Advertisement
২১ জুলাই ২০২৪
Shootout At Murshidabad

মুর্শিদাবাদে বাড়িতে ঢুকে তৃণমূলকর্মীকে গুলি করার অভিযোগ, শাসকদলকেই দুষছে অভিযুক্ত বিজেপি

প্রাথমিক ভাবে পুলিশ মনে করছে, পুরোনো রাজনৈতিক বিবাদের জেরেই এই হামলা। মুর্শিদাবাদ জেলার পুলিশ সুপার এই প্রসঙ্গে বলেন, “পুরনো বিবাদের জেরে গন্ডগোল বলে জানা গিয়েছে। তদন্ত চলছে।”

A TMC worker allegedly shot by goons in Raninagar of Murshidabad

—প্রতিনিধিত্বমূলক ছবি।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৮ জানুয়ারি ২০২৪ ১৫:৪০
Share: Save:

রাতের অন্ধকারে বাড়িতে ঢুকে এক তৃণমূলকর্মীকে গুলি করার অভিযোগ উঠল দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে মুর্শিদাবাদ জেলার রানিনগরে। স্থানীয়দের তরফে জানা গিয়েছে, বুধবার রাতে রানিনগর থানার সীমান্তবর্তী ৫১ বর্ডারপাড়া এলাকায় নিজের বাড়িতে ঘুমোচ্ছিলেন মনোজ মণ্ডল। রাতের অন্ধকারে কয়েক জন তাঁকে বাড়ির বাইরে থেকে ডাকে। অভিযোগ, ডাক শুনে মনোজের স্ত্রী টিনের ঝাঁপ খুলতেই দুষ্কৃতীরা রাতের অন্ধকারে গুলি চালিয়ে পালায়। গুরুতর জখম অবস্থায় মনোজ এখন মুর্শিদাবাবাদ মেডিক্যাল কলেজে চিকিৎসাধীন।

তবে এই ঘটনাতেও লেগেছে রাজনীতির রং। রানিনগর থানার পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। প্রাথমিক ভাবে পুলিশ মনে করছে, পুরোনো রাজনৈতিক বিবাদের জেরেই এই হামলা। মুর্শিদাবাদ জেলার পুলিশ সুপার সূর্যপ্রতাপ যাদব এই প্রসঙ্গে বলেন, “পুরনো বিবাদের জেরে গন্ডগোল বলে প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে। তদন্ত চলছে।”

আহত মনোজের পরিবার জানিয়েছে, ঘুমন্ত অবস্থায় পেটে গুলি লাগে। তাদের বক্তব্য, বিজেপি এই হামলার নেপথ্যে রয়েছে। ঘটনার সঙ্গে যুক্ত সন্দেহে ইতিমধ্যেই এক জন বিজেপি কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। এই ঘটনা প্রসঙ্গে রানিনগর ২ ব্লকের বিজেপির মণ্ডল সভাপতি আসিক ইকবাল গোটা ঘটনার জন্য শাসক তৃণমূলকেই দায়ী করেছেন। মনোজকে বিজেপির কর্মী বলেও দাবি করেছেন তিনি। তাঁর কথায়, “মনোজ মণ্ডল বিজেপি কর্মী। তৃণমূলের দুষ্কৃতীরাই রাতের অন্ধকারে বাড়িতে ঢুকে আমাদের কর্মীকে গুলি চালিয়েছে। এই হামলার পিছনে শাসক দলের দুষ্কৃতীরা যুক্ত রয়েছে।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Murshidabad Shootout Raninagar TMC BJP
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE