Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৫ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

না থেকেও শাকিবই প্রেরণা বাংলাদেশের

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ৩১ অক্টোবর ২০১৯ ০৩:৫৭
বুধবার দিল্লি বিমানবন্দর থেকে সতীর্থদের সঙ্গে বেরোচ্ছেন মুশফিকুর রহিম (ডান দিকে)। পিটিআই

বুধবার দিল্লি বিমানবন্দর থেকে সতীর্থদের সঙ্গে বেরোচ্ছেন মুশফিকুর রহিম (ডান দিকে)। পিটিআই

তীব্র ডামাডোলের মধ্যে ভারতের মাটিতে পা রাখল বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। গত ২৪ ঘণ্টায় বদলে গিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেটের ছবিটাই। আইসিসির শাস্তি মাথায় নিয়ে নির্বাসিত হয়েছেন দলের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার এবং অধিনায়ক শাকিব আল হাসান। তাঁর জায়গায় দল নিয়ে এ দিন দিল্লিতে নামলেন টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদুল্লা। শাকিবহীন দলের অধিনায়ক অবশ্য মনে করেন, এই পরিস্থিতি থেকেও ঘুরে দাঁড়াতে পারে বাংলাদেশ।

রবিবার, নয়াদিল্লিতেই সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি। শাকিবকে ছাড়া কতটা সফল হতে পারবে বাংলাদেশ? মাহমুদুল্লা বলছেন, ‘‘শাকিবের অনুপস্থিতি আমাদের ভাল খেলতে প্রেরণা জোগাবে। আমাদের মনে রাখতে হবে, দেশের প্রতিনিধিত্ব করার চেয়ে সম্মানের আর কিছু হতে পারে না। দেশের হয়ে আমাদের সব কিছু উজাড় করে দিতে হবে।’’

এই প্রথম ভারতে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে আসছে বাংলাদেশ। এর আগে এক টেস্টের সিরিজ খেলে গিয়েছিল তারা। এ বারের সিরিজে তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ ছাড়াও থাকছে দুটি টেস্ট ম্যাচ। যার মধ্যে ইডেনে দ্বিতীয় টেস্ট হতে যাচ্ছে দিনরাতের।

Advertisement

তবে মাহমুদুল্লা এটা স্বীকার করে নিয়েছেন, ভারতের বিরুদ্ধে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখেই পড়বে তাঁর দল। অধিনায়কের দায়িত্ব পাওয়া এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান বলেছেন, ‘‘পরিসংখ্যান তো আর মিথ্যে কথা বলে না। আমাদের কাজটা কঠিন। তবে অসম্ভব নয়। আমাদের একটা দল হিসেবে পারফর্ম করতে হবে। আর যা সুযোগ সামনে আসবে, তা কাজে লাগাতে হবে।’’

মাহমুদুল্লার দলে এ বার তারুণ্যের আধিক্যই বেশি। তাঁকে প্রয়োজনে সাহায্য করতে পারেন একমাত্র অভিজ্ঞ মুশফিকুর রহিমই। দলের বাকি দুই সিনিয়র সদস্য— শাকিব এবং তামিম ইকবালের যে আসা হয়নি দলের সঙ্গে। শাকিব নির্বাসিত আর পারিবারিক কারণে সরে দাঁড়িয়েছেন তামিম।

সেই মুশফিকুর স্বীকার করে নিচ্ছেন, শাকিবের অভাব টের পাবে বাংলাদেশ। তাদের অন্যতম সেরা এই ব্যাটসম্যান বলেছেন, ‘‘আমরা এত দিন ধরে এক সঙ্গে খেলে এসেছি। আমি অবশ্যই ওর অভাবটা টের পাব।’’ তবে শাকিবের অনুপস্থিতিটা মুশফিকুর দেখতে চান একটু অন্য ভাবে। তিনি মনে করেন, শাকিব যদি চোট পেয়ে এক বছরের জন্য বাইরে চলে যেতেন, তা হলেও তো একই পরিস্থিতি হত। মুশফিকুরের কথায়, ‘‘শাকিব হল বিশ্বের এক নম্বর অলরাউন্ডার। ওকে ছাড়া খেলাটা সব সময়ই কঠিন। তবে কেউ যদি চোট পেয়ে এক বছরের জন্য ছিটকে যেত, তবে তার জায়গায় ভরাট করার জন্য কোনও তরুণ ক্রিকেটারকে তো উঠে আসতে হত। ভারতকে ভারতের মাটিতে হারানোটা সব সময়ই কঠিন চ্যালেঞ্জ। কিন্তু চ্যালেঞ্জ মানে তো একটা সুযোগও। সেই সুযোগটাই কাজে লাগাতে হবে।’’

দেশ থেকে ভারতে আসার আগে ফেসবুকে শাকিবকে নিয়ে একটা আবেগপ্রবণ পোস্ট করেন মুশফিকুর। যেখানে তিনি লেখেন, ‘‘বয়সভিত্তিক ক্রিকেট...আন্তর্জাতিক ক্রিকেট...গত ১৮ বছর ধরে তোমার সঙ্গে খেলে যাচ্ছি। মাঠে তোমাকে ছাড়া খেলতে হবে, এটা ভাবতেই এখন ভারাক্রান্ত হয়ে পড়ছি। আশা করব তুমি আবার চ্যাম্পিয়নের মতোই ফিরে আসবে। আমার সমর্থন এবং গোটা বাংলাদেশের সমর্থন তোমার সঙ্গে রয়েছে। মনকে শক্ত রাখো।’’

ঘোষিত দল (টি-টোয়েন্টি): মাহমুদুল্লা (অধিনায়ক), লিটন দাস, সৌম্য সরকার, মহম্মদ নইম, মুশফিকুর রহিম, আফিফ হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন, আমিনুল ইসলাম, আরাফত সানি, আল আমিন হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান, শফিউল ইসলাম, মহম্মদ মিঠুন, তাইজুল ইসলাম, আবু হায়দর।

ঘোষিত দল (টেস্ট): মোমিনুল হক (অধিনায়ক), শাদমান ইসলাম, ইমরুল কায়েস, সইফ হাসান, লিটন দাস, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদুল্লা, মহম্মদ মিঠুন, মোসাদ্দেক হোসেন, মেহদি হাসান, তাইজুল ইসলাম, নইম হাসান, মুস্তাফিজুর রহমান, আল আমিন হোসেন, আবু জায়েদ, এবাদত হোসেন।

আরও পড়ুন

Advertisement