Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৪ অক্টোবর ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

মিতালির সঙ্গে সম্পর্ক ভাল ছিল না, মেনেই নিলেন পওয়ার

পওয়ার যে রিপোর্ট বোর্ডের কাছে জমা দিয়েছেন, তাতে বলা হয়েছে মিতালি নাকি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মাঝপথে অবসর নিয়ে নিতে চেয়েছিলেন।

নিজস্ব প্রতিবেদন 
২৯ নভেম্বর ২০১৮ ০৪:৫৯
Save
Something isn't right! Please refresh.
চর্চায়: রমেশ পওয়ারের ভূমিকা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। ফাইল চিত্র

চর্চায়: রমেশ পওয়ারের ভূমিকা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। ফাইল চিত্র

Popup Close

তাঁর সঙ্গে মিতালি রাজের সম্পর্ক যে মোটেই ভাল ছিল না, তা কার্যত মেনে নিলেন ভারতের মেয়েদের দলের ভারপ্রাপ্ত কোচ রমেশ পওয়ার। কিন্তু গত সপ্তাহে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে যে প্রাক্তন ভারত অধিনায়ককে সম্পুর্ণ ক্রিকেটীয় কারণেই বাদ দেওয়া হয়েছিল, তা বুধবার তিনি জানিয়ে দেন বোর্ডের কর্তাদের। বিশ্বকাপে দল বাছাই নিয়ে যে বোর্ডের এক প্রভাবশালী কর্তা নিয়মিত যোগাযোগ রাখতেন দলের কর্তাদের সঙ্গে, তাও তিনি শুনেছেন বলে জানিয়েছেন। যদিও রাতে পওয়ার টুইট করে তাঁর এই স্বীকারোক্তির কথা অস্বীকার করেন। জানিয়ে দেন, তিনি মঙ্গলবার বোর্ড কর্তাদের কাছে গিয়ে এমন কিছুই বলেননি।

রাতে সংবাদ সংস্থা আরও জানিয়েছে, পওয়ার যে রিপোর্ট বোর্ডের কাছে জমা দিয়েছেন, তাতে বলা হয়েছে মিতালি নাকি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মাঝপথে অবসর নিয়ে নিতে চেয়েছিলেন। সংবাদ সংস্থার খবর, পওয়ার ওই রিপোর্টে লিখেছেন, ‘‘আশা করব, মিতালি ব্ল্যাকমেল করা বন্ধ করবে, কোচেদের চাপে ফেলা বন্ধ করবে। ও সব সময় টিমের আগে নিজের স্বার্থ দেখে।’’ নিজের পছন্দ মতো ব্যাটিং অর্ডার পেতে মিতালি নাকি পাকিস্তান ম্যাচের আগে খেলা ছেড়ে দেওয়ার হুমকি দিয়েছিলেন।

মঙ্গলবার বোর্ডকে পাঠানো ই-মেলে মিতালি কোচের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে দাবি করেন, পওয়ার তাঁর সঙ্গে বিশ্বকাপের শুরু থেকেই দুর্ব্যবহার করেন। সেই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে এ দিন বোর্ডের দফতরে ডেকে পাঠানো হয়েছিল পওয়ারকে। সিইও রাহুল জোহরি ও জেনারেল ম্যানেজার (ক্রিকেট অপারেশনস্) সাবা করিম, যাঁদের বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করার ভার দিয়েছে কমিটি অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটর্স (সিওএ), সেই দুই কর্তার সঙ্গে এ দিন দেখা করে মিতালির সঙ্গে তাঁর দূরত্বের কথা স্বীকার করে নেন পওয়ার, জানিয়েছে সংবাদ সংস্থা।

Advertisement

আরও পড়ুন: পাঁচ গোল দিয়ে হকি বিশ্বকাপে অভিযান শুরু ভারতের

বোর্ডের এক কর্তা সংবাদ সংস্থাকে বলেন, ‘‘রমেশ স্বীকার করেছে, মিতালির সঙ্গে তার পেশাদার সম্পর্ক ভাল ছিল না। কারণ, তার মতে, মিতালি নাকি খুবই নির্লিপ্ত ছিল ও তাকে নিয়ন্ত্রণ করা মোটেই সহজ ছিল না।’’ মিতালি তাঁর বিস্ফোরক ই-মেলে জানান, ওয়েস্ট ইন্ডিজে নামার পর থেকেই পওয়ার তাঁর সঙ্গে দূরত্ব বজায় রেখে চলতেন। মিতালি তাঁর সঙ্গে কথা বলতে গেলে তাঁকে গুরুত্ব দিতেন না। নেটে অন্যদের অনুশীলনে লক্ষ্য রাখলেও মিতালির অনুশীলন দেখতেন না। এমনকি, বিশেষজ্ঞ ওপেনার মিতালিকে বিশ্বকাপে মিডল অর্ডারে ব্যাট করতে পাঠানোর চেষ্টাও করেন। যা নিয়ে মিতালি মন্তব্য করেন, ‘‘আমাকে শেষ করে দেওয়ার চেষ্টা করেন ক্ষমতায় থাকা কিছু মানুষ।’’ সুনীল গাওস্কর অবশ্য মিতালির পাশেই দাঁড়িয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘‘মিতালির জন্য আমার দুঃখ হচ্ছে।’’

আরও পড়ুন: জলের ক্রেটে আছড়ে ফেলে বিতর্কে জোসে

বোর্ডের কোনও এক প্রভাবশালী কর্তা দল বাছাই নিয়ে ম্যানেজার তৃপ্তি ভট্টাচার্য ও নির্বাচক সুধা শাহ-র সঙ্গে যে নিয়মিত যোগাযোগ রাখতেন, বুধবার বোর্ড কর্তাদের নাকি তাও জানিয়ে এসেছেন পওয়ার। অবশ্য তিনি নিজে এমন কোনও ফোন পাননি বলে জানান। মিতালি তাঁর ই-মেলে ডায়ানার বিরুদ্ধেও সরাসরি অভিযোগ করেন। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সেমিফাইনালে মিতালিকে বাদ দেওয়া নিয়ে তাঁদের কোচ যে ব্যাখ্যা দিয়েছেন, তা নিয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বোর্ড কর্তা জানান, ‘‘ভাল স্ট্রাইক রেট না থাকার (১০৩.৮৮) জন্য মিতালিকে সেমিফাইনালে দল থেকে বাদ দেওয়া হয় বলে জানিয়েছে রমেশ। এ ছাড়াও উইনিং কম্বিনেশন ভাঙতে না চাওয়াকেও এর কারণ হিসেবে দেখিয়েছে সে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement