Advertisement
২৭ জানুয়ারি ২০২৩
Roads

ধুলোয় যাতায়াতে সমস্যা, ক্ষোভ এসটিকেকে রোডে

প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, হুগলির গুপ্তিপাড়া থেকে পূর্বস্থলীর ছাতনি পর্যন্ত এসটিকেকে রোডের সংস্কার ও সম্প্রসারণের কাজ শুরু হয়েছে।

রাস্তার ধুলোর জন্য দোকান বন্ধ রাখতে হচ্ছে বলে অভিযোগ। নিজস্ব চিত্র

রাস্তার ধুলোর জন্য দোকান বন্ধ রাখতে হচ্ছে বলে অভিযোগ। নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
পূর্বস্থলী শেষ আপডেট: ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০০:০২
Share: Save:

রাস্তায় ধুলোর জেরে যাতায়াত করতে গিয়ে নাজেহাল হতে হচ্ছে, এই অভিযোগে সরব হলেন পূর্বস্থলীর গোয়ালপাড়া এলাকার বাসিন্দারা। রবিবার সকালে তাঁরা এর প্রতিবাদে এসটিকেকে রোড অবরোধ করেন। ধুলোর দাপটে রাস্তার পাশে বহু খাবারের দোকানদার ব্যবসা বন্ধ রাখতে বাধ্য হচ্ছেন বলেও অভিযোগ। বিষয়টি নিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপের আশ্বাস দিয়েছে কালনা মহকুমা প্রশাসন।

Advertisement

প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, হুগলির গুপ্তিপাড়া থেকে পূর্বস্থলীর ছাতনি পর্যন্ত এসটিকেকে রোডের সংস্কার ও সম্প্রসারণের কাজ শুরু হয়েছে। ১০ মিটার চওড়া রাস্তা তৈরির জন্য বরাদ্দ হয়েছে ১৭৫ কোটি টাকা। কাজের জন্য দু’বছর সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে ছাতনি, হেমায়েতপুর-সহ বেশ কিছু জায়গায় রাস্তার কাজ অনেকটা এগিয়েছে।

পূর্বস্থলী ১ ব্লকের গোয়ালপাড়ার বাসিন্দাদের অভিযোগ, পুরানো রাস্তার উপরের অংশ তুলে নেওয়ায় রাস্তায় ধুলোর ভয়ানক সমস্যা তৈরি হয়েছে। কোনও যানবাহন গেলেই ধুলোয় ঢেকে যাচ্ছে এলাকা। ধুলোর জন্য সামনের যানবাহন দেখতে সমস্যা হচ্ছে চালকদের। রাস্তার ধুলোর জন্য হোটেল, রেস্তোরাঁ, মিষ্টির দোকান বন্ধ রাখতে হচ্ছে বলে অভিযোগ ব্যবসায়ীদের। জামাকাপড়ের দোকানদারদেরও অভিযোগ, পসরা সাজিয়ে রাখা যাচ্ছে না।

বাসিন্দাদের আরও অভিযোগ, ধুলোর জেরে স্কুলে যেতে সমস্যায় পড়ছে ছাত্রছাত্রীরা। গুরুত্বপূর্ণ এই রাস্তায় অজস্র ছোট-বড় গর্তও তৈরি হয়েছে। ফলে, কালনা থেকে পূর্বস্থলীর নানা জায়গায় যাতায়াত কার্যত দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে বলে দাবি যাত্রীদের। বাসিন্দাদের অনেকে অভিযোগ করেন, কালনা থেকে পূর্বস্থলী পৌঁছতে আগে যেখানে মোটরবাইকে প্রায় ৫০ মিনিট সময় লাগত, এখন সেখানে দেড় ঘণ্টারও বেশি লাগছে।

Advertisement

গোয়ালপাড়া এলাকার আখের বাজারের মালিক বাবলা খানের অভিযোগ, ‘‘ব্যবসায়ীরা ধুলোর কারণে বাজারে আখ নিয়ে আসতে চাইছেন না। ফলে, আখের জোগান অনেকটা কমে গিয়েছে। ধুলোর জেরে অনেকের ব্যবসা ক্ষতির মুখে পড়েছে।’’ স্থানীয় বাসিন্দা ইন্দ্রজিৎ ঘোষ, সাগর ঘোষ, নেপাল বসাকদের বক্তব্য, ‘‘ধুলো ওড়া বন্ধ করার জন্য রাস্তায় পর্যাপ্ত জল দেওয়া প্রয়োজন। কিন্তু ঠিকাদারেরা তা করছেন না।’’ এ দিন অবরোধের পরে নাদনঘাট থানার পুলিশের তরফে ঠিকাদারদের সঙ্গে কথা বলা হয়। শেষে রাস্তায় জেল দেওয়ার আশ্বাসে ঘণ্টা দেড়েক অবরোধ চলার পরে সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ তা ওঠে।

এসটিকেকে রোডে ধুলো বন্ধের দাবিতে পথ অবরোধ অবশ্য এই প্রথম নয়। এর আগে পূর্বস্থলীর সুলুন্টু এলাকাতেও একই দাবিতে অবরোধ করেছিলেন বাসিন্দারা। কালনা মহকুমা প্রশাসনের এক আধিকারিক বলেন, ‘‘৭ জানুয়ারি মহকুমাশাসকের দফতরে এসটিকেকে রোড নিয়ে একটি বৈঠক হয়েছিল। সেখানে ধুলোর সমস্যার বিষয়টি নিয়ে কথা হয়। পূর্ত দফতরের তরফে বিষয়টি দেখার আশ্বাস দেওয়া হয়েছিল। ফের খোঁজ নিয়ে দেখা হচ্ছে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.