• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

অশোকনগরে ওসি আক্রান্ত, ইসলামপুরে বাসে আগুন, নানা জেলায় অশান্তি

tamluk
তমলুক শহরে পথ অবরোধ বন্‌ধ সমর্থকদের। —নিজস্ব চিত্র।

রাজ্য জুড়ে বিজেপি-র ডাকা ১২ ঘণ্টার বন্‌ধের জেরে হাওড়া, মেদিনীপুর, কোচবিহার-সহ বিভিন্ন জেলায় বিক্ষিপ্ত অশান্তি দেখা গেল। বুধবার সকালে থেকেই রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বাস ভাঙচুর, পথ অবরোধ, রেল রোকো-সহ বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়ে বন্‌‌ধ সফল করার চেষ্টা করেন বিজেপি কর্মী-সমর্থকেরা। পাল্টা হিসাবে বন্‌ধের প্রতিরোধ করতে তৎপর রাজ্য প্রশাসন।

এ দিন সকাল থেকে বিক্ষিপ্ত হিংসার খবর মেলে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গা থেকে। এ দিন সকালে হাওড়া ময়দানের দু’টি সরকারি বাসে ভাঙচুর চালান বন্‌ধ সমর্থকরা। পাশাপাশি, মেদিনীপুরে একটি বাসে ভাঙচুরের পর আগুন লাগিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের বিরুদ্ধে।

এ ছাড়া, এ দিন সকালে কোচবিহারের তিনটি বাসে ভাঙচুর চালানোর ঘটনা ঘটেছে। বিক্ষিপ্ত হিংসার খবর পাওয়া গিয়েছে মেদিনীপুর, দুই ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলি থেকে।বিভিন্ন জেলায় রাস্তা অবরোধ করেন বিজেপি কর্মী সমর্থকেরা। পাশাপাশি ট্রেন অবরোধের খবর মিলেছে বিভিন্ন জেলা থেকে।
 

এক ঝলকে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বন্‌ধের চিত্র—

•  ইসলামপুরের সভায়  শুভেন্দুবাবু জানান, দাড়িভিটকাণ্ডে পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করা হবে। পাশাপাশি, গ্রামে গ্রামে, ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে প্রতিরোধ গড়ে তোলার জন্য সকলকে আহ্বান জানান তিনি।

• এ দিন বিকেলে ইসলামপুরে সভা করেন শুভেন্দু আধিকারী।

• বন্‌ধ প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, “বাংলার মানুষ বন্‌ধ প্রত্যাখ্যান করেছেন। বাস ভাঙচুর হচ্ছে। এটা জমিদারি নাকি! কাজ নেই। শুধু বন্‌ধ ডাকছে। বিজেপি-র দিন শেষ। সস্তার রাজনীতি করছে বিজেপি। আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বন্ধ্যাত্বক বন্‌ধ করতে দেব না।”

কাঁথিতে বন্‌ধ সমর্থকদের মিছিল। —নিজস্ব চিত্র।

• কাঁথি ৩ নম্বর ব্লকে মারিশদা থেকে দইসাই-এর দিকে বন্‌ধ সমর্থকদের মিছিল।

• উত্তর ২৪ পরগনার গুমায় পথ অবরোধ করেন বন্‌ধ সমর্থকেরা। সেই অবরোধ তুলতে গিয়ে লাঠি চালায় পুলিশ। পাল্টা হামলা করেন বিজেপি কর্মীরা। সংঘর্ষে জখম হন অশোকনগরের ওসি আশিস দলুই।

• শিলিগুড়ি জেলা বিজেপি-র সভাপতি এবং রাজ্য বিজেপি-র সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসুকে গ্রেফতার করল পুলিশ।

• শিলিগুড়ি থেকে ইসলামপুরে যাওয়ার দিকে চোপরার কাছে জাতীয় সড়ক অবরোধ করা রয়েছে।

