Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

বিডিও-র বিরুদ্ধে মানসিক অত্যাচারের অভিযোগ তুলে চাকরিতে ইস্তফা

সন্দীপের দাবি, তিনি শনি ও রবিবার ছুটির দিনেও অফিসের কাজ করেছেন। বাড়িতে বসেও করোনা আবহের মধ্যে অফিসের কাজ করেছেন।

নিজস্ব সংবাদদাতা
ভাতার ০২ জানুয়ারি ২০২১ ২৩:৫৭
বাঁদিকে অভিষুক্ত বিডিও তপন সরকার  । ডানদিকে সন্দীপ বন্দ্যোপাধ্যায়। নিজস্ব চিত্র

বাঁদিকে অভিষুক্ত বিডিও তপন সরকার । ডানদিকে সন্দীপ বন্দ্যোপাধ্যায়। নিজস্ব চিত্র

বিডিও মানসিক নির্যাতন করেন। এই অভিযোগ তুলে চাকরি ছাড়লেন পঞ্চায়েত সমিতির এক ডেটা এন্ট্রি অপারেটর। সন্দীপ বন্দ্যোপাধ্যায় নামে পূর্ব বর্ধমানের ভাতার পঞ্চায়েত সমিতির ওই কর্মী শুক্রবার তাঁর ইস্তফাপত্র জমা দিয়েছেন বিডিও-র কাছে।

অভিযুক্ত বিডিও তপন সরকার এ নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি। তিনি বলেন, ‘‘এটি একটি সরকারি বিষয়। এ নিয়ে আমি কোনও মন্তব্য করতে চাই না।’’ জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, সন্দীপের ইস্তফাপত্র গ্রহণক রার সুপারিশ করে জেলাপ্রশাসনকে শনিবার চিঠি দিয়েছেন বিডিও।

সন্দীপের দাবি, তিনি শনি ও রবিবার ছুটির দিনেও অফিসের কাজ করেছেন। বাড়িতে বসেও করোনা আবহের মধ্যে অফিসের কাজ করেছেন। তাঁর কথায়, ‘‘এ সব সত্ত্বেও আমার উপর বিডিও-র মানসিক অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে এই ইস্তফাপত্র লিখতে বাধ্য হচ্ছি।’’ তাঁর অভিযোগ, ‘‘অনেক রাতে বাড়ি ফেরার পরেও ফোন করে বা হোয়াটসআ্যাপে কাজের নির্দেশ দেন বিডিও। তার সবটাই মৌখিক। এই মানসিক যন্ত্রণা নিতে পারছি না।’’

Advertisement

পঞ্চায়েত সমিতি সূত্রে জানা গিয়েছে, বিডিও তাঁর ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি দিয়ে জানিয়েছেন, ইস্তফাপত্র পাওয়ার পর তিনি সন্দীপকে ফোন করে বিষয়টি নিয়ে আলোচনার জন্য অফিসে আসতে অনুরোধ করেন। কিন্তু সন্দীপ জানিয়ে দেন শনিবার বা রবিবার, ছুটির দিনে তাঁর পক্ষে আসা সম্ভব নয়।

আরও পড়ুন: ‘পার্টি কোম্পানিটাকে হলদি নদীতে ফেলে দেব’, তৃণমূলকে নিশানা করে হুঙ্কার শুভেন্দুর

আরও পড়ুন: ‘ভাইপো মানে অভিষেক’, এ বার নাম করেই আক্রমণ লকেটের

আরও পড়ুন

Advertisement