Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৪ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

KMC Election 2021: পুরভোটে থাকছে রাজ্য পুলিশই, কমিশনের ভাবনায় নেই কেন্দ্রীয় বাহিনী

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০৩ ডিসেম্বর ২০২১ ২১:৩২
কলকাতা পুরভোটে থাকছে না কেন্দ্রীয় বাহিনী।

কলকাতা পুরভোটে থাকছে না কেন্দ্রীয় বাহিনী।

কলকাতা পুরভোটে থাকছে না কেন্দ্রীয় বাহিনী। শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত এমনই সিদ্ধান্তে অটল আছে রাজ্য নির্বাচন কমিশন। কমিশন সূত্রে খবর, রাজ্য পুলিশের সশস্ত্র বাহিনী দিয়েই হবে ভোট। তবে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত সোমবারের মধ্যে জানাবে কমিশন। পুরভোটে কেন্দ্রীয় বাহিনীর দাবি নিয়ে ইতিমধ্যেই সুপ্রিম কোর্টে মামলা করেছে বিজেপি। ফলে শীর্ষ আদালতে কী হবে তার উপরেও নির্ভর করবে পুরভোটে কেন্দ্রীয় বাহিনী সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত।

শুক্রবার কলকাতা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার (সদর) শুভঙ্কর সিন্‌হা রাজ্য নির্বাচন কমিশনে এসে দেখা করেন। জানা গিয়েছে, সেখানে তাঁর সঙ্গে পুরভোটে নিরাপত্তা নিয়ে একপ্রস্থ আলোচনা হয়। শনিবার নিরাপত্তার যাবতীয় তথ্য-সহ নীল নকশা কমিশনের হাতে তুলে দেয় কলকাতা পুলিশ। সেই নকশার প্রেক্ষিতে রবিবার জেলাশাসকদের সঙ্গে বৈঠক করবে নির্বাচন কমিশন। সোমবার তারা ফের পুলিশ কর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসবে। সূত্রের খবর, নিরাপত্তা নিয়ে পুলিশ যে তথ্য তৈরি করেছে তাতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর উল্লেখ নেই। ফলে কেন্দ্রীয় বাহিনী ছাড়াই ভোটের দিকে এগোচ্ছে কমিশন তা এক প্রকার পরিষ্কার।

অন্য দিকে, পুরভোটে কেন কেন্দ্রীয় বাহিনীর ব্যবহার করা হচ্ছে না, কোথায় অসুবিধা— এই সব প্রশ্ন তুলে সরব হয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। এ নিয়ে জানতে চেয়ে রবিবার ফের নির্বাচন কমিশনার সৌরভ দাসকে তলব করে টুইট করেন তিনি। তবে কমিশন জানাচ্ছে, এমন কোনও নির্দেশ তাদের কাছে আসেনি। কমিশনের এক কর্তার কথায়, ‘‘এর আগে রাজ্যপাল রাজভবনে ডেকেছিলেন। সেখানে বাহিনী নিয়ে আলোচনা হয়। কমিশন নিজের অবস্থান স্পষ্ট করেছে। বাহিনী ব্যবহারের অসুবিধাগুলিও তুলে ধরা হয়েছে।’’

Advertisement

বাহিনী ব্যবহারের ক্ষেত্রে পরিকাঠামোগত অসুবিধার কথা জানাচ্ছে কমিশন। তাদের মতে, কেন্দ্রীয় বাহিনী ব্যবহারের ক্ষেত্রে বাড়তি লোক দরকার। এই মুহূর্তে সেই লোকবল নেই রাজ্যের কাছে। এ ছাড়া কেন্দ্রীয় বাহিনীর পিছনে অতিরিক্ত খরচ হয়। কমিশন সূত্রে খবর, ১১২টি পুরসভায় ভোটের জন্য রাজ্য ১৮৪ কোটি বরাদ্দ করেছে। এখন বাহিনী আসলে ওই বরাদ্দ আরও বাড়াতে হবে।

আরও পড়ুন

Advertisement