• বরুণ দে
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

পরিযায়ীদের ফেরাতে ভিন্ রাজ্য পিছু নোডাল অফিসার

Workers
ছবি এএফপি।

ভিন্ রাজ্যে আটকে থাকা পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরানোর বিষয়টি দেখার জন্য আগেই রাজ্যের নোডাল অফিসার হিসেবে পি বি সেলিমকে নিয়োগ করা হয়েছে। এ বার ভিন্ রাজ্য পিছুও নোডাল অফিসার নিয়োগ করা হয়েছে বলে নবান্ন সূত্রে খবর। ওই সূত্রে খবর, ২৭টি রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের জন্য ১৩ জন আমলাকে নোডাল অফিসার হিসেবে নিয়োগ করা হয়েছে। এক- একজনের দায়িত্বে এক বা একাধিক রাজ্য-কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল রয়েছে।

বাংলার বহু মানুষ এখনও ভিন্ রাজ্যে আটকে রয়েছেন। তাঁদের ঘরে ফেরাতে তৎপর হয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। ভিন্ রাজ্যে আটকে থাকা বিপুল সংখ্যক মানুষ ঘরে ফেরার তাগিদে সংশ্লিষ্ট রাজ্যের প্রশাসনের কাছে নাম লেখাচ্ছেন। নবান্নের এক সূত্র মনে করিয়ে দিচ্ছে, ১০৫টি ট্রেনে করে ১৬টি রাজ্য থেকে আটকে পড়া মানুষ এবং পরিযায়ী শ্রমিকদের আনার পরিকল্পনা আগেই করেছে রাজ্য সরকার। এ বার আরও ১২০টি ট্রেনের পরিকল্পনা করা হচ্ছে। সবমিলিয়ে প্রায় ২৩৫টি ট্রেনে বাইরের রাজ্য থেকে আটকে থাকা যে মানুষেরা আসবেন, তার সব খরচই বহন করবে রাজ্য সরকার।

ভিন্ রাজ্য পিছু যাঁদের নোডাল অফিসার হিসেবে নিয়োগ করা হয়েছে, তাঁদের বেশিরভাগই অতিরিক্ত মুখ্যসচিব এবং প্রধান সচিব পদমর্যাদার আমলা। ওই সূত্রে খবর, অন্ধ্রপ্রদেশ, তেলঙ্গানা, কর্ণাটকের ক্ষেত্রে নোডাল অফিসার করা হয়েছে অতিরিক্ত মুখ্যসচিব এম ভি রাওকে। অসম, মেঘালয়, নাগাল্যান্ড, মণিপুর, ত্রিপুরা, মিজোরাম, অরুণাচলপ্রদেশ, সিকিমের ক্ষেত্রে প্রধান সচিব এ আর বর্ধনকে। মহারাষ্ট্রের ক্ষেত্রে প্রধান সচিব সঞ্জয় কৃষ্ণরাও থাডেকে। হিমাচলপ্রদেশ, উত্তরাখণ্ডের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত মুখ্যসচিব হৃদেশ মোহনকে। তামিলনাড়ু, মধ্যপ্রদেশ, জন্মু ও কাশ্মীরের ক্ষেত্রে প্রধান সচিব অর্ণব রায়কে। উত্তরপ্রদেশের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত মুখ্যসচিব নবীন প্রকাশকে। অন্যদিকে, বিহারের ক্ষেত্রে প্রধান সচিব প্রভাতকুমার মিশ্রকে। রাজস্থানের ক্ষেত্রে প্রধান সচিব দুষ্মন্ত নারিয়ালাকে। গুজরাত, কেরলের ক্ষেত্রে প্রধান সচিব মণীশ জৈনকে। দিল্লি, হরিয়ানার ক্ষেত্রে অতিরিক্ত মুখ্যসচিব সুনীল গুপ্তকে। ওড়িশার ক্ষেত্রে রাজেশকুমার সিংহকে। ঝাড়খণ্ডের ক্ষেত্রে শান্তনু বসুকে। পঞ্জাবের ক্ষেত্রে অভনীন্দ্র সিংহকে। শান্তনুরা আইএএস পদমর্যাদার আমলা। প্রত্যেক নোডাল অফিসারেরই পৃথক কন্ট্রোল রুম রয়েছে।

বাংলায় ভিন্ রাজ্যের আটকে থাকা মানুষের জন্য রাজ্য তার দায়িত্ব পালন করছে। কিন্তু বহু রাজ্যই তা করছে না বলে ইতিমধ্যে অভিযোগ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নবান্নের এক সূত্র মনে করিয়ে দিচ্ছে, পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরানো নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার সবুজ সঙ্কেত দেওয়ার পরই টাস্ক ফোর্স তৈরি করেছে রাজ্য সরকার। রাজ্য প্রশাসনের এক শীর্ষ আধিকারিকের দাবি, ‘‘ভিন্ রাজ্যে আটকে থাকা মানুষদের দ্রুত ঘরে ফেরানোর সব রকম চেষ্টা চলছে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন