Advertisement
১৯ জুলাই ২০২৪
West Bengal Panchayat Election 2023

ভোটের পরও অশান্তি, তৃণমূল-সিপিএমের সংঘর্ষে উত্তপ্ত আমডাঙা, আহত দুই পক্ষের কর্মীরা

স্থানীয় সূত্রে খবর, রবিবার সকাল থেকেই বোমাবাজি চলেছে। মুহুর্মুহু বোমা ফাটার শব্দে সন্ত্রস্ত সাধারণ মানুষ। বেলা বাড়তে সেই গন্ডগোল চরম আকার নেয়। শুরু হয় সংঘর্ষ।

Row over TMC CPM clash in Amdanga

আমডাঙায় উত্তেজনা। বাড়ি থেকে বেরিয়ে এসেছেন স্থানীয়রা। —নিজস্ব চিত্র।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
আমডাঙা শেষ আপডেট: ০৯ জুলাই ২০২৩ ১৬:৫৬
Share: Save:

ভোট মিটেছে শনিবার। তখনও এলাকায় দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। সেই ভোট কেমন গেল, তাই নিয়ে রবিবার বচসায় জড়াল তৃণমূল এবং সিপিএম। আর তার পরিণতিতে এলাকায় পড়ল বোমা। ভাঙচুর চলল বাড়িঘরে। রবিবার এই ঘটনায় আতঙ্ক ছড়াল দক্ষিণ ২৪ পরগনার আমডাঙার শশীপুর এলাকায়। তৃণমূলের অভিযোগ, তাদের কর্মীদের বাড়িঘরে ভাঙচুর চালিয়েছে সিপিএম। সেই অভিযোগ উড়িয়ে শাসকদলের বিরুদ্ধে পাল্টা ‘ভোট পরবর্তী হিংসা’র অভিযোগ করল বামেরা। উত্তেজনা প্রশমনে এলাকায় নেমেছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে খবর, রবিবার সকাল থেকেই বোমাবাজি চলেছে। মুহুর্মুহু বোমা ফাটার শব্দে সন্ত্রস্ত সাধারণ মানুষ। বেলা বাড়তে সেই গন্ডগোল চরম আকার নেয়। ভোট মিটে যাওয়ার পরেও আবারও উত্তপ্ত গোটা এলাকা। দুই রাজনৈতিক দলের সংঘর্ষে চণ্ডীগড় গ্রাম পঞ্চায়েতের শশীপুর এলাকায় একের পর এক বোমা পড়ে। স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের অভিযোগ, ‘‘শনিবার ভোট লুট করতে না পেরে সিপিএম রবিবার মুড়ি-মুড়কির মতো বোমাবাজি করছে।’’ শাসকদলের অভিযোগ, সিপিএম আশ্রিত দুষ্কৃতীদের আক্রমণে তাদের অন্তত সাত জন কর্মী আহত হয়েছেন। এঁদের পাঁচ জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

পাল্টা তৃণমূলের বিরুদ্ধে বোমাবাজির অভিযোগ করেছে সিপিএম। তাদের দাবি, বিরোধীদের রুখতে বার বার এলাকায় সন্ত্রাস করছে তৃণমূল। হামলায় তাদের এক কর্মী মারাত্মক ভাবে জখম হয়েছেন বলে অভিযোগ। পুলিশ সূত্রে খবর, তৃণমূল-সিপিএমের সংঘর্ষে আহত হয়েছেন উভয় পক্ষের বেশ কয়েক জন কর্মী। এখন আমডাঙায় চলছে পুলিশি টহল। তার পরেও অশান্তি কমেনি।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE