Advertisement
২৮ জানুয়ারি ২০২৩

দেশে ফিরে আপ্লুত মিতালি

দেশে ফিরেই অবশ্য আর একটা ভাল খবর পেলেন ভারত অধিনায়ক মিতালি। দলকে ফাইনালে তোলার পুরস্কার হিসেবে একটি বিদেশি গাড়ি তাঁকে উপহার দিচ্ছেন তাঁরই রাজ্যের প্রাক্তন রঞ্জি অধিনায়ক ভি চামুণ্ডেশ্বরনাথ।

মেজাজে: দেশবাসীর হৃদয় জিতে ভারতে পা দেওয়ার পর আড্ডায় মেতেছেন ঝুলন গোস্বামী, সুষমা ভার্মা হরমনপ্রীত কৌর-রা । পিটিআই

মেজাজে: দেশবাসীর হৃদয় জিতে ভারতে পা দেওয়ার পর আড্ডায় মেতেছেন ঝুলন গোস্বামী, সুষমা ভার্মা হরমনপ্রীত কৌর-রা । পিটিআই

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ২৭ জুলাই ২০১৭ ০৪:৩৫
Share: Save:

বুধবার দেশে ফিরে যে রকম অভ্যর্থনা পেলেন, তা যেমন অভূতপূর্ব, মিতালি রাজদের কাছে তেমনই অভাবনীয়ও। এমন অভ্যর্থনা দেখে ভারত অধিনায়ক মিতালি বলতে বাধ্য হলেন, ‘‘দেশে মেয়েদের ক্রিকেটের সুদিন শুরু হল বোধহয়।’’

Advertisement

মুম্বই বিমানবন্দরে এ দিন সকালে মিতালিদের অভ্যর্থনা জানাতে ব্যাপক ভিড় জমে যায়। মহিলা ক্রিকেটারদের এমন অভ্যর্থনা আগে কখনও দেখা যায়নি বলে জানালেন মিতালি। দুপুরে সাংবাদিকদের বললেন, ‘‘এমন অভ্যর্থনা পেয়ে আমি অভিভূত। আমাদের প্রত্যেকেই এমন অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হল প্রথম। ২০০৫-এও বিশ্বকাপ থেকে ফিরে অনেকটা এ রকমই অভিজ্ঞতা হয়েছিল। কিন্তু তখন আমরা বোর্ডের অধীনে ছিলাম না। যদি থাকতাম, তখনও নিশ্চয়ই এমনই হত। এখন যেহেতু আমাদের ম্যাচগুলো টিভিতে সরাসরি দেখা যাচ্ছে, আমরা বিসিসিআই-এর অধীনে চলে এসেছি, তাই তফাতটা বোঝা যাচ্ছে। মনে হচ্ছে মেয়েদের ক্রিকেটের ভাল দিন শুরু হয়ে গিয়েছে।’’

দেশে ফিরেই অবশ্য আর একটা ভাল খবর পেলেন ভারত অধিনায়ক মিতালি। দলকে ফাইনালে তোলার পুরস্কার হিসেবে একটি বিদেশি গাড়ি তাঁকে উপহার দিচ্ছেন তাঁরই রাজ্যের প্রাক্তন রঞ্জি অধিনায়ক ভি চামুণ্ডেশ্বরনাথ। এর আগে অলিম্পিক্সে সফল হয়ে ফেরা ব্যাডমিন্টন তারকা পিভি সিন্ধু, সাইনা নেহওয়াল, পারুপল্লি কাশ্যপ, পুলেল্লা গোপীচন্দ, কুস্তিগীর সাক্ষী মালিক, জিমন্যাস্ট দীপা কর্মকারকে বিদেশী গাড়ি উপহার দিয়েছেন এই প্রাক্তন ক্রিকেটার। এ বার সেই তালিকায় ঢুকে পড়ছেন মিতালিও। বুধবারই এই উপহারের কথা ঘোষনা করেন চামুণ্ডেশ্বরনাথ।

আরও পড়ুন:ইংলিশ চ্যানেল জয় করলেন বাংলার সায়নী

Advertisement

সংবর্ধনা: মুম্বইইয়ে বরণ করা হচ্ছে হরমনপ্রীতকে। পিটিআই

মিতালি অবশ্য বিদেশি গাড়িতেই সন্তুষ্ট নন। তিনি চান, দেশে মেয়েদের ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা ও গুরুত্ব দুটোই আরও বাড়ুক। এবং তাঁর এই ইচ্ছেপূরণ হতে গেলে যে অস্ট্রেলিয়ার মতো এ দেশেও মেয়েদের আইপিএল চালু হওয়া দরকার, তা খুব ভাল করেই জানেন তিনি। বলেনও সে কথা, ‘‘আমার মনে হয়, মেয়েদের আইপিএল হওয়ার সময় এসে গিয়েছে। দু’বছর আগে হলে হয়তো আমি এ কথা বলতাম না। কিন্তু এখন আমাদের মেয়েদের পারফরম্যান্সের মান যে রকম উন্নত হয়েছে, তাতে আর আইপিএল না হওয়ার কারণ দেখতে পাচ্ছি না।’’

এ দিকে মেয়েদের বিশ্বকাপে মিতালি ছাড়াও ভারতের সবচেয়ে বড় আবিষ্কার হরমনপ্রীত কৌর দেশে ফিরে তাঁর এক রহস্য ফাঁস করলেন। বিগ হিটার হরমন তাঁর বড় শটে দুনিয়া মাতিয়ে এসেছেন ইংল্যান্ডে। ‘‘ছোটবেলা থেকে ছেলেদের সঙ্গে খেলতাম বলেই ওদের মতো বড় শট মারা শিখেছি। এটাই আমার স্বাভাবিক ব্যাটিং। ঘরোয়া ক্রিকেটেও আমি এমনই খেলি।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.