Advertisement
১৬ এপ্রিল ২০২৪

মাঠে এসে পিচের প্রশংসায় ধোনি

অভিষেক টেস্টে হয়তো বিরাট কোহালিদের জয় দেখতে পেল না রাঁচী, কিন্তু ঝাড়খণ্ড ক্রিকেট সংস্থার কর্তারা হাসি মুখেই মাঠ ছাড়তে পারছেন।

ভারত-অস্ট্রেলিয়া তৃতীয় টেস্টের শেষ দিনের খেলা দেখতে রাঁচীর মাঠে হাজির হয়েছিলেন মহেন্দ্র সিংহ ধোনি। নিজস্ব চিত্র

ভারত-অস্ট্রেলিয়া তৃতীয় টেস্টের শেষ দিনের খেলা দেখতে রাঁচীর মাঠে হাজির হয়েছিলেন মহেন্দ্র সিংহ ধোনি। নিজস্ব চিত্র

আর্যভট্ট খান
রাঁচী শেষ আপডেট: ২১ মার্চ ২০১৭ ০৩:২৫
Share: Save:

অভিষেক টেস্টে হয়তো বিরাট কোহালিদের জয় দেখতে পেল না রাঁচী, কিন্তু ঝাড়খণ্ড ক্রিকেট সংস্থার কর্তারা হাসি মুখেই মাঠ ছাড়তে পারছেন। রাঁচীর বাইশ গজের প্রশংসা ক্রিকেটাররা তো করেছেনই, শংসাপত্র পাওয়া গিয়েছে আরও এক জনের কাছ থেকে। যিনি কর্তাদের পিঠ চাপড়ে বলে গিয়েছেন, ‘ওয়েল ডান’। তিনি— মহেন্দ্র সিংহ ধোনি।

বিজয় হজারে ট্রফির ফাইনালে উঠতে পারেননি বলে রবিবার রাতেই রাঁচীতে ফিরে এসেছিলেন ধোনি। সোমবার, টেস্টের শেষ দিনে মাঠেও এসেছিলেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক। জেএসসিএ-র কর্তারা জানাচ্ছেন, পিচ থেকে শুরু করে আতিথেয়তা, সব ধরনের আয়োজনেই খুশি হয়েছেন ধোনি। সোমবার ম্যাচ শেষে জিম করে বাড়ি যাওয়ার আগে কর্তাদের ডেকে প্রশংসা করে যান তিনি।

সোমবার বেলা সওয়া বারোটা নাগাদ, নিজের প্রিয় হামার গাড়ি চালিয়ে মাঠে আসেন ধোনি। সঙ্গে ছিলেন তাঁর কয়েক জন ঘনিষ্ঠ বন্ধু। মাঠে আসার পরে তাঁকে নিয়ে উৎসাহ থাকবে এটা তো স্বাভাবিক। ধোনিকে এর পর যত বারই বিগ স্ক্রিনে দেখা গিয়েছে, উল্লাসে ফেটে পড়েছে মাঠ। তবে শুধু দর্শকরাই নন, টেস্ট শেষে উল্লসিত আরও এক জন। তিনি কিউরেটর শ্যাম বাহাদুর সিংহ। তৃতীয় টেস্ট শুরু হওয়ার আগে ঝাঁড়খণ্ডের পিচ নিয়ে কম আলোচনা হয়নি। কী রকম পিচ হতে চলেছে এই নিয়ে কৌতূহলও ছিল প্রচুর। স্পিনারদের সাহায্য করবে পিচ না পেসারদের, ঠিক কী হতে চলেছে এই নিয়ে অস্ট্রেলীয় মিডিয়াতেও লেখালেখি হয়েছিল। শ্যাম বাহাদুর তাই বলছেন, ‘‘এত দিন পিচ নিয়ে অনেকে অনেক কথা বলেছে। কিন্তু শেষ দিনে মাহি ভাইয়ের প্রশংসা শুনে আমার খুব ভাল লাগছে। মাহি ভাই আমাকে বলে দিয়েছিলেন, কে কী বলছে তাতে কান না দিয়ে নিজের কাজটা করে যেতে। ঠিক সেটাই করেছি আমি।’’

টেস্টের শেষ দিনে মাঠে ভিড় খারাপ হয়নি। দর্শকদের অনেকেই কিন্তু বিরাটদের পাশাপাশি ধোনিকে দেখতেও মাঠে এসেছিলেন। রাঁচীর লালপুর থেকে আসা ধোনির এক ভক্ত নরেন্দ্র কুমার বলেন, ‘‘সোমবার সকালেই টিভিতে দেখলাম ধোনি শহরে চলে এসেছে। তাই বন্ধুবান্ধব মিলে টিকিট কেটে মাঠে চলে এসেছি। ধোনিকে যদি একবার দেখা যায় এই আশায়।’’ ঝাড়খণ্ডের এক কর্তা বলছিলেন, ‘‘শেষ দিন টিকিটের চাহিদা হঠাৎ বেড়ে গিয়েছিল। ভারতের জয় দেখার আশা যেমন ছিল, তেমনই ধোনিকে দেখতেও প্রচুর মানুষ এসেছিলেন।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

MS Dhoni Pitch ranchi Praise
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE