কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে নালিশও শুনবে কমিশন
জাতীয় নির্বাচন কমিশনের আশ্বাস, অন্যান্য অভিযোগের মতোই কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে অভিযোগও গুরুত্ব দিয়ে দেখবে তারা।
Ec

প্রতীকী ছবি।

ভোটের প্রায় দু’মাস আগে কেন্দ্রীয় বাহিনীর দাপাদাপি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে তৃণমূল। রবিবার বাহিনীর ‘অতিসক্রিয়তা’ নিয়ে সরব হয়েছেন দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও অন্যতম সাধারণ সম্পাদক ফিরহাদ হাকিম। জাতীয় নির্বাচন কমিশনের আশ্বাস, অন্যান্য অভিযোগের মতোই কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে অভিযোগও গুরুত্ব দিয়ে দেখবে তারা। 

কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে পার্থবাবুর অভিযোগের পাশাপাশি ফিরহাদ রবিবারেই বলেছিলেন, ভোটারদের ভয় দেখিয়ে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছে আধাসেনা। সেই লক্ষ্যেই বাড়ি বাড়ি গিয়ে মানুষের সঙ্গে কথা বলছে তারা। আধাসেনার দাপটের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ জানানো হবে।

সোমবার কমিশনের সাংবাদিক বৈঠকে বাহিনীর বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে প্রশ্নের উত্তরে অতিরিক্ত মুখ্য নির্বাচনী অফিসার সঞ্জয় বসু জানান, গুরুত্ব দিয়েই এই সব অভিযোগ খতিয়ে দেখা হবে। তিনি বলেন, ‘‘শুনেছি, অভিযোগ হয়েছে। প্রতিটি অভিযোগকেই গুরুত্ব দিয়ে দেখা হয়। এটিকেও সে-ভাবেই দেখা হবে। মানুষের সঙ্গে কথা বলতে তো কোনও নিষেধাজ্ঞা কোথাও নেই। তবে তাঁরা (কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানেরা) কী কথা বলেছেন, তা আমরা জানি না।’’

দিল্লি দখলের লড়াইলোকসভা নির্বাচন ২০১৯ 

এ দিন বাহিনীর বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন বীরভূম জেলা তৃণমূলের সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলও। কেন্দ্রীয় বাহিনীকে সম্বোধন করে তিনি বলেন, ‘‘সেন্ট্রাল ফোর্স, তোমরা অন্যায় করছ। নির্বাচন করাতে এসেছ। মোদীবাবুর চামচাগিরি করবে না। আমরা জানি, কেন্দ্রীয় বাহিনী নোংরামি করতে পারে। ভয়ের কারণ নেই। আইনত মোকাবিলা করবো।’’

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত