Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ নভেম্বর ২০২১ ই-পেপার

মার্লিন গ্রুপের স্পোর্টস টাউনশিপে রোনাল্ডিনহো, যুবরাজ, ফেলপস, টাইগারের অ্যাকাডেমি

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ২৭ অক্টোবর ২০২১ ১২:৪৪
রোনাল্ডিনহো, যুবরাজ, ফেলপস এবং টাইগার।

রোনাল্ডিনহো, যুবরাজ, ফেলপস এবং টাইগার।
—ফাইল চিত্র

খুব তাড়াতাড়ি কলকাতায় আসতে পারেন রোনাল্ডিনহো। কলকাতার নির্মান সংস্থা মার্লিন গ্রুপ রাজারহাটে তাদের স্পোর্টস টাউনশিপের জন্য ব্রাজিলের বিশ্বকাপজয়ী এই ফুটবল তারকাকে চুক্তিবদ্ধ করেছে। একই সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন প্রাক্তন ক্রিকেটার যুবরাজ সিংহ, একাধিক অলিম্পিক পদকজয়ী সাঁতারু মাইকেল ফেলপস ও মার্শাল আর্ট বিশেষজ্ঞ টাইগার স্রফ

মার্লিন গ্রুপের রাইজ-স্পোর্টস রিপাবলিক রাজারহাটে ১০টি টাওয়ারে ২৫০০ ফ্ল্যাট তৈরি করছে। একটি টাওয়ার শুধু সিনিয়র সিটিজেনদের জন্যই থাকবে। এই টাউনশিপের মধ্যেই থাকবে স্পোর্টস অ্যাকাডেমি। সেই অ্যাকাডেমির সঙ্গেই চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন রোনাল্ডিনহো, যুবরাজ, ফেলপস ও টাইগার।

রোনাল্ডিনহোর ‘আর১০’ ফুটবল অ্যাকাডেমি ইতিমধ্যেই বেঙ্গালুরুতে অ্যাকাডেমি খুলেছে। এ বার মার্লিনের হাত ধরে তারা কলকাতায় পা রাখতে চলেছে। ক্রিকেটের ক্ষেত্রে যুবরাজের অ্যাকাডেমি, সাঁতারের ক্ষেত্রে ফেলপসের অ্যাকাডেমি রাজারহাটের এই টাউনশিপের সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে। টাইগার ও তাঁর বোন কৃষ্ণা থাকছেন মার্শাল আর্ট ট্রেনিং সেন্টারে। রোনাল্ডিনহো এবং যুবরাজের চাহিদা মতো ফুটবল ও ক্রিকেট মাঠ তৈরির কাজ চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে।

Advertisement
মার্লিন গ্রুপের প্রোজেক্টের আনুষ্ঠানিক ঘোষণায় সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর সকেত মোহতা, ডিরেক্টর সত্যেন সাংভি ও অন্য কর্তারা।

মার্লিন গ্রুপের প্রোজেক্টের আনুষ্ঠানিক ঘোষণায় সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর সকেত মোহতা, ডিরেক্টর সত্যেন সাংভি ও অন্য কর্তারা।
নিজস্ব চিত্র


এই প্রোজেক্টের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করে মার্লিন গ্রুপের ম্যানেজিং ডিরেক্টর সকেত মোহতা বলেন, ‘‘স্কুল, হাসপাতাল, দোকান, বাজার-সহ সব কিছু থাকছে এক ছাদের তলায়। এই টাউনশিপে থাকলে আর বাইরে বেরনোর প্রয়োজনই হবে না। স্পোর্টস অ্যাকাডেমিগুলো আমরা শুধু এই টাউশিপের আবাসিকদের জন্য নয়, বাইরের লোকের জন্যও খোলা রাখছি। যে কেউ এর সদস্যপদ নিতে পারেন।’’

স্কুল এবং হাসপাতালের জন্য কাদের সঙ্গে চুক্তি করা হবে, তা এখনও ঠিক হয়নি। মার্লিন গ্রুপের ডিরেক্টর সত্যেন সাংভি বলেন, ‘‘এটুকু বলতে পারি, আমাদের স্কুল হয় সিবিএসই, নয়তো আইসিএসই অনুমোদিত হবে।’’ সিনিয়র সিটিজেনদের জন্য যে টাওয়ারটি তৈরি হবে, সেখানে সারাক্ষণের জন্য চিকিৎসক এবং নার্স থাকবেন বলেও জানানো হয়েছে সংস্থার পক্ষ থেকে।

প্রোজেক্টের আনুমানিক খরচ দুই হাজার কোটি টাকা। ২০২৭ সালের জানুয়ারি মাসের মধ্যে গোটা প্রোজেক্ট তৈরি হয়ে যাওয়ার কথা। মোহতা জানালেন, ‘‘যে চারজন অ্যাকাডেমির সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন, তাঁরা নিজে হাতে কোচ বাছাইয়ের কাজ করবেন। গোটা বিশ্বেই তাঁরা এ ভাবেই কাজ করেন।’’

গত ১৪-১৫ বছর ধরে মার্লিন গ্রুপ এই প্রোজেক্টের জন্য রাজারহাটে জমি কিনেছে।

আরও পড়ুন

Advertisement