গরমের ছুটি শেষ। ফের শুরু রোজকার ১০টা-৫টা'র জীবন। তবে ঘুরতে যাওয়ার সময় কিন্তু এখনও শেষ হয়নি। এই বছরের গরমের ছুটিতে আপনার ঘুরতে যাওয়াটা যদি কোনওমতে না হয়ে থাকে, তবে এটাই সুযোগ। এই সপ্তাহের শেষে আপনি পাচ্ছেন আরও একটা লম্বা ছুটি। শনি-রবি উইকেন্ডের পরে সোমবার ঈদের ছুটি। আর এই ছুটিতেই আপনি ঘুরে আসতে পারেন আপনার পছন্দসই জায়গা থেকে।

এবার কথাটা হল এইরকম একটা লম্বা উইকেন্ডে কোথায় যাওয়া যায়? এমনিতেই রমজানের মাস। অতএব দিল্লি কিংবা হায়দরাবাদ হল এই সময়ের সেরা গন্তব্য।


Source: www.myunfinishedlife.com

রমজানের সময়ে ওল্ড দিল্লি কিংবা হায়দরাবাদের চারমিনার ও নিজাম প্যালেস সংলগ্ন এলাকায় এক আলাদা অভিজ্ঞতার সাক্ষী থাকতে পারবেন আপনি। এই সময়টাতে সম্পূর্ণ অন্যভাবে সেজে ওঠে এই এলাকাগুলি। ভোরের আজান থেকে সূর্যাস্তের নামাজ পাঠ, সবমিলিয়ে আপনাকে এক অন্য জগতে নিয়ে যাবে রাজধানী কিংবা নিজামের শহর।


Source: www.nriol.com

শুধু তাই নয়, এই সময়টাতে দিল্লি বা হায়দরাবাদে হরেক কিসিমের খাবারের স্বাদও পাবেন আপনি। অন্য সময়ের তুলনায় একটু বেশিই বৈকি! বিরিয়ানি আর কাবাব তো পাবেনই, সঙ্গে পাবেন আপনার জিভে জল আনা আরও অনেক আইটেম। যার লিস্ট দিতে গেলে, শেষ করা যাবে না।


Source: www.thebetterindia.com

এ তো গেল শুধু রমজানের কথা। তবে দিল্লি আসবেন আর ঘুরে বেড়াবেন না, তা কি কখনও হয়? দিল্লিতে এলে আপনি ঘুরে যেতে পারেন  লাল কেল্লা, কুতুব মিনার, ইন্ডিয়া গেট, অক্ষরধাম, রাষ্ট্রপতি ভবন সহ আরও অনেক কিছু। দিল্লির চাঁদনি চক থেকে আপনি কেনা-কাটাও করতে পারবেন। আর হায়দরাবাদ গেলে আপনি দেখে আসতে পারেন গোলকুন্ডা ফোর্ট, চারমিনার, নিজাম প্যালেস, বিড়লা মন্দির, রামোজি ফিল্ম সিটি ইত্যাদি।

দিল্লি বা হায়দরাবাদ যদি আপনার আগে থেকে ঘোরা হয়ে থাকে, তাহলে আপনি চলে যেতে পারেন পুণে কিংবা বেঙ্গালুরু। রোজকার সমস্ত ব্যস্ততা ভুলে গিয়ে আপনি যদি একটু শান্তি খোঁজেন, তবে এই দু’টি জায়গা আপনার জন্য আদর্শ।

পুণে শহরে আপনি খুঁজে পাবেন স্রেফ শান্তি। এখানের সবুজ পাহাড়, ফাকা রাস্তা, আর মনোরম আবহাওয়া আপনার মন ভোলাবেই। পুণেতে এসে আপনি আপনার হোটেলের ব্যালকনিতে বসে, চা কাপে চুমুক দিয়ে কিংবা বই পড়তে পড়তেই সারা দিনটা কাটিয়ে দিতে পারেন। আর যদি মনে হয়, ঘুরতে যাবেন তাহলে বলব পুণেতে বেশ কিছু জায়গা রয়েছে ঘুরে দেখার মতো। আগা খান প্যালেস, সিনহাগড় ফোর্ট এই জায়গাগুলি আজও ইতিহাস ধরে রেখেছে। তবে আপনি চাইলে পুণে থেকে চলে যেতে পারেন লোনাভলা, মহাবালেশ্বর প্রভৃতি জায়গাতেও।


Source: www.holidayiq.com

অন্যদিকে, বেঙ্গালুরু কিন্তু তুলনামূলকভাবে কিছুটা ব্যস্ত শহর। তবে এই রকম একটা মেট্রো শহরের আবহাওয়া আপনার ঘুরে বেড়ানোর এনার্জি দেবে। এখানেও দেখার জন্য রয়েছে বেশ কিছু জায়গা। যেমন বেঙ্গালুরুতে গেলে আপনি ঘুরে আসতে পারেন লালবাগ, বানেরঘাটা ন্যাশনাল পার্ক, ইসকন মন্দির, বিধান সৌধ ইত্যাদি।


Source: blog.gyanlab.com

আর সমুদ্র ভাল লাগলে আপনি ঘুরে আসতে পারেন কোচি বা গোয়া থেকে। সমুদ্র উপকূলবর্তী এলাকা হলেও এই দু'টি জায়গা দু'রকম। যেখানে কোচি সপরিবারে আউটিং করার জন্য আদর্শ স্থান, সেখানে গোয়াতে বন্ধুদের সঙ্গে যাওয়াই ভাল।

তবে সমুদ্র উপকূল ছাড়াও কোচিতে রয়েছে দেখার মতো অনেক কিছু। কোচি গেলে আপনি ঘুরে আসতে পারেন হিল প্যালেস, মাতানচেরি প্যালেস, সেন্ট ফ্রান্সিস চার্চ, সান্তা ক্রুজ ক্যাথিড্রাল ইত্যাদির মতো জায়গা।


Source: www.azamaraclubcruises.com

অন্যদিকে গোয়া গেলে আপনি বেশিরভাগ সময়টাই কাটিয়ে দিতে পারবেন বিচে বসে। ওয়াটার অ্যাডভেঞ্চার ভাল লাগলে আপনার গোয়া ভাল লাগবেই। সঙ্গে জবরদস্ত সি-ফুড।


Source: www.cntraveller.in

আর এই প্রত্যেকটি গন্তব্যের জন্য এয়ার এশিয়ার তাদের বিমানের টিকিটে দিচ্ছে অবিশ্বাস্য ছাড়। তাহলে আর দেরি কেন? এখনই বুক করে ফেলুন এয়ার এশিয়ার টিকিট। ব্যাগ গুছিয়ে তৈরি হয়ে নিন উইক-এন্ডের জন্য আর চলে যান আপনার পছন্দসই গন্তব্যে।

মনে রাখবেন অফারটি কিন্তু সীমিত সময়ের জন্য।

তাহলে কোথায় দেখা হচ্ছে আপনার সঙ্গে?