শালবনিতে আহত বিজেপি এক সমর্থক। —নিজস্ব চিত্র।

• পশ্চিম মেদিনীপুরের শালবনি মণ্ডলের চুবকার খালশিউলিতে বিজেপি সমর্থকদের উপর টিএমসি-র হামলার অভিযোগ। গুরুতর আহত ১০ জন। আটটি বাইক ভাঙচুর।

১১.৪০: এই মুহূর্তে ইসলামপুরের আগুন অনেকাংশে নিয়ন্ত্রণে এসেছে বলে জানিয়েছে দমকল।

• আতঙ্কিত হয়ে ওই বাস থেকে নেমে দৌড়তে থাকেন বাসযাত্রীরা। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে দমকলের ২টি ইঞ্জিন।

• ইসলামপুরে বাসের তেলে ট্যাঙ্কে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। আগুন ধরানোর আগে বাস ভাঙচুর করা হয়। 

• ইসলামপুরে পুলিশের গাড়িতে হামলা। পুলিশের গাড়িতে ঢিল ছোড়া হয়।

• উত্তরবঙ্গ পরিবহণ নিগমের বাসের কাচের জানলা ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে পথ অবরোধ।

• তমলুক আদালত চত্বরে বন্‌ধের সমর্থনে স্লোগান দিতে থাকেন বিজেপি কর্মী-সমর্থকেরা। —নিজস্ব চিত্র।

• বীরভূমের কীর্ণাহারে জোর করে বন্ধ দোকান খুলে দেন তৃণমূল কর্মী-সমর্থকেরা

• ইসলামপুরে বাস ভাঙচুর বন্‌ধ সমর্থকদের। বাঁশ-লাঠি নিয়ে পথ অবরোধে সামিল মহিলারা।

তমলুক আদালত চত্বর। —নিজস্ব চিত্র।

• হাওড়ায় ২টি সরকারি বাসে ভাঙচুর।

• কোচবিহারে ৩টি সরকারি বাস ভাঙচুর।

• উত্তর ২৪ পরগনার দত্তপুকুর-টাকি রোডে বন্‌ধ সমর্থনকারী বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের সঙ্গে তৃণমূলের সংঘর্ষ।

• মেদিনীপুর শহরে বন্ধ কলেজের গেটে পড়ল বিজেপি-র পতাকা।

• দক্ষিণ ২৪ পরগনায় বেহুলা স্টেশনে রেল অবরোধ করে বিজেপি।

• শুভেন্দুবাবুর দাবি, “এ দিন সকাল থেকে রাজ্য জুড়ে সব মিলিয়ে প্রায় ৮টি সরকারি বাসে ভাঙচুর চালানো হয়েছে। এবং সব ক্ষেত্রেই দু’এক জন যুবক চলন্ত বাসে পাথর ছুড়ে, কাঁচ ভেঙে দিয়ে কাপুরুষের মতো পালিয়েছে।”

• পরিবহণমন্ত্রী জানিয়েছেন, এ দিন সকাল সাড়ে ৫টা থেকেই কলকাতার পরিবহণ দফতরের কন্ট্রোল রুমে বসে রাজ্যের যান চলাচলের পরিস্থিতির উপরে নিজে থেকে নজরদারি শুরু করেছেন। তাঁর দাবি, এ দিন সকালে স্কুলবাস, বেসরকারি বাস চলাচল স্বাভাবিক ভাবেই শুরু হয়েছে।

• শুভেন্দুবাবু জানিয়েছেন, আজ রাজ্যের সমস্ত সরকারি বাস ডিপো থেকেই বিপুল সংখ্যক বাস রাস্তায় নামে। তিনি জানিয়েছেন, স্টেট ট্রান্সপোর্টের ৪৫টি ডিপো, দক্ষিণবঙ্গ পরিবহণের ১৯টি ডিপো এবং ডব্লিউবিটিসি-র ১৫টি ডিপো থেকেই সরকারি বাস স্বাভাবিক ভাবে চলাচল করছে।

• বন্‌ধ সম্পূর্ণ ব্যর্থ বলে দাবি করলেন রাজ্যের পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। বেলা সাড়ে ৮টা নাগাদ কলকাতার ম্যাঙ্গো লেনে পরিবহণ দফতরের অফিসে তাঁর আরও দাবি, “রাজ্য জুড়েই সড়ক যোগাযোগ একেবারে স্বাভাবিক রয়েছে। কোথাও কোথাও ঝামেলা পাকাতে চাইলেও পুলিশের তৎপরতায় অবরোধ সফল হয়নি।”

নিউ জলপাইগুড়িতে সুনসান রাস্তাঘাট। —নিজস্ব চিত্র।

• শিলিগুড়ি সেবক রোডের কাছে এয়ার ভিউ মোড়ে অন্যান্য দিনের তুলনায় এ দিন বাসের সংখ্যা কম। এখনও লোকজন সে ভাবে পথে নামেননি। সরকারি বাস চলছে। এখনও দোকান খোলেনি। কোন গোলমালের খবর নেই। এখনও পর্যন্ত শিলিগুড়িতে জনজীবন স্বাভাবিক বলেই পুলিশ সূত্রে খবর।

• ইসলামপুরে বাস ভাঙচুর বন্‌ধ সমর্থনকারীদের। দূরপাল্লার বাস লক্ষ্য করে ইট ছোড়া হয় বলে অভিযোগ।

• হুগলির কোন্নগরে রেল অবরোধ বিজেপি-র। অবরোধের জেরে বিভিন্ন স্টেশনে আটকে পড়ে ট্রেন।

মধ্যমগ্রামে রেল অবরোধ। —নিজস্ব চিত্র।

• উত্তর ২৪ পরগনার মধ্যমগ্রামে দলীয় পতাকা হাতে বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের বন্‌ধ পালন। রেল অবরোধ করেন তাঁরা।

বন্‌ধ উপেক্ষাকারীদের স্বাগত জানাচ্ছে যুব তৃণমূলের কর্মী-সমর্থকেরা।—নিজস্ব চিত্র।

• হুগলির উত্তরপাড়ায় গোলাপ ফুল ও মিষ্টি বিতরণ করল তৃণমূল যুব কংগ্রেস। বন্‌ধ উপেক্ষা করে পথে নামায় সাধারণ মানুষ থেকে গাড়ির চালকদের অভিনন্দন জানাল তৃণমূল। বন্‌ধকে উপেক্ষা করে যাঁরা রাস্তায় বেরিয়েছেন সেই সমস্ত গাড়ি চালক-দোকানদার থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ— সকলকে গোলাপ ফুল ও মিষ্টি বিলি করল উত্তরপাড়া তৃণমূল যুব কংগ্রেস। উত্তরপাড়া যুব তৃণমূলের নেতা সন্দীপ দাসের নেতৃত্বে যুব কর্মীরা পথচলতি মানুষ ও বাস-অটো-টোটোচালকদের মিষ্টিমুখ করান এবং তাঁদের হাতে গোলাপ ফুল তুলে দেয়।

দেখুন ভিডিয়ো

• অন্যান্য দিনের মতো স্বাভাবিক দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চল।

• দত্তপুকুরে বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষ।

• আদ্রায় বিজেপি কার্যালয়ে ভাঙচুর।

সকাল ৭.৪৫ পূর্ব মেদিনীপুরের মেচেদায় তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষ।

সকাল ৭.৩০ জলপাইগুড়ির ধূপগুড়িতে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের সঙ্গে পুলিশের ধস্তাধস্তি।

সকাল ৬.৩০ মেদিনীপুরের সরকারি বাসে ভাঙচুর চলল।
সকাল ৬.২৫ কোচবিহারেও বাস ভাঙচুর।
সকাল ৬.৩০ হাওড়া ময়দানের কাছে সরকারি বাসে ভাঙচুর।

