রোজভ্যালি কাণ্ডে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের (ইডি) দফতরে হাজিরা দিলেন অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। প্রায় ছ’ঘণ্টা জেরার পর ইডি দফতর থেকে বার হন টলিউড তারকা। তবে জেরার শেষে কিছু বলতে চাননি তিনি। 

দিন কয়েক আগে প্রসেনজিৎকে তলব করেছিলেন ইডি আধিকারিকরা। সেই মতো শুক্রবার সকাল ১১টা নাগাদ ইডি দফতরে পৌঁছন প্রসেনজিৎ।

একসময় বেশ কিছু বাংলা ছবি প্রযোজনা করেছিল রোজভ্যালি সংস্থা। সেই সূত্রেই প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে যোগাযোগ হয় সংস্থার কর্ণধার গৌতম কুণ্ডুর। পরবর্তী ক্ষেত্রে রোজভ্যালির প্রযোজনায় একটি ছবিতেও অভিনয় করেন প্রসেনজিৎ। এ ছাড়াও, প্রসেনজিৎ-এর সংস্থার সঙ্গে বেশ কয়েকটি চুক্তিও হয় তাদের। তাই ইডি আধিকারিকরা জানতে চান, রোজভ্যালির সঙ্গে ঠিক ক’টি চুক্তি হয়েছিল প্রসেনজিৎ-এর সংস্থার, কত টাকার লেনদেন হয় এবং এই লেনদেনের নেপথ্যে কোনও আর্থিক অনিয়ম হয়েছিল কি না।

এই সমস্ত প্রশ্নের উত্তর পেতেই প্রসেনজিৎকে ডেকে পাঠানো হয়েছিল। গোয়েন্দাদের সবরকম সহযোগিতা করতে তিনি প্রস্তুত বলে আগেই জানিয়েছিলেন প্রসেনজিৎ।

আরও পড়ুন: রোজভ্যালি-কাণ্ডে ইডি দফতরে ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, জিজ্ঞাসাবাদ চলল ৭ ঘণ্টা​

আরও পড়ুন: রোজভ্যালি-কাণ্ডে অভিনেতা প্রসেনজিৎকে ডেকে পাঠাল ইডি​

এর আগে, বৃহস্পতিবার এই রোজভ্যালি কাণ্ডেই তলব করা হয়েছিল অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তকে। সাত ঘণ্টা ধরে তাঁকে জেরা করেন গোয়েন্দারা। আগামী কয়েকদিনের মধ্যে রোজভ্যালি এবং সারদা কাণ্ডে আরও পাঁচ-ছ’জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চলেছেন ইডি আধিকারিকরা।

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের YouTube Channel - এ।