×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ জুন ২০২১ ই-পেপার

ইটালীয় ওপেনের শেষ আটে নোভাক, ফিরলেন দর্শকরা

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ১৪ মে ২০২১ ০৭:৫৮


ছবি: পিটিআই

স্পেনের আলেজান্দ্রো দাভিদোভিচ ফকিনাকে স্ট্রেট সেটে হারিয়ে ইটালীয় ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনালে গেলেন বিশ্বের এক নম্বর টেনিস খেলোয়াড় নোভাক জোকোভিচ। শেষ আটে গেলেন স্পেনের রাফায়েল নাদালও। এই দুই ম্যাচে খেলা দেখলেন দর্শকেরাও।

এই প্রতিযোগিতায় পাঁচ বারের বিজয়ী নোভাক ৭০ মিনিটেই ৬-২, ৬-১ ফলে খেলা শেষ করে দেন বিশ্বের ৪৮ নম্বর আলেজান্দ্রোর বিরুদ্ধে। করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধ সংক্রান্ত নিয়মবিধি শিথিল হওয়ায় এই ম্যাচ দেখার সুযোগ পেয়েছিলেন স্টেডিয়ামের আসন সংখ্যার ২৫ শতাংশ দর্শক। তাঁরাও উপভোগ করলেন এই দ্বৈরথ।

ম্যাচের পরে ৩৩ বছর বয়সি জোকোভিচ বলেন, ‍‘‍‘এটা একটা দুর্দান্ত ব্যাপার হল। এই দর্শকদের অভাব এতদিন বোধ করছিলাম।’’ শেষ আটে জোকোভিচের প্রতিপক্ষ স্তেফানোস চিচিপাস। উল্লেখ্য, গত বছর ফরাসি ওপেনের সেমিফাইনালেও মুখোমুখি হয়েছিলেন এই দু’জন। যে ম্যাচে জিতেছিলেন নোভাক। প্রতিযোগিতার পঞ্চম বাছাই চিচিপাস এক ঘণ্টা ছত্রিশ মিনিটের মধ্যে ৭-৬, ৬-২ ফলে জয় তুলে নেন মাতেও বেরেত্তিনির বিরুদ্ধে। ম্যাচ জিতে খুশি জোকোভিচ বলছেন, ‍‘‍‘রোমে এলে মনে হয়, নিজের ঘরেই ফিরে এসেছি।’’ ক্লে কোর্টের এই প্রতিযোগিতায় ১৫ বারই কোয়ার্টার ফাইনালে গিয়েছেন জোকোভিচ। তাঁর কথায়, ‍‘‍‘এখানে মানুষের দুর্দান্ত ভালবাসা পাই। কেবল কোর্টের ভিতরে নয়। আয়োজক, গাড়ির চালক, হোটেলের কর্মী সবাই আপন করে নেন। হয়তো এর একটা কারণ হতে পারে, আমি ইটালীয় ভাষা বলতে পারি। আমি ইটালিকে ভালবাসি।’’ যোগ করেছেন, ‍‘‍‘প্রতি বছর এই ভালবাসার বন্ধন বেড়ে আরও পোক্ত হয়ে যায়। আশা করছি, এর পরের ম্যাচে আরও ভালবাসা পাব। যা আমাকে প্রতিযোগিতায় এগোতে সাহায্য করবে।’’

Advertisement

এ দিন শুরুটা ভাল হয়নি জোকোভিচের। কিন্তু দ্রুত সেই ভুল শুধরে ম্যাচে ফেরেন তিনি। যে প্রসঙ্গে সার্বিয়ার টেনিস তারকা বলেছেন, ‍‘‍‘বিপক্ষ শুরুটা ভাল করেছিল। কিন্তু আমি দ্রুত ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছিলাম। তার ফলেই জয় এসেছে।’’ যোগ করেছেন, ‍‘‍‘গত সোমবারের চেয়ে ২০-৩০ শতাংশ ভাল খেলেছি। এই মুহূর্তে ভাল ছন্দে রয়েছি। আশা করছি, আগামী ম্যাচে আরও ভাল খেলব।’’

সম্মুখসমরে চিচিপাসের বিরুদ্ধে ৪-২ এগিয়ে জোকোভিচ। যদিও চিচিপাসও পরবর্তী ম্যাচের আগে হুঙ্কার ছেড়েছেন। তাঁর কথায়, ‍‘‍‘পরের ম্যাচে আরও ভাল খেলব।’’ এই প্রতিযোগিতায় সাত বার সেমিফাইনালে উঠেছেন জোকোভিচ। অন্য দিকে, ২০১৯ সালে ইটালীয় ওপেনের সেমিফাইনালে গিয়েছিলেন চিচিপাস। এ দিকে, ইটালীয় ওপেনে ন’বারের চ্যাম্পিয়ন ও প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় বাছাই রাফায়েল নাদাল ৩-৬, ৬-৪, ৭-৬ ফলে হারিয়েছেন ডেনিস শাপোভালভকে। ত্রয়োদশ বাছাই এই খেলোয়াড়ের বিরুদ্ধে ম্যাচ জিততে সাড়ে তিন ঘণ্টা সময় নেন নাদাল।

প্রথম সেট হারার পরে দ্বিতীয় সেটেও ০-৩ পিছিয়ে থিলেন নাদাল। এর পরেই স্বমহিমায় ম্যাচে ফেরেন তিনি। সেমিফাইনালে যাওয়ার জন্য ৩৪ বছর বয়সি নাদালকে লড়তে হবে জার্মানির আলেকজান্ডার জেরেভ বনাম কেই নিশিকোরির দ্বৈরথে বিজয়ীর সঙ্গে। উল্লেখ্য, গত সপ্তাহে মাদ্রিদ ওপেনে জেরেভের কাছেই কোয়ার্টার ফাইনালে হেরেছিলেন নাদাল।

Advertisement