Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৬ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

ম্যাচের নায়ক যুজবেন্দ্র চহাল

টি-টোয়েন্টি হোক প্রতিভা অন্বেষণের মঞ্চ, চায় ভারত

ক্যানভাসে আরও বৃহত্তর ছবি দেখছে রবি শাস্ত্রীর টিম ম্যানেজমেন্ট। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটকে তরুণদের মঞ্চ হিসেবে ব্যবহার করতে চাইছে।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কটক ২১ ডিসেম্বর ২০১৭ ০৪:৩৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
দলে নতুন মুখকে সুযোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

দলে নতুন মুখকে সুযোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

Popup Close

ভারতীয় ক্রিকেটে তরুণ রক্ত আমদানির উদ্দেশে আরও নতুন মুখকে সুযোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়ে গিয়েছে। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে চলতি টি-টোয়েন্টি সিরিজ থেকেই যা শুরু হয়ে যাচ্ছে।

একদিকে বাঁ হাতি পেসারের আকালে জয়দেব উনাদকাটের মতো পুরনোদের ফের চেষ্টা করে দেখা হচ্ছে। আনন্দবাজারে বুধবার প্রকাশিত খবর মতো উনাদকাটকে এ দিন কটকের ম্যাচে খেলানো হল। কলকাতা নাইট রাইডার্সের প্রাক্তন ক্রিকেটার এবং ওয়াসিম আক্রমের শিষ্য দুই ওভারে ৭ রান দিয়ে একটি উইকেট পেলেন। যা দেখে মনে হচ্ছে, তিনি পরীক্ষার মধ্যে থাকার ছাড়পত্র অন্তত জোগাড় করে নিতে পারলেন।

ক্যানভাসে আরও বৃহত্তর ছবি দেখছে রবি শাস্ত্রীর টিম ম্যানেজমেন্ট। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটকে তরুণদের মঞ্চ হিসেবে ব্যবহার করতে চাইছে। ভুবনেশ্বরে আনন্দবাজারের সঙ্গে একান্ত আলাপচারিতায় শাস্ত্রী এই ভাবনার কথা স্বীকার করে নিয়ে বললেন, ‘‘ভারতীয় দলের কোর গ্রুপ তো রয়েইছে। সঙ্গে আমাদের কাজ হচ্ছে, ভারতীয় ক্রিকেটকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। তার জন্য তরুণ রক্তকে সুযোগ দিতে হবে।’’

Advertisement

শাস্ত্রীর পাশে তখন বসা বোলিং কোচ বি. অরুণ। তাঁর ক্রিকেটজীবন খুব উজ্জ্বল কিছু না হলেও কোচিং অভিজ্ঞতা প্রচুর। জাতীয় অ্যাকাডেমিতে দীর্ঘকাল ধরে খুদে প্রতিভাদের বড় করেছেন। দেশের যে কোনও প্রান্তে কোন নতুন প্রতিভা কী করছে, কম্পিউটারের মতো সব অরুণের মস্তিষ্কে ‘লোড’ করা। খবর পেয়েছেন, দক্ষিণে কোনও এক বাঁ হাতি পেসার নাকি স্থানীয় ক্রিকেটে সাড়া ফেলেছেন। সেটা নিয়েই দু’তিন দিন ধরে সেটা নিয়েই খোঁজখবর করে যাচ্ছেন। জাতীয় অ্যাকাডেমিতে সেরা সময় মনে করা হয় ডাভ হোয়াটমোরের সময়টাকে। হোয়াটমোরকে নিয়োগ করার পিছনে যেমন শাস্ত্রীর হাত ছিল, তেমনই অজানা কাহিনি হচ্ছে, অরুণও সেই সময় থেকে হোয়াটমোরের সহকারী হিসেবে কাজ করে অনেক প্রতিভা বের করে এনেছিলেন।

আরও পড়ুন: কিংবদন্তিদের তালিকায় সেরা পাঁচের মধ্যে কোহালি, ধোনি

এখনকার ভারতীয় দলের অনেক তরুণ সদস্য সেই সময়কার জাতীয় অ্যাকাডেমির ফসল। তরুণদের ক্রিকেটে ভাল রকম অভিজ্ঞতা থাকা অরুণ মনে করেন, টি-টোয়েন্টি সিরিজগুলোকে ‘ট্যালেন্ট রিসার্চ সেন্টার’ বানিয়ে ফেলা উচিত। তরুণ প্রতিভাদের সুযোগ দেওয়ার মঞ্চ হিসেবে ব্যবহার করে এখান থেকে ভবিষ্যতের তারকা তৈরি করো। শাস্ত্রী এবং তিনি দু’জনেই এ ব্যাপারে একমত। এই সিরিজেই চার থেকে পাঁচটি নতুন মুখ রয়েছে। বাসিল থাম্পি রয়েছেন। তরুণ পেসারকে নিয়ে উচ্ছ্বসিত টিমের অনেকেই। দক্ষিণ আফ্রিকাতেও অতিরিক্ত বোলার হিসেবে তাঁকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। থাম্পি মঙ্গলবার অনুশীলনেও যেরকম বলে-বলে ইয়র্কার করেছিলেন, ভারতীয় বোলারদের মধ্যে এক যশপ্রীত বুমরা ছাড়া কাউকে তা করতে দেখা যায় না। অলরাউন্ডার দীপক হুডা আছেন। দক্ষিণের নতুন বিস্ময় স্পিনার ওয়াশিংটন সুন্দর আছেন। তাঁর ব্যাটের হাতও যথেষ্ট ভাল। দলীপ ট্রফি ফাইনালে যিনি ম্যাচের সেরা হতে পারেন, তাঁর মধ্যে মশলা আছে বলেই মনে করা হচ্ছে।

শাস্ত্রী নিজে ক্রিকেটজীবনে তরুণ রক্তকে বরাবর গুরুত্ব দিয়েছেন। বাংলার বিরুদ্ধে রঞ্জি ফাইনাল জিতেছিলেন প্রায় আনকোরা দল নিয়ে। মঙ্গলবার অনুশীলনে তরুণ ব্রিগেডকে দেখে উত্তেজিত হয়ে টুইট করেন তাঁদের ছবি দিয়ে। তা দেখে মনে হচ্ছে, টি-টোয়েন্টি সিরিজে থাম্পি, ওয়াশিংটন-রা সকলে সুযোগ পেলেও অবাক হওয়ার নেই। বুধবার কটকে জেতার পরে তো আরওই সেই সম্ভাবনা বেড়ে গেল। টিম ম্যানেজমেন্ট মনে করছে, বড় মঞ্চে সুযোগ না দিলে প্রতিভার স্ফুরণ ঘটবে না। আর যে হেতু এই মুহূর্তে টি-টোয়েন্টির বিশ্বকাপ কাছাকাছি নেই, এটাই নতুনদের সুযোগ দেওয়ার সেরা সময়। কটকে তাই শুধুই একটি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ হল না। প্রতিভার গবেষণাগার খোলা হয়েছিল। এর পর গবেষণাগার যাবে ইনদওর এবং মুম্বইয়ে। টি-টোয়েন্টি সিরিজের পরের দু’টি ম্যাচের জন্য।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement