Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

রেলপাড়ে সংঘর্ষ, গ্রেফতার ন’জন

নিজস্ব সংবাদদাতা
কাঁকসা ০১ ডিসেম্বর ২০২০ ০১:৩৩
উদ্ধার হওয়া বোমা। নিজস্ব চিত্র

উদ্ধার হওয়া বোমা। নিজস্ব চিত্র

পাড়ার দু’টি ক্লাবের মধ্যে সংঘর্ষে উত্তেজনা ছড়াল পানাগড় রেলপাড় এলাকায়। রবিবার রাতের এই ঘটনায় বোমাবাজিরও অভিযোগ উঠেছে। পুলিশের বড় বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পুলিশ জানিয়েছে, দু’পক্ষই অভিযোগ দায়ের করেছে। দু’পক্ষের ন’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধৃতদের সোমবার দুর্গাপুর আদালতে হাজির করানো হলে ১৪ দিন জেল হেফাজত হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, পানাগড় রেলপাড় এলাকায় পুরনো একটি ক্লাব রয়েছে। ওই এলাকায় ফের একটি নতুন ক্লাব তৈরি হয়। তার পর থেকে পুরনো ক্লাবের সদস্যেরা নানা ভাবে তাঁদের সঙ্গে ঝামেলা করছেন বলে অভিযোগ নতুন ক্লাবের সদস্যদের। নতুন ক্লাবের সদস্যদের দাবি, এ বছর দুর্গাপুজোর চাঁদা তোলা নিয়েও পুরনো ক্লাবের সদস্যদের রোষের মুখে পড়তে হয়েছে তাঁদের। সে বার পুলিশের মধ্যস্থতায় পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। কিন্তু ফের রবিবার সন্ধ্যা থেকে এলাকায় উত্তেজনা ছড়াতে থাকেন পুরনো ক্লাবের সদস্যেরা বলে অভিযোগ।

এ দিন সন্ধ্যায় আচমকাই পুরনো ক্লাবের প্রায় ৭০ জন সদস্য তাঁদের ক্লাবের উপর হামলা চালায় ও বোমাবাজি করে বলে অভিযোগ নতুন ক্লাবের সদস্যদের। ক্লাবের এক সদস্য দিলীপ দত্তের অভিযোগ, ‘‘আমার দোকানেও হামলা চালানো হয়।’’ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন পুরনো ক্লাবের সদস্যেরা। তাঁদের পাল্ট‍া অভিযোগ, শ্যামসুন্দর সিংহ নামে নতুন ক্লাবের এক কর্মকর্তা এ দিন সন্ধ্যায় আচমকাই তাঁদের ক্লাবের সদস্যদের উপরে তরোয়াল নিয়ে হামলা করেন। তাতে দু’জন আহত হয়েছেন বলে দাবি। ক্লাবের সদস্য গৌতম বাউরির দাবি, ‘‘কোনও প্ররোচনা ছাড়াই ওই ব্যক্তি হামলা করেন।’’ গোলমালের খবর পেয়ে এলাকায় আসে পুলিশ। নতুন ক্ল‍াব চত্বর থেকে দু’টি বোমা উদ্ধার হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

Advertisement

এ দিকে, এই ঘটনার পরেই শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতোর। বিজেপির দাবি, ওই দু’টি ক্লাব তৃণমূলের দু’টি গোষ্ঠীর। পুরনো ক্লাবটি গলসির বিধায়ক অলোক মাজির গোষ্ঠীর এবং নতুন ক্লাবটি রয়েছে কাঁকসা ব্লক সভাপতি দেবদাস বক্সীর অনুগামীদের হাতে। বিজেপি নেতা রমন শর্মা বলেন, ‘‘এলাকা দখলকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের দু’টি গোষ্ঠী ঝামেলা করছে। এর জেরে সমস্যায় পড়েছেন সাধারণ মানুষজন।’’ ফোনে যোগাযোগ করা হলে এ প্রসঙ্গে কোনও মন্তব্য করতে চাননি বিধায়ক অলোকবাবু। যদিও ব্লক সভাপতি দেবদাসবাবু দাবি করেন, ‘‘এটা নিছকই দু’টি ক্লাবের মধ্যে ঝামেলা। এর সঙ্গে রাজনীতির কোনও সম্পর্ক নেই। প্রশাসন উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করছে।’’

আরও পড়ুন

Advertisement