মধ্যমগ্রামে হেলমেট মাথায় বাস চালাচ্ছেন ড্রাইভার।

রাজ্য জুড়ে আজ ১২ ঘণ্টার বন্‌ধের ডাক দিয়েছে বিজেপি। উত্তর দিনাজপুরের ইসলামপুর ব্লকে গত ২০ সেপ্টেম্বর গুলিবিদ্ধ হয়ে দুই ছাত্রের মৃত্যুর প্রেক্ষিতেই এই বন্‌ধের ডাক দেওয়া হয়েছে। রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল এবং রাজ্য সরকার যথারীতি বন্‌ধ বিরোধিতার ডাক দিয়েছে। নবান্ন জানিয়ে দিয়েছে, সব সরকারি অফিস-কাছারি বুধবার খোলা থাকবে। স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ও খোলা থাকবে। প্রত্যেক সরকারি কর্মীকে কর্মস্থলে হাজির হতেই হবে, সে কথাও সাফ জানিয়ে দিয়েছে সরকার।

বন্‌ধ সফল করতে বিজেপি বদ্ধপরিকর। ইসলামপুরের দাড়িভিটে যে ঘটনা গত বৃহস্পতিবার ঘটেছে, সেই ঘটনার কথা বার বার তুলে ধরে তৃণমূলের বিরুদ্ধে হাওয়া তুলতে চাইছেন দিলীপ ঘোষরা। সেই লক্ষ্যেই এই বন্‌ধ ডাকা, বলছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

অন্যান্য দিনের তুলনায় এদিন গাড়ির সংখ্যা কম। শিলিগুড়ি সেবক রোড এর কাছে এয়ার ভিউ মোড়ের ছবি। 

তৃণমূল বাংলার ক্ষমতায় আসার পর থেকে বন্‌ধ-অবরোধের রাজনীতির বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থা নিয়েছে সরকার। কোনও দল বন্‌ধ ডাকলেই সরকার তা ব্যর্থ করতে প্রায় সর্বশক্তি প্রয়োগ করে। এ পর্যন্ত প্রায় সব বন্‌ধই মোটের উপর ব্যর্থ করে দিতে পেরেছে তৃণমূলের সরকার। আজ তাই বিজেপি একটু অন্য রকম করে দিতে চাইছে ছবিটা। এই বন্‌ধে যদি অন্য বন্‌ধগুলির চেয়ে বেশি সাড়া পড়ে, তা হলে বিজেপির শক্তিপ্রদর্শনের চেষ্টা কিছুটা সফল হবে।

আরও পড়ুন: কলকাতায় একের পর এক মিছিলের পরিকল্পনা বিজেপির, পাল্টা পথে মদন-শোভনদেব

রাজ্য সরকার তথা শাসক দলের জন্যও তাই চ্যালেঞ্জটা আজ অপেক্ষাকৃত কঠিন। বিজেপির এই বন্‌ধকে গত সাত বছরের অন্য যে কোনও বন্‌ধের মতো নির্বিষ করে দিতে না পারলে রাজনৈতিক ভাবে কিছুটা অস্বস্তিতে পড়তে হবে। তাই পুলিশ-প্রশাসনকে সব রকম ভাবে সক্রিয় রাখার পাশাপাশি আজ সকাল থেকে তৃণমূল নেতা-কর্মীরাও রাস্তায় নেমে বন্‌ধের বিরোধিতা করবেন।

(দুই চব্বিশ পরগনা, হাওড়া ও হুগলি, নদিয়া-মুর্শিদাবাদ, সহ দক্ষিণবঙ্গের খবর, পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলা খবর, বাংলার বিভিন্ন প্রান্তের খবর পেয়ে জান আমাদের রাজ্য বিভাগে।)

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন