Advertisement
২৩ জুন ২০২৪
Bombs Recovered

পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রামে উদ্ধার তাজা বোমা, এলাকায় উত্তেজনা

শুক্রবার সন্ধ্যায় চেঁচুরি গ্রামের রসুণ্ডিপুকুরের পাড়ে মাটি চাপা অবস্থায় একটি প্লাস্টিকের জারের মধ্যে ছ’টি তাজা বোমা উদ্ধার করা হয়। শনিবার ডিআইবি বম্ব স্কোয়াডের সদস্যেরা ঘটনাস্থলে যান।

—প্রতীকী ছবি।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
কেতুগ্রাম শেষ আপডেট: ১৮ মে ২০২৪ ২৩:৪৯
Share: Save:

ফের উত্তেজনা ছড়াল পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রামে। ভোটের আগের দিন রাতে দুষ্কৃতীদের ছোড়া বোমার আঘাতে খুন হয়েছিলেন এক তৃণমূল কর্মী। সপ্তাহ পার না হতেই কেতুগ্রামের চেঁচুরি গ্রাম থেকে উদ্ধার হল তাজা বোমা।

শুক্রবার সন্ধ্যায় চেঁচুরি গ্রামের রসুণ্ডিপুকুরের পাড়ে মাটি চাপা অবস্থায় একটি প্লাস্টিকের জারের মধ্যে ছ’টি তাজা বোমা উদ্ধার করা হয়। শনিবার ডিআইবি বম্ব স্কোয়াডের সদস্যেরা ঘটনাস্থলে যান। পুলিশ ও বম্ব স্কোয়াড যৌথ ভাবে পুলিশ কুকুর এবং আধুনিক যন্ত্রের মাধ্যমে এলাকায় তল্লাশি চালায়। গত ১২ মে রাতে কেতুগ্রামের চেঁচুরি গ্রামের ২ নম্বর বুথের তৃণমূলের বুথ সভাপতি মিন্টু শেখকে লক্ষ্য করে বোমা ছোড়ে দুষ্কৃতীরা। বোমার আঘাতে মারা যান মিন্টু। সঙ্গী মিশির জখম হয়ে এখনও চিকিৎসাধীন। এই ঘটনায় নিহতের স্ত্রী তুহিনা খাতুন ১০ জনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেন। তার ভিত্তিতে একজন সিভিক ভলেন্টিয়ার-সহ দু’জন তৃণমূল কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়।

খুনের ঘটনার পর থেকেই এমনিতেই কেতুগ্রামের আনখোনা অঞ্চলের চেঁচুরি গ্রাম থমথমে। এই পরিস্থিতির মধ্যেই চেঁচুরি গ্রামে একটি পুকুর পাড় থেকে ছ’টি তাজা বোমা উদ্ধার করেছে পুলিশ। তা নিয়ে এলাকায় ফের চাপা উত্তেজনা ছড়িয়েছে। পুলিশের সন্দেহ, এলাকায় আরও বোমা থাকতে পারে। যদিও বিকেল পর্যন্ত আর বোমা উদ্ধার হয়নি। তবে এলাকায় পুলিশের নজরদারি রয়েছে। কাটোয়ার এসডিপিও কাশীনাথ মিস্ত্রি বলেন, ‘‘সূত্র মারফত খবর পেয়ে চেঁচুরি গ্রামে একটি পুকুরপাড় থেকে ছ'টি বোমা উদ্ধার হয়েছে। এলাকায় আর কোথাও বোমা মজুত আছে কিনা তল্লাশি চালিয়ে দেখা হচ্ছে। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।"

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

ketugram Bardhaman
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE