• মধুমিতা দত্ত
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মূল্যায়ন এ বার পার্শ্ব শিক্ষকদেরও

partha
পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

কিছু দিন আগে কলকাতায় প্রাথমিক শিক্ষকদের এক সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন, রাজ্যে স্কুলছুট কমেছে ঠিকই। তবে তা পুরোপুরি নির্মূল করতে শিক্ষক-শিক্ষিকাদেরই উদ্যোগী হতে হবে।

স্কুলছুট কমাতে পার্শ্ব শিক্ষকদের কাজে লাগানো হয়। স্কুলছুট কমাতে তাঁরা কতটা কার্যকর ভূমিকা নিচ্ছেন, এ বার তা খতিয়ে দেখা হবে। তৈরি হবে মূল্যায়ন রিপোর্ট।

সম্প্রতি রাজ্য সমগ্র শিক্ষা অভিযানের প্রজেক্ট ডিরেক্টর আর বিমলা স্কুলগুলিকে এই মর্মে নির্দেশ পাঠিয়েছেন। পার্শ্ব শিক্ষকদের এই মূল্যায়ন হবে তিন মাস অন্তর। রাজ্যে এই মুহূর্তে প্রায় ৫৩ হাজার পার্শ্ব শিক্ষক রয়েছেন। তাঁদের কাজের মধ্যে রয়েছে স্কুলছুট পড়ুয়া শনাক্ত করা এবং তাদের স্কুলে ফিরিয়ে আনা।

রাজ্য সর্বশিক্ষা মিশনের ২০১৬-’১৭ সালের রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে, চলতি শিক্ষাবর্ষে রাজ্যে ১১,৬৪০ স্কুলছুটকে স্কুলে ফেরানোর লক্ষ্যমাত্রা স্থির করা হয়েছিল। ওই রিপোর্টে বলা হয়েছে, অভিভাবকহীন শিশু, যৌন কর্মীদের সন্তান, উদ্বাস্তু শিশু ও পথশিশুদের মধ্যে স্কুলছুটের সমস্যা খুবই বেশি। এড্‌স, কুষ্ঠ আক্রান্ত শিশুদের ক্ষেত্রে বিষয়টি আরও জটিল। সমাজের বিভিন্ন প্রান্তে থাকা স্কুলছুটদের চিহ্নিত করে 

ফেরানোর কাজই করেন পার্শ্ব শিক্ষকেরা। এ বার প্রধান শিক্ষকের কাছে নির্দিষ্ট ছকে পারফরম্যান্স রিপোর্ট জমা দিতে হবে তাঁদের। প্রধান শিক্ষক তা পাঠিয়ে দেবেন ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে।

রাজ্য প্যারা টিচার কল্যাণ সমিতির সম্পাদক অভিজিৎ ভৌমিক এ দিন বলেন, ‘‘এ ভাবে প্যারা টিচারদের উপরে নজরদারি করাটা খুব কাজের কথা নয়। আগে দেখা দরকার, আসল কাজটা ঠিকঠাক হচ্ছে কি না। স্কুলছুটদের স্কুলে ফেরানোর দায়িত্ব সব শিক্ষক-শিক্ষিকারই।’’

এই ধরনের মূল্যায়নের উদ্যোগকে খুব ভাল চোখে দেখছে না শিক্ষক শিবিরের একাংশও। বঙ্গীয় শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মী সমিতির নেতা স্বপন মণ্ডল বুধবার বলেন, ‘‘অন্যান্য রাজ্যের তুলনায় পশ্চিমবঙ্গের পার্শ্ব শিক্ষকেরা খুবই কম বেতন পান। তার মধ্যেই এ ভাবে তাঁদের উপরে চাপ বাড়ানো হচ্ছে।’’ কয়েক মাস আগে প্রাথমিক স্তরের পার্শ্ব শিক্ষকদের বেতন ৫৯৫৪ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১০ হাজার টাকা করা হয়েছে। উচ্চ প্রাথমিক স্তরের পার্শ্ব শিক্ষকদের বেতন ৮১৮৬ টাকা থেকে বেড়ে হয়েছে ১৩ হাজার।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন