Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

CPM Leader: অবরোধ তুলতে বলায় বাইক আরোহীকে সপাটে চড় সিপিএম নেতার, দিলেন ‘সহনশীলতা’র পাঠও

সিপিএম নেতাদের রাস্তা অবরোধ তুলে নেওয়ার অনুরোধ করেছিলেন এক বাইক আরোহী। তা থেকেই দু’পক্ষের মধ্যে বচসার সূত্রপাত।

নিজস্ব সংবাদদাতা
দুর্গাপুর ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১৩:২৭
Save
Something isn't right! Please refresh.
বচসা চলাকালীন মারমুখী মেজাজে সিপিএম নেতা পঙ্কজ রায় সরকার।

বচসা চলাকালীন মারমুখী মেজাজে সিপিএম নেতা পঙ্কজ রায় সরকার।
—নিজস্ব চিত্র।

Popup Close

সিপিএম নেতাদের রাস্তা অবরোধ তুলে নেওয়ার অনুরোধ করেছিলেন এক বাইক আরোহী। তা থেকে দু’পক্ষের বচসা শুরু। অবরোধের পাল্টা প্রতিবাদের সামনে পড়ে বাইক আরোহীকে সপাটে চড় মেরে বসলেন সিপিএম নেতা। এমন কাণ্ড ঘটিয়ে অবশ্য অনুতপ্ত নন ওই বাম নেতা। বদলে যাত্রীদেরই সহনশীলতার পাঠ দিয়েছেন তিনি।

কেন্দ্রের কৃষি আইনের বিরোধিতায় সোমবার দেশ জুড়ে বন্‌ধের ডাক দিয়েছে কৃষক সংগঠনগুলি। বন্‌ধকে সমর্থন জানিয়েছে বাম-সহ অন্যান্য কয়েকটি সংগঠনও। সোমবার সাতসকালেই কর্মসূচি পালনে নেমে পড়েন দুর্গাপুরের বাম কর্মী-সমর্থকরা। সঙ্গে ছিলেন নেতারাও। দুর্গাপুর স্টেশন সংলগ্ন বাঁকুড়া মোড়ে চলছিল তাঁদের অবরোধ। তার জেরে আটকে পড়েন যাত্রীরা। সেই ভিড়ের মধ্যে এক বাইক আরোহী বাম কর্মী-সমর্থকদের অবরোধ তুলে নিতে অনুরোধ করেন। কিন্তু তাতে কান দেননি বন্‌ধ পালনকারীরা। তা নিয়েই বচসা শুরু হয় দু’পক্ষের। এর মাঝেই সিপিএমের পশ্চিম বর্ধমান জেলা সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য পঙ্কজ রায় সরকার সপাটে চড় মারেন ওই বাইক আরোহীকে। তাঁকে দিয়ে ক্ষমাও চাইয়ে নেন সিপিএম কর্মী-সমর্থকরা।

যদিও ওই কাণ্ডে মোটেই অনুতপ্ত নন পঙ্কজ। বরং তাঁর দাবি, ‘‘আজকের বন্‌ধ ঘোষণা করা হয়েছিল আগেই। এটা হঠাৎ করে ডাকা হয়নি। ফলে যাঁরা আটকে গিয়েছেন, তাঁদের সহনশীলতা দেখানো উচিত ছিল। আমরা কোথায় অবরোধ করব, তাও ঘোষিত ছিল। অনেকে উত্তেজনা তৈরির চেষ্টা করেছেন। তাতে তাঁরা সফল হননি।’’

Advertisement


কেন্দ্রীয় সরকারের কৃষি আইনের বিরুদ্ধে দিল্লিতে কৃষকদের আন্দোলনকে সমর্থন করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এর পর গত জুন মাসে নবান্নে এসে মমতার সঙ্গে দেখা করেন কৃষক আন্দোলনের অন্যতম নেতা রাকেশ টিকায়েত। সেই প্রসঙ্গ তুলে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন সিপিএমের পশ্চিম বর্ধমান জেলা সম্পাদকমন্ডলীর সদস্যকে। পঙ্কজ তার উত্তরে বলেন, ‘‘চোলি কা পিছে কুছ হ্যায়।’’ পঙ্কজের এ হেন মন্তব্যের কড়া প্রতিক্রিয়া দিয়েছে তৃণমূল। জোড়াফুল শিবিরের নেতা তথা দুর্গাপুরের বিধায়ক প্রদীপ মজুমদার বলেন, ‘‘আমাদের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রথম দিন থেকে কৃষকদের এই আন্দোলনের সঙ্গে আছেন। আমরা সর্বান্তঃকরণে ওই আন্দোলনকে সমর্থন করেছি। যিনি এই মন্তব্য করেছেন এটা তাঁর বিকৃত মস্তিষ্কের লক্ষণ।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement