Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২০ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

মনবীর-কৃষ্ণর জোড়া গোল, ওডিশাকে দুরমুশ করে শীর্ষে যাওয়ার লক্ষ্যে এটিকে মোহনবাগান

নিজস্ব সংবাদদাতা 
কলকাতা ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ২৩:০৯
জয়ের পর এক সঙ্গে দুই জোড়া গোলদাতা। রয় কৃষ্ণ ও মনবীর।

জয়ের পর এক সঙ্গে দুই জোড়া গোলদাতা। রয় কৃষ্ণ ও মনবীর।
ছবি - আইএসএল

এটিকে মোহনবাগান: ৪ (মনবীর ২, কৃষ্ণ ২)

ওড়িশা এফসি: ১ (কোল আলেকজাণ্ডার)

গত ৩ ডিসেম্বর এই ওডিশা এফসিকে হারাতে কালঘাম ছুটে গিয়েছিল। সেই ম্যাচে একেবারে শেষ মুহূর্তে ৯০ মিনিটে গোল করে দলকে জয় এনে দিয়েছিলেন রয় কৃষ্ণ। তবে শনিবার জিএমসি ব্যাম্বোলিম স্টেডিয়ামে শুরু থেকেই ফেভারিট ছিল এটিকে মোহনবাগান। সেটা শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত বুঝিয়ে দিল আন্তোনিয়ো লোপেজ হাবাসের ছেলেরা। তাই প্রত্যাশামতোই লিগ তালিকার শেষে থাকা ওডিশাকে ৪-১ গোলে উড়িয়ে শীর্ষে যাওয়ার লক্ষ্যে সবুজ মেরুন। কারণ, এই মুহূর্তে ১৫ ম্যাচে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে হাবাসের দল। সম সংখ্যক ম্যাচ খেলে ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে মুম্বই সিটি এফসি।

Advertisement

জোড়া গোল করে ম্যাচের নায়ক মনবীর সিংহ। অবশ্য ম্যাচ জুড়ে রয় কৃষ্ণও তাঁর জোরদার উপস্থিতি টের পাইয়ে দিলেন। তাই তো তাঁর নামের পাশেও ২টি গোল লেখা থাকল। ফলে এই জোড়া গোলের সৌজন্যে চলতি আইএসএলে ১১টি গোল করে শীর্ষে পৌঁছে গেলেন ফিজি জাতীয় দলের তারকা। গত ম্যাচে কিবু ভিকুনার কেরল ব্লাস্টার্সকে হারালেও প্রথমার্ধে দলের খেলায় মন ভরেনি। স্প্যানিশ কোচও ছেলেদের তাগিদ নিয়ে সন্তুষ্ট ছিলেন না। তাই এদিন দুর্বল প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধেও খেলতে নামার আগে বাড়তি সতর্ক ছিলেন হাবাস। সেটা আগাগোড়া ধরা পড়েছে। ম্যাচের একেবারে শুরু থেকেই যেন আক্রমণাত্মক ছিলেন সবুজ মেরুন ফুটবলাররা। প্রথম থেকেই মনবীর, কৃষ্ণ এবং মার্সেলো পেরেরা ওডিশার রক্ষণের বারবার পরীক্ষা নিচ্ছিলেন। ফলে ১১ মিনিটেই মনবীরের পা থেকে প্রথম গোলে এগিয়ে যায় এটিকে মোহনবাগান। যদিও এরপর প্রথমার্ধে বেশ কয়েকটি সুযোগ তৈরি হয়েছিল। তবে গোলমুখ খোলেনি। তবে এরইমধ্যে প্রথমার্ধের একেবারে শেষ মুহূর্তে আবার ‘কাহানি মে টুইস্ট’! বাগান রক্ষণের ভুলে বিশ্বমানের গোল করে সমতা ফেরান কোল আলেকজাণ্ডার।

তবে দ্বিতীয়ার্ধ শুরু হতেই ফের আক্রমণের ঝাঁজ বাড়ায় এটিকে মোহনবাগান। এই মরসুমে বেশ কয়েকটা ম্যাচে দ্বিতীয়ার্ধে দল ঘুরে দাঁড়িয়েছে। এদিনও তাই হল। ৫৪ মিনিটে দলের ও নিজের দ্বিতীয় গোল করেন এবারের ডার্বি যুদ্ধের গোলদাতা। তবে রয় কৃষ্ণ ম্যাজিক তখনও বাকি ছিল। ৮৩ মিনিটে প্রথমে পেনাল্টি থেকে গোল করার পর ৮৬ মিনিটে গোল করে বিপক্ষের কফিনে শেষ পেরেক পুঁতে দেন কৃষ্ণ। সেটাও আবার ‘ম্যাচের নায়ক’ মনবীরের পাস থেকে গোল করে।

আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি সুনীল ছেত্রীর বেঙ্গালুরু এফসির বিরুদ্ধে নামবে এটিকে মোহনবাগান। সেই ম্যাচের আগে এই জয় প্রীতম, প্রবীরদের অবশ্যই বাড়তি আত্মবিশ্বাস যোগাবে। কারণ, দুবারের আইএসএল জয়ী কোচ যে মুম্বইয়ের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছেন।

লিগ তালিকার বর্তমান অবস্থান।

লিগ তালিকার বর্তমান অবস্থান।


আরও পড়ুন

Advertisement