ ভাবেই জ্বলে উঠেছিলেন গুরপ্রীত। কোন ম্যাচ বেশি কঠিন ছিল? পঞ্জাব তনয়ের জবাব, “আমার ধারণা গত বার কাতার ম্যাচে এর থেকে কম গোল আটকাতে হয়েছিল।”

আগামী বিশ্বকাপ খেলার স্বপ্ন আগেই শেষ হয়ে গিয়েছে। তবে এএফসি এশিয়ান কাপে খেলতে হলে আফগানিস্তান এবং বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ইগর স্তিমাচের ভারতকে কিন্তু জিততেই হবে।

Advertisement