• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

রাজ্যে ফের দৈনিক সংক্রমণ ৪ হাজার পেরোল, মৃত ৬৪

gfx
গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

আগের সব পরিসংখ্যানকে ছাপিয়ে গেল রাজ্যে করোনার দৈনিক সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা। আর এটাই উদ্বেগ বাড়িয়েছে রাজ্য প্রশাসনের। বুধবার স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায়  করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪ হাজার ৬৯ জন। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৩ লক্ষ ৩৩ হাজার ১২৬। মঙ্গলবারও দৈনিক সংক্রমণ চার হাজারের গণ্ডি পেরিয়েছিল। ওই দিন নতুন করে সংক্রমিত হয়েছিলেন ৪ হাজার ২৯ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৬৪ জনের। যা দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যায় রেকর্ড। এর ফলে রাজ্যে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ২৪৪।  মৃতের সংখ্যার দিক থেকে রাজ্যে প্রথম স্থানেই রয়েছে কলকাতা, তার পরেই উত্তর ২৪ পরগনা। স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, কলকাতায় গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ১৯ জনের। উত্তর ২৪ পরগনাতেও কোভিডে মারা গিয়েছেন ১৯ জন।

এ দিনের বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যের মধ্যে সবচেয়ে বেশি মানুষ নতুন করে কোভিড সংক্রমিত হয়েছেন কলকাতায় ৮৭৯ জন। দৈনিক সংক্রমণের নিরিখে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা, ৮৭২ জন। হাওড়া এবং হুগলির দৈনিক সংক্রমণও দুশোর কোটা ছাড়িয়েছে।

 

২৪ ঘণ্টায় যত জনের কোভিড টেস্ট করা হয় এবং তার মধ্যে প্রতি ১০০ জনে যত জনের কোভিড রিপোর্ট পজিটিভ আসে, তাকে ‘পজিটিভিটি রেট’ বা সংক্রমণের হার বলা হয়। অক্টোবরের শুরু দিকে পজিটিভিটি রেট বা সংক্রমণের হার অনেকটাই কম ছিল। কিন্তু পরের দিকে সেই হার উদ্বেগজনক ভাবে বাড়তে শুরু করে। সংক্রমণের হারের গ্রাফটা কখনও নিম্নমুখী হয়েছে তো, কখনও ফের ঊর্ধমুখী। ওঠানামার পালা চলছিলই। গত দু’দিন ধরে সংক্রমণের হার রয়েছে ৯ শতাংশের উপরে। মঙ্গলবার যেমন এই হার ছিল ৯.২১ শতাংশ। এ দিন তা বেড়ে হয়েছে ৯.৩৩ শতাংশ। স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ৪৩ হাজার ৫৯২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

 

সংক্রমণ এবং মৃত্যুর পাশাপাশি, আশঙ্কা তৈরি হয়েছে সুস্থতার হার নিয়েও। এত দিন সংক্রমণ বাড়লেও সুস্থতার হার অনেকটা স্বস্তিতে রেখেছিল রাজ্য প্রশাসনকে। কিন্তু সেটাই এখন উদ্বেগের অন্যতম কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে। মঙ্গলবার সুস্থতার হার ছিল ৮৭.৪৩ শতাংশ। এ দিন সেই হার সামান্য বেড়ে হয়েছে ৮৭.৪৫ শতাংশ।

স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে ছাড়া পেয়েছেন ৩ হাজার ৫৯৬ জন। এই নিয়ে রাজ্যে মোট সুস্থ কোভিড রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ২ লক্ষ ৯১ হাজার ৩০৩। এ দিন পর্যন্ত রাজ্যে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা ৩৫ হাজার ৫৭৯ জন।

 

(জরুরি ঘোষণা: কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের জন্য কয়েকটি বিশেষ হেল্পলাইন চালু করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। এই হেল্পলাইন নম্বরগুলিতে ফোন করলে অ্যাম্বুল্যান্স বা টেলিমেডিসিন সংক্রান্ত পরিষেবা নিয়ে সহায়তা মিলবে। পাশাপাশি থাকছে একটি সার্বিক হেল্পলাইন নম্বরও।

• সার্বিক হেল্পলাইন নম্বর: ১৮০০ ৩১৩ ৪৪৪ ২২২
• টেলিমেডিসিন সংক্রান্ত হেল্পলাইন নম্বর: ০৩৩-২৩৫৭৬০০১
• কোভিড-১৯ আক্রান্তদের অ্যাম্বুল্যান্স পরিষেবা সংক্রান্ত হেল্পলাইন নম্বর: ০৩৩-৪০৯০২৯২৯)

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন