×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

বায়ো বাবল, ভার না থাকা খারাপ রেফারিংয়ের কারণ, বলছেন সুভাষ, প্রদীপ

জাগৃক দে
কলকাতা ১৩ জানুয়ারি ২০২১ ১৯:৩৩
আইএসএলে রেফারিং নিয়ে ক্ষোভ বাড়ছেই।

আইএসএলে রেফারিং নিয়ে ক্ষোভ বাড়ছেই।

আইএসএলে রেফারিং নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে নানা মহলে। সমর্থক থেকে শুরু করে প্রাক্তন ফুটবলার, সকলেই প্রশ্ন তুলছেন রেফারিদের একের পর এক ভুল সিদ্ধান্ত নিয়ে। সুভাষ ভৌমিক ও প্রদীপ নাগ দুজনেই ভারতে ‘ভার’ (VAR) প্রযুক্তি চাইছেন। বায়ো বাবলে থাকাও রেফারিদের কাজ কঠিন করেছে বলে মনে করেন সুভাষ।

প্রাক্তন ফুটবলার ও কোচ সুভাষ ভৌমিক ক্ষুব্ধ রেফারিং নিয়ে। তিনি বলেন, ‘‘এবছর ফুটবল বেশ ভাল হচ্ছে। কিন্তু প্রায় প্রতি ম্যাচেই ভুল রেফারিং নিয়ে আমি বিরক্ত। রেফারীরা বলের কাছে থাকতে পারছেন না ফলে, ভুল করে ফেলছেন। পরিষ্কার পেনাল্টি দেখতে পাচ্ছেন না। কখনো আবার বলে ট্যাকেল করলেও লাল কার্ড দেখান হচ্ছে। এমন ভুল ক্ষমার অযোগ্য।’’ ভার নিয়ে সুভাষের বক্তব্য, ‘‘ভার খুবই খরচ সাপেক্ষ। এটা এখানে আনা যাবে কিনা জানি না। তবে ভারও ত্রুটিমুক্ত নয়। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে বারবার এ নিয়ে সমালোচনা হয়েছে। তবে আনতে পারলে ভাল হয়।’’

রেফারিদের পাশে দাঁড়িয়েও প্রাক্তন রেফারি প্রদীপ নাগ মনে করেন, ‘‘খুব তাড়াতাড়ি ভার বা গোল লাইন প্রযুক্তি ভারতে আনা দরকার। তা হলে ভাল হবে। তবে, এই দুই প্রযুক্তিও ত্রুটিমুক্ত নয়। এছাড়া এগুলোর খরচও অনেক। এর জন্য বিস্তর প্রশিক্ষণের প্রয়োজন হয়। সেটা যদি সম্ভব হয়, তবে খুব তাড়াতাড়ি প্রযুক্তি নিয়ে আসাই ভাল।'’’

Advertisement

আরও পড়ুনঃ চাকরি খোয়ালেন জেরার্ড নুস, নর্থ ইস্টের কোচ হচ্ছেন খালিদ জামিল

এ মরশুমে বায়ো বাবলে থাকতে হচ্ছে। রেফারিদের সেই কারণেও সমস্যা হতে পারে বলে মনে করেন সুভাষ। তাঁর মতে, ‘‘বায়ো বাবলে থাকলে মানসিকতায় একটা প্রভাব পড়ে। ফিটনেসও সমস্যার একটা কারণ হতে পারে। তবে ভারতীয় রেফারিরা এত খারাপ নন। তাই কেন এমন হচ্ছে, তা খতিয়ে দেখা দরকার।’’

রেফারিং নিয়ে এসসি ইস্টবেঙ্গলের ক্ষোভ সবচেয়ে বেশি। প্রথম ম্যাচ থেকেই অভিযোগ আসতে শুরু করে। প্রথম ম্যাচে এটিকে মোহনবাগানের বিরুদ্ধে পিলকিংটনকে বক্সের মধ্যে অবৈধভাবে বাধা দেওয়ার অভিযোগ ওঠে। রেফারি পেনাল্টি দেননি। জামশেদপুরের বিরুদ্ধে আঙ্গুসানার লাল কার্ড নিয়েও বিতর্ক হয়। অভিযোগ নর্থইস্ট ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে পেনাল্টি থেকে বঞ্চিত হন মাঘোমা। এফসি গোয়ার বিরুদ্ধে লাল কার্ড দেখতে হয় ড্যানি ফক্সকে। পরে নিজেরাই ভুল স্বীকার করে বেঙ্গালুরু এফসির বিরুদ্ধে ম্যাচে ফক্সকে খেলার অনুমতি দেয় এআইএফএফ।

আরও পড়ুনঃ চোখে বিপক্ষের পা, মারাত্মক চোট পেলেন মোহন গোলরক্ষক অরিন্দম​

মুম্বই সিটি এফসির বিরুদ্ধে ম্যাচে নিশ্চিত পেনাল্টি পায়নি বলে অভিযোগ করেছে এটিকে মোহনবাগান। রেফারিং নিয়ে কটাক্ষ করেছেন এফসি গোয়া কোচ হুয়ান ফার্নান্দোও। ওড়িশা এফসির বিরুদ্ধে নিশ্চিত দুটি পেনাল্টি পায়নি তারা, এমনটাই অভিযোগ ছিল তাঁর।

রেফারিং নিয়ে ইতিমধ্যেই এআইএফএফকে চিঠিও পাঠিয়েছে এসসি ইস্টবেঙ্গল। শুধুমাত্র ইস্টবেঙ্গল নয়, এটিকে মোহনবাগান, চেন্নাইয়িন এফসিও অসন্তোষ প্রকাশ করেছে।

Advertisement