Advertisement
০৫ ডিসেম্বর ২০২২

বেহাল পরিষেবা নিয়ে বিক্ষোভ পুরসভায়

বেহাল পরিষেবা, বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পে অনিয়ম, লোক নিয়োগে দুর্নীতি-সহ নানা অভিযোগে সোমবার তৃণমূল পরিচালিত পুরবোর্ডকে স্মারকলিপি দিল সিপিএম। মেয়র অপূর্ব মুখোপাধ্যায় না থাকায় স্মারকলিপি দেওয়া হয় মেয়র পারিষদ সদস্য প্রভাত চট্টোপাধ্যায়ের হাতে। মেয়রের হাজির না থাকা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশও করে সিপিএম।

মিছিল সিপিএমের।—নিজস্ব চিত্র।

মিছিল সিপিএমের।—নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
দুর্গাপুর শেষ আপডেট: ১২ মে ২০১৫ ০১:৩৮
Share: Save:

বেহাল পরিষেবা, বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পে অনিয়ম, লোক নিয়োগে দুর্নীতি-সহ নানা অভিযোগে সোমবার তৃণমূল পরিচালিত পুরবোর্ডকে স্মারকলিপি দিল সিপিএম। মেয়র অপূর্ব মুখোপাধ্যায় না থাকায় স্মারকলিপি দেওয়া হয় মেয়র পারিষদ সদস্য প্রভাত চট্টোপাধ্যায়ের হাতে। মেয়রের হাজির না থাকা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশও করে সিপিএম।

Advertisement

দিন কয়েক আগে পুর পরিষেবার সার্বিক ব্যর্থতার অভিযোগ তুলে শহরে এক লক্ষ সই সংগ্রহ অভিযানে নামে সিপিএম। ১৫টি ওয়ার্ডে দু’দিনের পদযাত্রার কর্মসূচিও নেওয়া হয়। এ দিন প্রায় ৮৪ হাজার মানুষের সই সম্বলিত আর্জি নিয়ে সিপিএমের মিছিল পুরসভায় পৌঁছয়। পুরসভার সামনে গণবিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন তাঁরা। প্রাক্তন বিধায়ক তথা মেয়র পারিষদ বিপ্রেন্দু চক্রবর্তী, সিটুর জেলা সভাপতি বিনয়েন্দ্রকিশোর চক্রবর্তী, পুরসভার বিরোধী দলনেতা শিবশঙ্কর চট্টোপাধ্যায়েরা স্মারকলিপি দিতে যান।

বেশ কিছুক্ষণ অপেক্ষার পরে তাঁদের সঙ্গে দেখা করেন মেয়র পারিষদ প্রভাতবাবু। মেয়র নেই জেনে সিপিএম নেতারা তাঁর হাতেই স্মাপরলিপি তুলে দেন। প্রভাতবাবু তা মেয়রের হাতে পৌঁছে দেওয়ার আশ্বাস দেন। সিপিএমের দুর্গাপুর ২ পূর্ব জোনাল সম্পাদক পঙ্কজ রায় সরকার বলেন, ‘‘হাজার হাজার মানুষ সই করে তাঁদের দাবি মেয়রের কাছে পৌঁছে দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু তিনি অনুপস্থিত থেকে তাঁদের অপমান করলেন।’’ মেয়র অপূর্ববাবু বলেন, ‘‘ওঁদের আমি ৩টের মধ্যে আসতে বলেছিলাম। তার পরে আমি থাকব না, ওঁরা জানতেন। এখন রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে এ সব বলছেন।’’

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.