×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

দাম পেল না গার্সিয়ার দুরন্ত গোল, গোয়ার বিরুদ্ধে ড্র এটিকে মোহনবাগানের

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৭ জানুয়ারি ২০২১ ১৯:৪৬
এটিকে মোহনবাগানকে এগিয়ে দিয়েছিলেন এদু গার্সিয়া। ছবি আইএসএল

এটিকে মোহনবাগানকে এগিয়ে দিয়েছিলেন এদু গার্সিয়া। ছবি আইএসএল

মুম্বইয়ের কাছে হারের পরেও জয়ের মুখ দেখতে ব্যর্থ এটিকে মোহনবাগান। ফলে লিগ টেবিলে মুম্বইয়ের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলার স্বপ্নও আপাতত থমকে গেল। এফসি গোয়ার বিরুদ্ধে ড্র করে লিগ টেবিলে দ্বিতীয় স্থানেই থাকল সবুজ-মেরুন। ১১ ম্যাচে ২১ পয়েন্ট হল তাদের। অপরদিকে, এক ম্যাচ বেশি খেলে গোয়ার পয়েন্ট ১৯।

রবিবার দু’দলই উপভোগ্য ফুটবল খেলেছে। প্রথম থেকে আক্রমণের ঝড় বইয়ে দিয়েছিলেন গোয়া। তা সামলাতে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করতে হয় রয় কৃষ্ণদের। পাল্টা আক্রমণে উঠছিলেন তাঁরাও। মাঝে মাঝেই কাউন্টার অ্যাটাকে উঠছিল সবুজ-মেরুন। মূলত কাউন্টার অ্যাটাকেই ভরসা রাখছিল তারা।

ম্যাচের প্রথম ভাল সুযোগ এসেছিল এটিকে মোহনবাগানের কাছেই। কর্নার থেকে শুভাশিস বসুর হেড বারে লাগে। দ্বিতীয়ার্ধে সেরিটন ফার্নান্ডেজ ক্রস করতে গিয়েছিলেন বাগান-বক্সে। তা পোস্টে লেগে প্রতিহত হয়। এরপরেই এদু গার্সিয়া দুরন্ত ফ্রিকিক থেকে এগিয়ে দেন সবুজ-মেরুনকে। কিন্তু দীর্ঘক্ষণ লিড ধরে রাখতে পারেনি তারা। পাঁচ মিনিট পরেই গোল শোধ করে গোয়া। কর্নার থেকে ডোনাচির জোরালো হেড অরিন্দম বাঁচিয়ে দিলেও ফিরতে বল গোলে ঠেলে দেন ইশান পন্ডিতা।

Advertisement



একটু বাদেই ফ্রিকিক থেকে মনবীরের হেড বারে লেগে উপর দিয়ে উড়ে যায়। দু’দলই আর সুযোগ পায়নি।

খেলা শেষ । ফল ১-১। পাঁচ মিনিট অতিরিক্ত সময় দেওয়া হলেও কোনও দলই তা কাজে লাগাতে পারল না।

৮৯ মিনিট । আবার বারে! ফ্রিকিক বক্সে ভাসিয়ে দিয়েছিলেন হাভি। মনবীর সিংহের হেড বার ছুঁয়ে চলে গেল। ফের এগনোর সুযোগ এসেছিল এটিকে মোহনবাগানের কাছে।

৮৪ মিনিট । গো-ও-ও-ও-ও-ও-ল। সমতা ফেরাল এফসি গোয়া। নেমেই দলের গোল শোধ করে দিলেন ইশান পন্ডিতা। কর্নার থেকে ডোনাচির হেড সেভ করেন অরিন্দম। পাল্টা বল জালে ঠেলে গোল করে দিলেন গোয়ার পন্ডিতা।


৮০ মিনিট । গোল করে আত্মবিশ্বাস তুঙ্গে এটিকে মোহনবাগানের। চাপ বজায় রেখেছে তারা। পাল্টা আক্রমণের লক্ষ্যে দুটি পরিবর্তন করল গোয়া। অন্যদিকে, গোলদাতা এদুকে তুলে হাভি হার্নান্ডেজকে নামালেন হাবাস।

৭৪ মিনিট । গো-ও-ও-ও-ও-ও-ও-ও-ও-ও-ল। অসাধারণ, অনবদ্য, অবিশ্বাস্য। বক্সের বাইরে থেকে ফ্রিকিক পেয়েছিল এটিকে মোহনবাগান। সামনের ওয়ালকে দাঁড় করিয়ে রেখে গোলার মতো শটে তাদের এগিয়ে দিলেন এদু গার্সিয়া। অনবদ্য গোল। বিপক্ষ গোলকিপার নওয়াজ নড়ার সুযোগ পাননি।


৭০ মিনিট । লড়াই চলছে মাঝমাঠেই। তবে গোয়ার আক্রমণের হার আচমকাই কিছুটা পড়তির দিকে। সে ভাবে সুযোগ তৈরি করতে পারছে না এটিকে মোহনবাগানও।

৬২ মিনিট । পরিবর্তন। শেখ সাহিলের জায়গায় নামলেন জয়েশ রানে।

৬০ মিনিট । হলুদ কার্ড। ট্যাকল ঘিরে মাঠে উত্তেজনা। কৃষ্ণকে অবৈধ ফাউল করেছিলেন গঞ্জালেজ। ম্যাকহিউ এসে ধাক্কা মেরে ফেলে দেন তাঁকে। প্লেয়ারদের মধ্যে তর্কাতর্কি। গঞ্জালেজ হলুদ কার্ড দেখলেন।

