Advertisement
১৩ জুন ২০২৪
Bengal Primary Recruitment Case

ভোটের মধ্যেও নিয়োগকাণ্ড নিয়ে সক্রিয় সিবিআই! তলব করা হল পার্থ-‘ঘনিষ্ঠ’ বলে পরিচিত সেই সন্তুকে

কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার দাবি, বেহালাবাসী সন্তুর সঙ্গে হুগলির বহিষ্কৃত তৃণমূল নেতা কুন্তল ঘোষ, নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় ধৃত ব্যবসায়ী অয়ন শীল, এমনকি, সুজয়কৃষ্ণ ভদ্র ওরফে ‘কালীঘাটের কাকু’-রও যোগাযোগ ছিল।

পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

পার্থ চট্টোপাধ্যায়। —ফাইল চিত্র ।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৯ মে ২০২৪ ১৭:৩৩
Share: Save:

লোকসভা ভোটের মধ্যেও প্রাথমিকের নিয়োগ ‘দুর্নীতি’ নিয়ে সক্রিয় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই। আবারও তলব করা হল রাজ্যের মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ‘ঘনিষ্ঠ’ বলে পরিচিত সন্তু গঙ্গোপাধ্যায়কে। এর আগে এপ্রিল মাসে সন্তুকে ডেকে পাঠিয়ে প্রায় আট ঘণ্টা ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল সিবিআই। তাঁর বাড়িতে তল্লাশিও চালানো হয়েছিল। ইডিও তাঁকে তলব করেছিল সিজিও কমপ্লেক্সে। তিনি হাজিরাও দিয়েছিলেন। এ বার সন্তুকে আবার তলব করল সিবিআই। তবে কেন তাঁকে তলব করা হয়েছে, তা এখনও পরিষ্কার নয়। যদিও সিবিআই সূত্রে খবর, প্রাথমিকে নিয়োগ নিয়ে দুর্নীতির টাকা লেনদেন সংক্রান্ত বিষয়ে সন্তুকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে।

কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার দাবি, বেহালাবাসী সন্তুর সঙ্গে হুগলির বহিষ্কৃত তৃণমূল নেতা কুন্তল ঘোষ, নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় ধৃত ব্যবসায়ী অয়ন শীল, এমনকি সুজয়কৃষ্ণ ভদ্র ওরফে ‘কালীঘাটের কাকু’-রও যোগাযোগ ছিল। সূত্রের খবর, নিয়োগ দুর্নীতির তদন্তে ইডির কাছে সন্তুর কথা প্রথম বলেছিলেন অয়ন। টেট ‘দুর্নীতি’র পাশাপাশি পুরনিয়োগ দুর্নীতিকাণ্ডেও নাম জড়িয়েছিল তাঁর। ইডির দাবি, অয়ন এই সকল নিয়োগ পরীক্ষার কর্তৃপক্ষকে প্রভাবিত করে বেআইনি ভাবে পরীক্ষার্থীদের ওএমআর শিট বদলেছিলেন। ইডি সূত্রে জানা গিয়েছে, অয়ন জেরায় জানিয়েছিলেন, তিনি সন্তুকে ২৬ কোটি টাকা দিয়েছিলেন। আর তা দিয়েছিলেন কুন্তলের কথায়।

এই ২৬ কোটি টাকা অয়নের কাছ থেকে নিয়ে সন্তু নিজের কাছে রেখেছিলেন, না কি পৌঁছে দিয়েছিলেন অন্যত্র? সেই সব প্রশ্নেরই উত্তর খুঁজছিলেন তদন্তকারীরা। সেই টাকা সন্তু মারফত পার্থের কাছে পৌঁছেছিল কি না, তা-ও খতিয়ে দেখছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। যদিও এর আগে সন্তুর বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে তেমন কিছু পাওয়া যায়নি। এর পর সন্তুকে ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করে সিবিআই। সন্তুকে জিজ্ঞাসাবাদের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সিবিআইয়ের একটি দল প্রেসিডেন্সি জেলেও গিয়েছিল। সিবিআই সূত্রে খবর, সেখানে ‘কাকু’-সহ মোট তিন জনকে জেরা করেন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা। সিবিআইয়ের ওই সূত্রে জানা গিয়েছিল, সন্তুকে জেরা করে সিবিআইয়ের হাতে কিছু নতুন তথ্য পৌঁছেছে। সেই সমস্ত তথ্য সম্পর্কে আরও বিশদে জানতেই প্রেসিডেন্সি জেলে গিয়েছিলেন সিবিআই গোয়েন্দারা। যেখানে প্রাথমিক নিয়োগ দুর্নীতিতে যুক্ত অনেকেই বন্দি রয়েছেন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Primary Recruitment Case Partha Chatterjee CBI
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE