Advertisement
২২ মে ২০২৪
OC of Goghat Police Station

চাষিদের অবরোধে ওসি-র ‘কুকথা’, খোঁচা শুভেন্দুর

অবরোধমুক্ত করতে গিয়েই গোঘাট থানার ওসি অরূপকুমার মণ্ডল গালিগালাজ করেন বলে অভিযোগ তুলেছেন শুভেন্দু। এক্স হ্যান্ডলে ওই ওসি-কে অবিলম্বে সাসপেন্ড করারও দাবি তুলেছেন তিনি।

কৃষকদের অবরোধ তুলতে পুলিশের ভূমিকা নিয়ে এই টুইট এবং ভিডিয়ো পোস্ট করেছেন শুভেন্দু অধিকারী।

কৃষকদের অবরোধ তুলতে পুলিশের ভূমিকা নিয়ে এই টুইট এবং ভিডিয়ো পোস্ট করেছেন শুভেন্দু অধিকারী। সংগৃহীত চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
গোঘাট শেষ আপডেট: ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩ ০৮:৩৫
Share: Save:

কৃষকদের অবরোধ তুলতে গালিগালাজ করছেন গোঘাট থানার ওসি!

বৃহস্পতিবার নিজের এক্স হ্যান্ডলে (সাবেক টুইটার) এমনই একটি ভিডিয়ো (সত্যতা যাচাই করেনি আনন্দবাজার) পোস্ট করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন রাজ্য সরকারের ‘কৃষকবান্ধব’ ভাবমূর্তি নিয়ে কটাক্ষ করলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

সহায়ক মূল্যে ধান কেনায় কুইন্টালপ্রতি ৫ কেজি করে বাদ দেওয়ার অভিযোগ তুলে বুধবার সকালে গোঘাট ১ ব্লকের সরকারি ক্রয় কেন্দ্রের (সিপিসি) অধীন ভিকদাস সংগ্রহ কেন্দ্রে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন চাষিরা। কেন্দ্রের অফিসার ঘটনাস্থলে পৌঁছতে না পারায় বিক্ষুব্ধ কিছু চাষি সকাল ১১টা নাগাদ সামনেই আরামবাগ থেকে পশ্চিম মেদিনীপুর যোগাযোগের রাজ্য সড়কটি অবরোধ করেন। চাষিদের হটিয়ে মিনিট পনেরোর মধ্যেই রাস্তা অবরোধমুক্ত করে পুলিশ।

অবরোধমুক্ত করতে গিয়েই গোঘাট থানার ওসি অরূপকুমার মণ্ডল গালিগালাজ করেন বলে অভিযোগ তুলেছেন শুভেন্দু। এক্স হ্যান্ডলে ওই ওসি-কে অবিলম্বে সাসপেন্ড করারও দাবি তুলেছেন তিনি। বিধানসভার মিডিয়া সেন্টারে বিরোধী দলনেতা এ দিন অভিযোগ করেন, ‘‘কেন্দ্রীয় সরকারের নির্ধারিত ন্যূনতম সহায়ক মূল্যে ধান বিক্রি করতে সমবায় বা কিসান মান্ডিতে গেলে ২০ কুইন্টাল ধান থেকে ন্যূনতম এক কুইন্টাল বাদ দিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এর প্রতিবাদে পথ অবরোধ করায় গোঘাট থানার ওসি কৃষকদের গালাগাল দিচ্ছেন। যাঁকে তিনি গালাগাল করলেন, আমি ওঁকে তাঁর পা ধরিয়ে ছাড়ব! মুখ্যমন্ত্রীকে বলছি, আপনার পুলিশকে সংযত করুন।’’

ওই ওসি-র প্রতিক্রিয়া মেলেনি। এসডিপিও (আরামবাগ) অভিষেক মণ্ডল বলেন, “রাজ্য সড়ক অবরোধ করা হয়েছিল। গুরুত্বপূর্ণ রাস্তার অবরোধ তুলতে গিয়ে তিনি (গোঘাটের ওসি) কী বলেছেন, তা খতিয়ে দেখছি।”

তৃণমূলের আরামবাগ সাংগঠনিক জেলা সভাপতি রামেন্দু সিংহরায় বলেন, “পুলিশ যদি খারাপ ভাষা বলে থাকে নিশ্চয়ই অন্যায়। অফিসারের দেরিতে আসাও খারাপ দৃষ্টান্ত। কিন্তু শুভেন্দুর মুখে এ সব মানায় না।’’ রামেন্দুর পাল্টা অভিযোগ, ‘‘দিন কয়েক আগেই শুভেন্দুকে মেদিনীপুরে তৃণমূলের ছেলেরা কালো পতাকা দেখিয়েছিল বলে গাড়ি থেকে বেরিয়ে তাদের গালাগাল করেছে। আদিবাসী মহিলা তথা মন্ত্রী বিরবাহা হাঁসদাকেও কুকথা বলেছে। সেই ব্যক্তি এখানে পুলিশের দোষ ধরছে!”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Goghat Suvendu Adhikari
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE