Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

কোচহীন শ্রীবৎসদের লক্ষ্য ফোকাস ধরে রাখা

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৫ জানুয়ারি ২০২১ ১৬:৩৪
ফোকাস ধরে রাখতে মরিয়া শ্রীবৎস ও তাঁর দল। ছবি : সিএবি

ফোকাস ধরে রাখতে মরিয়া শ্রীবৎস ও তাঁর দল। ছবি : সিএবি

দলের হেড কোচ অরুণ লালের মাতৃবিয়োগ। শেষকৃত্যের সমস্ত কাজকর্ম মিটিয়ে আবার হোটেলে ফিরলেও, অতি সহজে ক্রিকেটারদের সঙ্গে মিশতে পারবেন না। নিয়ম অনুসারে অন্তত পাঁচ দিন তাঁকে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। কোচের প্রতি সমবেদনা থাকলেও বঙ্গব্রিগেড খেলায় মন দিতে চায়। সেটাই বুঝিয়ে দিলেন হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে ৬৯ রানে অপরাজিত থেকে ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলা শ্রীবৎস গোস্বামী

বলছিলেন, "ওঁর মাতৃবিয়োগ খুবই দুঃখের ঘটনা। গত কয়েকদিন ধরেই স্যারের মা অসুস্থ ছিলেন। পুরো দল ওঁর পাশে আছে। তবে একইসঙ্গে আমাদের বাকি ম্যাচ নিয়ে ফোকাস থাকতে হবে। একফোঁটা ঢিলেমিও বরদাস্ত নয়।" ওড়িশা ও ঝাড়খণ্ডের বিরুদ্ধেও মারমূখী মেজাজে শুরু করেছিলেন। তবে বড় রান আসেনি। তাই বৃহস্পতিবারের সন্ধেয় বিবেক সিংহ দ্রুত ফেরার পর ক্রিজে টিকে থাকার সংকল্প আরও দৃঢ় করেন। ম্যাচ জেতানো ইনিংস নিয়ে শ্রী বললেন, "বিবেক দ্রুত ফেরার পরেও বড় ইনিংস গড়ার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী ছিলাম। তাছাড়া সিনিয়র হিসেবেও বাড়তি দায়িত্ব থেকেই যায়। সেটাই পালন করার চেষ্টা করছি।"

হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে জয়ের হ্যাটট্রিক করার পর ১৬ জানুয়ারি অসমের বিরুদ্ধে নামবে বাংলা। তবে সবার নজর ১৮ জানুয়ারি হাইভোল্টেজ তামিলনাড়ু ম্যাচের দিকে। দলের পারফরম্যান্স দারুণ হলেও মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের নিয়ে সমস্যা থেকেই যাচ্ছে। মনোজ তেওয়ারি ও অধিনায়ক অনুষ্টুপ মজুমদার ছন্দে নেই। এটা কি মাথাব্যাথার কারণ নয়? শ্রীবৎসের দাবি, "টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে সব ব্যাটসম্যান কখনও রান পায় না। তাই এটা নিয়ে আমরা মোটেও চিন্তিত নই। মনোজ ও অনুষ্টুপ দুজনেই অভিজ্ঞ। তাই তামিলনাড়ুর মতো বড় ম্যাচে ওরা জ্বলে উঠতেই পারে।"

আরও পড়ুন: নতুন ‘আজহার’-এর জন্ম, মনে করালেন শাহিদ আফ্রিদিকে


টি-টিয়েন্টি ফরম্যাটে ব্যাটসম্যানদের রাজত্ব চলে। তবে এই প্রতিযোগিতার প্রতি ম্যাচেই নজর কাড়ছে বঙ্গ পেস অ্যাটাক। তিন জোরে বোলারের প্রশংসা করে সহ-অধিনায়ক শেষে যোগ করলেন, "এমনিতেই ইডেন গার্ডেন্সে জোরে বোলাররা বাড়তি সাহায্য পায়। তাছাড়া ওরা গত মরসুম থেকে একসাথে খেলছে। ওদের মধ্যে কোনও অহংবোধ নেই। আর এটাই সাফল্যের কারণ।"

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement