Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০১ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্টে ফাইনালের আশা জোরালো ভারতের

শার্দূলের চার উইকেট ও মণীশদের ব্যাটে জয়

নিজস্ব প্রতিবেদন
১৩ মার্চ ২০১৮ ০৪:১১
নায়ক: আরও একটি উইকেট। বল হাতে ভয়ঙ্কর শার্দূল ঠাকুর। ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে চার উইকেট নিয়ে তিনিই ম্যাচের সেরা। সোমবার কলম্বোয়। ছবি: এএফপি

নায়ক: আরও একটি উইকেট। বল হাতে ভয়ঙ্কর শার্দূল ঠাকুর। ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে চার উইকেট নিয়ে তিনিই ম্যাচের সেরা। সোমবার কলম্বোয়। ছবি: এএফপি

শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টুর্নামেন্টের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে হেরে গিয়েছিল ভারত। ফিরতি ম্যাচে সেই শ্রীলঙ্কাকেই সহজে হারিয়ে দিল রোহিত শর্মার দল। জয়ের নায়ক শার্দূল ঠাকুর (৪-২৭), মণীশ পাণ্ডে (৩১ বলে অপরাজিত ৪২) এবং দীনেশ কার্তিক (২৫ বলে অপরাজিত ৩৯)। শ্রীলঙ্কার ১৫২ রানের লক্ষ্য ১৭.৩ ওভারে চার উইকেট হারিয়ে তুলে দেয় ভারত।

এই জয়ের ফলে ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্টের ফাইনালে ওঠার দিকে অনেকটাই এগিয়ে গেলেন রোহিতরা। লিগ টেবিলের শীর্ষেও ভারত। তিনটে ম্যাচ খেলে ভারতের পয়েন্ট চার, নেট রান রেট .২১০। দু’নম্বরে শ্রীলঙ্কা (তিন ম্যাচে পয়েন্ট ২, নেট রান রেট -০.০৭২)। তিন নম্বরে বাংলাদেশ (২ ম্যাচে ২ পয়েন্ট, নেট রান রেট -০.২৩১)। গ্রুপের শেষ ম্যাচে বাংলাদেশকে হারালেই ফাইনালে চলে যাবে ভারত। আর হেরে গেলে তাকিয়ে থাকতে হবে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচের ফলে দিকে। ভারতের সুবিধে, তাদের নেট রান রেট অনেক ভাল।

শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধেই ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে এক ওভারে ২৭ রান দিয়েছিলেন শার্দূল। সেই শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ফিরতি ম্যাচেই ছবিটা সম্পূর্ণ বদলে গেল। এ বার ভারতীয় বোলারদের মধ্যে তিনিই নায়ক। চার ওভারে ২৭ রান দিয়ে চার উইকেট তুলে নিয়ে শ্রীলঙ্কাকে ১৯ ওভারে ১৫২-৯ স্কোরে আটকে রাখলেন শার্দূল। শুরুর দিকে যে ঝড় উঠেছিল কুশল মেন্ডিসের ব্যাটে, সেটাই থামিয়ে দিল শার্দূলের পেস। যেখানে একটা সময় শ্রীলঙ্কার রান রেট প্রায় দশের কাছাকাছি ছিল, সেটাই ইনিংস শেষে এসে দাঁড়ায় আটের সামান্য ওপরে।

Advertisement

আরও পড়ুন: ইতিমধ্যেই দু’ম্যাচ নির্বাসিত কাগিসো রাবাডা

প্রথম দিকে ওয়াশিংটন সুন্দর (২-২১) এবং যুজবেন্দ্র চহাল (১-৩৪) মিলে শ্রীলঙ্কাকে ধাক্কা দেন। বাকি কাজটা করেন শার্দূল। ডেথ ওভারে এসে শ্রীলঙ্কাকে বড় রান করা থেকে আটকে রাখেন তিনি। ১৯ নম্বর ওভারে দাসুন শনাকা এবং দুষ্মন্ত চামিরাকে আউট করে হ্যাটট্রিকের সামনেও ছিলেন শার্দূল।



সফল: ৩১ বলে ৪২। ব্যাট হাতে অবদান মণীশ পাণ্ডের। ছবি: এএফপি

শার্দূল খারাপ সময় কাটিয়ে উঠলেও এই সিরিজে অধিনায়কের দায়িত্ব পাওয়া রোহিত শর্মার খারাপ ফর্ম কিন্তু অব্যাহত। সোমবারের ম্যাচেও রান পেলেন না তিনি। সাত বলে ১১ রান করে ফিরে যান রোহিত। দুরন্ত ফর্মে থাকা শিখর ধবনও এই ম্যাচে ব্যর্থ হলেন। তাঁর রান ১০ বলে ৮। শ্রীলঙ্কার বোলারদের আক্রমণ করার কাজটা শুরু করেছিলেন সুরেশ রায়না। ১৫ বলে ২৭ রান করেন এই বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান। মারেন দু’টো চার, দু’টো ছয়। যে দায়িত্বটা পরে নিজের কাঁধে তুলে নেন মণীশ। আর তাঁকে যোগ্য সহায়তা করেন কার্তিক। এই ম্যাচে ঋষভ পন্থের জায়গায় কে এল রাহুলকে খেলানো হয়। তিন নম্বরে নেমে রাহুলের রান ১৮। তিনি জীবন মেন্ডিসের বলে হিট উইকেট হয়ে যান।

প্রথমে ব্যাট করতে নেমে শ্রীলঙ্কার দুই ওপেনার শুরুটা ভালই করেছিলেন। প্রথম দু’ওভারে উঠে যায় ২৪ রান। এই ম্যাচে অবশ্য রান পেলেন না কুশল পেরেরা। কিন্তু পেরেরা ব্যর্থ হলেও শ্রীলঙ্কার হয়ে ভাল খেলে গেলেন ওপেনার কুশল মেন্ডিস। তিনি করে গেলেন ৩৮ বলে ৫৫। মারেন তিনটে চার, তিনটে ছয়। বৃষ্টির জন্য এই ম্যাচ দেরিতে শুরু হয়েছিল। যার জন্য ২০ ওভারের পরিবর্তে ম্যাচ ১৯ ওভারের হয়।

ম্যাচের পরে নায়ক শার্দূল বলেন, ‘‘আমার ওপর কোনও চাপ ছিল না। আমার স্বপ্নই ছিল ভারতকে কোনও না কোনও ম্যাচে জেতানো। সেই স্বপ্নই এ দিন সফল হল।’’ মণীশ বলে গেলেন, ‘‘আমার লক্ষ্যই ছিল শেষ পর্যন্ত থেকে টিমকে জেতানো। সেটাই করেছি।’’

আরও পড়ুন

Advertisement