৫৬ মিনিট । দূর থেকে শট নিয়েছিলেন ব্র্যান্ডন। কিন্তু নির্বিষ সেই শট সহজেই রুখে দিলেন অরিন্দম। কাউন্টার অ্যাটাকে বল পেয়েছিলেন নগুয়েরা। তবে গামার শট বাইরে।

৫০ মিনিট । এগিয়ে যাওয়ার সুবর্ণ সুযোগ এসে গিয়েছিল এফসি গোয়ার সামনে। সেভিয়ার গামার ভাসিয়ে দেওয়া ক্রস ফিরল পোস্টে লেগে। বিরতির পরেও আক্রমণ বজায় রেখেছে গোয়া। এটিকে মোহনবাগানকে এখনও কিছুটা সন্ত্রস্ত লাগছে।


বিরতি । প্রথমার্ধের খেলা শেষ। কোনও দলই এখনও গোল করতে পারেনি। তবে বল পায়ে বেশি রেখেছে গোয়া। বাঁশি বাজার একটু আগেই এদুর ফ্রিকিক থেকে ডেভিড উইলিয়ামসের হেড অনেক বাইরে দিয়ে উড়ে গেল। প্রথমার্ধের খেলার বিচারে একটু হলেও চাপে রয়েছে এটিকে মোহনবাগান। গোয়াকে অনেক বেশি পাস খেলার সুযোগ দিচ্ছে তারা।

৪০ মিনিট । দুই দলই একের পর কাউন্টার অ্যাটাক তুলে আনছে। কিন্তু সুযোগ তৈরির থেকে এগিয়ে গোয়া। ব্র্যান্ডনের পা থেকে বল কেড়ে নিলেন সন্দেশ ঝিঙ্ঘান। মোহনবাগানের বাঁ দিকে সে ভাবে সচল লাগছে না। গোয়া আক্রমণ করছে ডান দিক থেকে।

৩৫ মিনিট । গোয়ার দুই উইংয়ে লেনি রদরিগেজ এবং ব্র্যান্ডন ফার্নান্ডেজ দুরন্ত খেলছেন। এটিকে মোহনবাগানের ডিফেন্ডারদের টানা সতর্ক থাকতে হচ্ছে।

৩০ মিনিট । এদু গার্সিয়ার কর্নার থেকে শুভাশিস বসুর হেড লাগল বারে। অল্পের জন্য এগিয়ে যেতে পারল না এটিকে মোহনবাগান। তবে এফসি গোয়াকে অনেক বেশি খেলতে দিচ্ছে সবুজ-মেরুন।


২৩ মিনিট । ছোট ছোট পাস খেলে আক্রমণে ওঠার চেষ্টা করছে গোয়া। পাশাপাশি দূর থেকে শট নেওয়ার চেষ্টাও করছে। নগুয়েরা বারবার বক্সে ঢুকে পড়েছেন।

১৫ মিনিট । দ্রুত আক্রমণে উঠছেন গোয়ার খেলোয়াড়রা। ক্রমশ ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছেন অর্টিজ। ব্র্যান্ডনের ফ্রিকিক বক্সের সামনে পেয়েও কাজে লাগাতে পারলেন না গোয়ার স্ট্রাইকাররা।

১০ মিনিট । বেশি পাস খেলছে গোয়া। তারাও যে হাল ছাড়ে রাজি নয় সেটা প্রতি মুহূর্তে বোঝা যাচ্ছে তাদের খেলায়। একটু আগেই গোয়ার নগুয়েরা শট মেরেছিলেন। অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়।


৫ মিনিট । প্রথম থেকেই আক্রমণের ঝাঁজ লক্ষ্য করা যাচ্ছে এটিকে মোহনবাগানের খেলায়। গোয়ার ফুটবলারদের সঙ্গে সমানে সমানে টক্কর দিচ্ছেন তাঁরা। মাঝমাঠে শুরুতেই দখল নেওয়ার চেষ্টা সবুজ-মেরুনের।

মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে আইএসএলের শীর্ষে ওঠার দৌড় থমকে গিয়েছে এটিকে মোহনবাগানের। তাই এফসি গোয়াকে হারিয়ে জয়ে ফিরতে মরিয়া সবুজ-মেরুন ব্রিগেড। তবে কাজটা সহজ নয়। দুইয়ে থাকা এটিকে মোহনবাগানের ১০ ম্যাচ খেলে ২০ পয়েন্ট। এক ম্যাচ বেশি খেলে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে তাদের ঘাড়ের কাছে নিঃশ্বাস ফেলছে গোয়া।

চোট সারিয়ে এই ম্যাচে ফিরলেন কার্ল ম্যাকহিউ। পাশাপাশি দলে আরও দুটি পরিবর্তন এনেছেন কোচ আন্তোনিয়ো লোপেজ হাবাস। মাঝমাঠে শেখ সাহিল এবং প্রবীর দাস ফিরছেন। গোলে থাকছেন অরিন্দম ভট্টাচার্যই। এদু গার্সিয়া, রয় কৃষ্ণ এবং ডেভিড উইলিয়ামসকে রেখে পুরোপুরি আক্রমণাত্মক লাইন-আপ সাজিয়েছেন হাবাস।


এফসি গোয়া দলে কোনও পরিবর্তন আনেনি। তাদের একই লাইন-আপ রয়েছে। এটিকে মোহনবাগানকে হারিয়ে লিগ তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে উঠতে মরিয়া জুয়ান ফেরান্ডোর দল।


Advertisement