• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

পাঁচ কেজির দাম সওয়া কোটি টাকারও বেশি! আলিপুরদুয়ারে উদ্ধার বিরল কিরাজারি

Forest Department
বিরল ছত্রাক পাচার করতে গিয়ে এসএসবি-র হাতে ধৃত ভূটানের তিন নাগরিক এবং উদ্ধার হওয়া কিরাজারি। ছবি সৌজন্য: এসএসবি

Advertisement

পাচার হওয়ার পথে পাঁচ কেজি দুর্মূল্য ভেষজ কিরাজারি উদ্ধার করল সীমা সুরক্ষা বল (এসএসবি)। উদ্ধার হওয়া ওই ভেষজের দাম কমপক্ষে ১ কোটি টাকা বলে জানিয়েছেন বন দফতরের কর্তারা। সোনার থেকেও মূল্যবান এই বিরল ভেষজ আলিপুরদুয়ারে জয়গাঁর ভুটান সীমান্ত দিয়ে পাচার হওয়ার আগেই ধরা পড়ে এসএসবি-র হাতে। নিষিদ্ধ ওই ভেষজ পাচারের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে ভুটানের তিন নাগরিককে। তদন্তকারীরা নিশ্চিত, এর পিছনে রয়েছে শক্তিশালী আন্তর্জাতিক চক্র।

এসএসবি-র ৫৩ ব্যাটালিয়নের কমান্ডান্ট অরবিন্দ কুমার মঙ্গলবার বলেন, ‘‘সূত্র মারফৎ আমরা ভূটানের একটি ল্যান্ডরোভার গাড়ির হদিশ পাই। জানতে পারি, ওই গাড়িতে নিষিদ্ধ কোনও জিনিস জয়গাঁতে আনা হবে পাচারের জন্য।” সেই সূত্র ধরেই এসএসবি-র জওয়ানরা সোমবার সন্ধ্যায় ওই গাড়িটি আটকান। তল্লাশির সময় পাওয়া যায় পাঁচ কিলোগ্রাম বিরল ভেষজ কিরাজারি। তদন্তে জানা গিয়েছে, ধৃত তিনজনই ভুটানের রাজধানী থিম্পুর বাসিন্দা।

উদ্ধার হওয়া ওই ভেষজ হ্যামিল্টনগঞ্জে বনদফতরের হাতে তুলে দিয়েছে এসএসবি। বনদফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, কিরাজারি হল অদ্ভুত ধরনের ছত্রাক যা, বিশেষ এক ধরনের শুঁয়োপোকার দেহের উপর জন্মায়। হিমালয়ের ১০ হাজার ফুটের উপরে কিছু নির্দিষ্ট এলাকায় পাথরের ফাঁকে পাওয়া যায় ওই বিশেষ প্রজাতির শুঁয়োপোকা। তাদের গায়েই তৈরি হয় ওই ছত্রাক। ধীরে ধীরে ওই ছত্রাক শুঁয়োপোকাটিকে মেরে ফেলে তার দেহের উপর বেড়ে উঠতে শুরু করে। ওই ছত্রাক এবং পোকার ‘মমিকৃত’ দেহই হল কিরাজারি। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ওই ছত্রাকের ভেষজ গুণ স্বীকৃত।

ভারতে উত্তরাখণ্ড, হিমাচলপ্রদেশ এবং অরুণাচল প্রদেশে হিমালয়ের উঁচু, দুর্গম অংশে এ ধরনের ছত্রাক পাওয়া যায়। তিব্বতে ওই ছত্রাক ইয়ার্সা গুম্বা নামে পরিচিত। ভারত, চিন এবং দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার বিভিন্ন দেশে ওই ছত্রাকের ভেষজ গুণের কথা সর্বজনবিদিত। মানুষের যৌন ক্ষমতা বৃদ্ধি করা, যৌবন ধরে রাখতে এবং ক্যানসার-কুষ্ঠের মতো রোগ সারাতেও নাকি ওই ভেষজের জুড়ি মেলা ভার। তাই আন্তর্জাতিক বাজারে ওই ভেষজ বা ছত্রাক সোনার চেয়েও কয়েকগুণ বেশি দামে বিক্রি হয়। কেন্দ্রীয় বন্যপ্রাণ অপরাধ দমন শাখার এক আধিকারিক বলেন, ‘‘কালো বাজারে এর দাম কেজি প্রতি প্রায় ২৫ লাখ টাকা!” ওই আধিকারিক আরও বলেন, ‘‘এক দিকে আন্তর্জাতিক বাজারে বিপুল চাহিদা, অন্যদিকে এর দুষ্প্রাপ্যতা—দুইয়ের কারণে এর দাম এত বেশি।’’

আরও পড়ুন: ডেবিট কার্ড তুলে দিচ্ছে এসবিআই! চেয়ারম্যানের ঘোষণায় তোলপাড়, নগদ মিলবে কোথায়? দুশ্চিন্তায় গ্রাহক

আরও পডু়ন: সাড়ে তিনশো কোটির ব্যাঙ্ক ঋণ দুর্নীতির অভিযোগ, গ্রেফতার কমল নাথের ভাইপো

বনদফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃত ছোটেন নামগ্যেল, দোরজি কিয়াং এবং কুম্বু দোরজিকে জেরা করে জানা গিয়েছে, তাঁরা বিভিন্ন প্রত্যন্ত গ্রামের লোককে কিরাজারি সংগ্রহ করার বরাত দিতেন। এক একটি কিরাজারি পিছু দেওয়া হত ২০০ টাকা। এক একজন প্রায় দু’সপ্তাহ ১০ হাজার ফুটের উপর উচ্চতায় কাটিয়ে নিয়ে আসতে পারেন ৭০টির মতো কিরাজারি। গ্রাম থেকে ওই কিরাজারি সংগ্রহ করে দালালরা। তারপর তা আসত এঁদের কাছে। জানা গিয়েছে, ধৃতদের শিলিগুড়িতে এক ব্যবসায়ীর কাছে ওই পাঁচ কেজি কিরাজারি পৌঁছে দেওয়ার কথা ছিল। শিলিগুড়ির ওই ব্যবসায়ীকে চিহ্নিত করার চেষ্টা করছেবনদফতর।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন