বর্ধমানের খাগড়াগড় বিস্ফোরণ কাণ্ডের ফেরার দুই অভিযুক্তকে হুগলির আরামবাগের একটি গ্রাম থেকে পাকড়াও করল জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা (এনআইএ)

এনআইএ সূত্রের খবর, ধৃত জামাতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশ(জেএমবি)-এরশীর্ষ নেতা কওসরকে জেরা করেই হদিশ মেলে খাগড়াগড় কাণ্ডে ফেরার দুই অভিযুক্ত কদল কাজি এবং হাবিবুর ওরফে সাজ্জাদের।

সোমবার গভীর রাতে এনআইএ-র দু’টি আলাদা দল আরামবাগে ফেরার জঙ্গিদের ডেরাতে হানা দেয়। সেখানে রাজমিস্ত্রির কাজ করছিলেন এই দু’জন। বেশ কয়েক মাস ধরে রাজমিস্ত্রির পরিচয়েই গা ঢাকা দিয়েছিল দু’জন, এমনটাই জানতে পেরেছেন এনআইএ আধিকারিকরা।

আরও পড়ুন: ‘মেধা-তালিকা না হলে জেলে পাঠানো হবে সচিবকে’, এসএসসি মামলায় হুঁশিয়ারি হাইকোর্টের

কদর বীরভূমের কীর্ণাহারের বাসিন্দা এবং কওসরের অন্যন্ত ঘনিষ্ঠ ছিল বলে দাবি গোয়েন্দাদের। জেএমবি-র খাগড়াগড় মডিউলের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিল সে। ২০১৪ সালে খাগড়গড় বিস্ফোরণের পর থেকেই ফেরার ছিল সে। বীরভূমে জেএমবি-র মডিউলের দায়িত্বে থাকা কদর সংগঠনের তহবিল তৈরি করা থেকে শুরু করে প্রশিক্ষণের বন্দোবস্তও করেছে বলে জানতে পেরেছেন গোয়েন্দারা।

আরও পড়ুন: উদ্বাস্তু কলোনিতে জমির মালিকানা দেবেন মুখ্যমন্ত্রী

অন্যদিকে হাবিবুর ওরফে সাজ্জাদও ওই মডিউলেরই গুরুত্বপূর্ণ সদস্য। এনআইএ গোয়েন্দারা জানিয়েছেন, মঙ্গলবার দু’জনকেই কলকাতার বিশেষ এনআইএ আদালতে পেশ করা হবে।