Advertisement
২৮ জানুয়ারি ২০২৩
Indian Railways

ট্রেনের চাদর-কম্বলে নোংরা, গন্ধ! কী করবেন? রেল জানিয়ে দিল যাত্রীদের কর্তব্য

রেলের পক্ষে যাত্রীদের দেওয়া বিছানা নোংরা থাকা অভিযোগ নতুন কিছু নয়। সম্প্রতি এমনই অভিযোগ পেয়ে দ্রুত নিজেদের সিদ্ধান্ত জানিয়েছে রেল।

Indian Railways

ট্রেনে বিছানা দেওয়ার পুরনো নিয়ম ফিরতেই ফিরেছে পুরনো অভিযোগ। — প্রতীকী চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ ১৫:০৩
Share: Save:

করোনাকালে ট্রেনে কম্বল, চাদর দেওয়া বন্ধ ছিল। কারণ, রেলের পক্ষেই অতীতে জানানো হয় যে, চাদর নিয়মিত পরিষ্কার করা হলেও বালিশ ও কম্বল বেশ কয়েক জন যাত্রী ব্যবহার করার পরে পরিষ্কার করা হয়। এর পরে কিছু দিন যাত্রীদের জন্য বালিশ, চাদর বিক্রির ব্যবস্থাও করে রেল। তবে এখন ধীরে ধীরে সব দূরপাল্লার ট্রেনেই ফিরে আসছে পুরনো ব্যবস্থা। আবার আগের মতো চাদর, কম্বল, বালিশ, তোয়ালে দেওয়া শুরু হয়েছে।

Advertisement

পুরনো পদ্ধতি শুরু হতেই পুরনো অভিযোগ উঠতে শুরু করেছে নতুন করে। রেলের পক্ষে যাত্রীদের দেওয়া বিছানা নোংরা থাকা অভিযোগ নতুন কিছু নয়। সম্প্রতি এমনই অভিযোগ পেয়ে দ্রুত নিজেদের সিদ্ধান্ত জানিয়েছে রেল। কোনও যাত্রী যদি বিছানা নিয়ে অভিযোগ জানাতে চান, তবে তিনি কী করবেন সেটাই জানিয়ে দিয়েছে রেল।

সম্প্রতি এক যাত্রী রেলমন্ত্রীকে ট্যাগ করে একটি টুইট করেন। তাতে লেখেন বিছানার চাদর এবং বালিশ খুবই নোংরা। পরিষ্কার না করেই সেগুলি কাগজের প্যাকেটে করে দিয়ে দেওয়া হয়েছে। চাদর ও বালিশের খোলে চুল লেগে থাকায় স্পষ্ট যে পরিষ্কার না করেই দেওয়া হয়েছে। বেশি পয়সার টিকিটে এমন পরিষেবা কেন দেওয়া হবে তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি।

এর পরেই রেল জবাব দিয়েছে। টুইট করেই জানিয়ে দিয়েছে এমন পরিস্থিতি হলে যাত্রীদের কী ভাবে অভিযোগ জানাতে হবে, কোথায় জানাতে হবে। রেল জানিয়েছে, পিএনআর এবং মোবাইল নম্বর উল্লেখ করে সংশ্লিষ্ট এলাকার রেলের ডিভিশনাল ম্যানেজারের কাছে অভিযোগ জানানো যাবে। সরাসরি রেলের ওয়েবসাইটে (railmadad.indianrailways.gov.in) গিয়ে অভিযোগ জানানো যাবে। কিন্তু যাত্রীরা সঙ্গে সঙ্গে কী করবেন? সেটাও জানিয়েছে রেল। বলা হয়েছে ফোনে ১৩৯ ডায়াল করে অভিযোগ জানানো যাবে। সেটা করলে সঙ্গে সঙ্গে দ্রুত ব্যবস্থা নেবে রেল।

Advertisement

তবে এই টুইট করেও যে রেল স্বস্তি পেয়েছে তাই নয়। প্রথম অভিযোগকারীর টুইটের অনুসরণে আরও অনেকে রেলের পরিষেবা নিয়ে নানা প্রশ্ন তুলেছেন। বিভিন্ন অভিযোগও করেছেন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.