×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২২ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

সপ্তাহখানেক আগে খোয়া যাওয়া গাড়ি উদ্ধার পুলিশের

নিজস্ব সংবাদদাতা
ভাতার১৫ নভেম্বর ২০২০ ১৬:৩১
খোয়া যাওয়া গাড়িটি। নিজস্ব চিত্র।

খোয়া যাওয়া গাড়িটি। নিজস্ব চিত্র।

বর্ধমান-বোলপুর সড়কের আমবোনা থেকে সপ্তাহ খানেক আগে দুষ্কৃতীরা ছিনতাই করেছিল একটি গাড়ি। তার পর ভাতার থানায় অভিযোগ জানান গাড়ির চালক তথা মালিক। এই ঘটনার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে জড়িত সন্দেহে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। শনিবার রাতে রানিগঞ্জ থেকে খোয়া যাওয়া গাড়িটি উদ্ধার করেছে পুলিশ। এই ঘটনায় বাকি জড়িতদের খোঁজে তল্লাশি চালানো হচ্ছে।  

পূর্ব বর্ধমানের ভাতারের কাছে ওই গাড়ি ছিনতাইয়ের সময় চালককে মারধর করে বেঁধে দিয়েছিল দুষ্কৃতীরা। চালক যাতে চিৎকার না করতে পারেন, সে জন্য তাঁর মুখও আটকে দেওয়া হয়েছিল সেলোটেপ দিয়ে। ভোরের আলো ফুটতেই গ্রামের লোকজন চালককে ওই অবস্থায় দেখে পুলিশকে খবর দেন। এক সিভিক ভলেন্টিয়ার গোটা ঘটনা ভাতার থানায় জানান। চালক খুরশিদ আহমেদ নিজেই গাড়ির মালিক। তিনি লিখিত অভিযোগ করেন ভাতার থানায়।

পুলিশ গাড়ি ছিনতাইয়ের তদন্ত নেমে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে। ধৃতের নাম সঞ্জয় সিংহ। বাড়ি কলকাতার মেটিয়াবুরুজে। ধৃতকে জিজ্ঞাসাবাদ করতেই পুলিশ জানতে পারে, গাড়িটি পশ্চিম বর্ধমানের রানিগঞ্জের একটি ফাঁকা জায়গায় অনেক গাড়ির মধ্যে রাখা আছে। কালীপুজোর রাতে পশ্চিম বর্ধমান জেলা পুলিশ প্রশাসনের সাহায্য নিয়ে ছিনতাই হওয়া গাড়িটিকে উদ্ধার করে। জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কল্যাণ সিংহ রায় বলেন, ‘‘নতুন করে এই ঘটনায় কেউ গ্রেফতার হয়নি। তবে পুলিশ গোটা বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করছে।’’ পুলিশের অনুমান খুরশিদ আহমেদের সঙ্গে পুরনো বিবাদের জন্যই তাঁকে মারধর করে গাড়িটি ছিনতাই করা হয়েছিল।

Advertisement
Advertisement