Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

দশ উইকেটে ‘বিরাট’ জয় চেন্নাইয়ের, টানা তিন ম্যাচ হারল পঞ্জাব

সংবাদ সংস্থা
দুবাই ০৪ অক্টোবর ২০২০ ১৯:১৮
পঞ্জাবকে দাঁড়াতেই দিলেন না ওয়াটসন ও দু'প্লেসি।

পঞ্জাবকে দাঁড়াতেই দিলেন না ওয়াটসন ও দু'প্লেসি।

তিন ম্যাচে হেরে প্রবল চাপে ছিল চেন্নাই সুপার কিংস। সমালোচনায় বিদ্ধ হতে হয়েছিল অধিনায়ক মহেন্দ্র সিংহ ধোনিকে। রবিবার কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের বিরুদ্ধে ঘুরে দাঁড়াল তিনবারের চ্যাম্পিয়নরা। বহু যুদ্ধের দুই সৈনিক শেন ওয়াটসন (৮৩) ও ফ্যাফ দু' প্লেসির (৮৭) ব্যাট কথা বলল। ওপেন করতে নেমে দুই তারকা জ্বলে ওঠায় পঞ্জাবের করা ১৭৮ রান ১৭.৪ ওভারেই তুলে নিল চেন্নাই। অন্য দিকে টানা তিন ম্যাচ হেরে পঞ্জাব লিগ টেবলে সবার শেষে।

এর আগে ২০১৩ সালে মোহালিতে পঞ্জাবকে দশ উইকেটে হারিয়েছিল চেন্নাই। সে বার ১৩৮ রান তাড়া করতে নেমে মুরলী বিজয় ও মাইক হাসির দাপটেই ম্যাচ জিতে নিয়েছিল হলুদ জার্সিধারীরা। রবিবারের টার্গেট সে বারের থেকে অনেক কঠিন ছিল। তার উপরে দুবাইয়ের মাঠ শারজার মতো ছোট নয় যে মিস হিটও ছক্কা হয়ে যাবে। উল্টোদিকে রয়েছেন মহম্মদ শামি, শেলডন কটরেলের মতো বোলার। ধেয়ে আসা সমালোচনা ক্রিকেটারদের আত্মবিশ্বাস শুষে নেওয়ার পক্ষে ছিল যথেষ্ট। তবুও দমেননি চেন্নাইয়ের দুই ব্যাটিং স্তম্ভ -ওয়াটসন ও দু' প্লেসি। দশ উইকেটের এই দাপুটে জয় চেন্নাই শিবিরকে পরের ম্যাচগুলোয় আরও আত্মবিশ্বাসী করে তুলবে সন্দেহ নেই।

আগের ম্যাচগুলোয় ওয়াটসন রানের মধ্যে ছিলেন না। এ দিন অজি ব্যাটসম্যান নিজের নামের প্রতি সুবিচার করেন।টুর্নামেন্টের প্রথম দিন থেকেই ধারাবাহিক ছিলেন দু' প্লেসি। আজও তাঁর চওড়া ব্যাট পঞ্জাবের বোলারদের শাসন করল। ওপেনারদের দাপটে একপেশেভাবে ম্যাচ জেতায় ধোনির মুখে খেলা করল হাসি।আইপিএলের প্রথম ম্যাচ থেকেই চেন্নাই অধিনায়কের ব্যাটিং অর্ডার নিয়ে চর্চা হচ্ছিল। আগের ম্যাচে ক্লান্ত ধোনিকে দেখে কটাক্ষ করেছিলেন অনেকেই। ওয়াটসন ও দু' প্লেসির যুগলবন্দি সব সমালোচনাকে উড়িয়ে দিল।

Advertisement


টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন রাহুল। দুই ওপেনার রাহুল ও ময়ঙ্ক অগরওয়াল পাওয়ারপ্লেতে তোলেন ৪৬ রান। পীযূষ চাওলার বলে ময়ঙ্ক ২৬ রানে আউট হন। তার পরে রাহুল ও মনদীপ ৩৩ রানের পার্টনারশিপ গড়েন। রবীন্দ্র জাদেজার বলে অম্বাতি রায়ুডুর হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন মনদীপ (২৭)।

লোকেশ রাহুলরা অবশ্য দুশোর বেশি রান করতেই পারত এ দিন। পঞ্জাব অধিনায়ক ও নিকোলাস পুরান একসময়ে ঝড় তুলেছিলেন। তখন মনে হচ্ছিল দুশো অতিক্রম করে তবেই থামবে পঞ্জাব। কিন্তু শার্দুল ঠাকুর পর পর দু' বলে রাহুল (৬৩) ও পুরানকে (১৭ বলে ৩৩) ফিরিয়ে দেওয়ায় পঞ্জাবের পক্ষে দুশোয় পৌঁছনো সম্ভব হয়নি। অবশ্য দুশো করলেও ওয়াটসন-দু' প্লেসিকে দমিয়ে রাখা যেত বলে মনে হয় না। দিনটা যে ছিল তাঁদেরই।


আরও পড়ুন

Advertisement