Advertisement
১৬ জুলাই ২০২৪
Covid 19

চোখ রাঙাচ্ছে কোভিড, বিধানসভার বিভিন্ন কমিটির সব বৈঠক স্থগিত রইল অনির্দিষ্টকালের জন্য

গত বছর ডিসেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে রাজ্য দ্রুত গতিতে ছড়িয়েছে কোভিড-১৯-এর সংক্রমণ।

করোনা সংক্রমণের পরিস্থিতিতে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার যাবতীয় বৈঠক অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত করে দেওয়া হয়েছে।

করোনা সংক্রমণের পরিস্থিতিতে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার যাবতীয় বৈঠক অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত করে দেওয়া হয়েছে।

নিজস্ব সংবাদদাতা
সংবাদ সংস্থা  শেষ আপডেট: ০৬ জানুয়ারি ২০২২ ১৬:১৫
Share: Save:

করোনা সংক্রমণের পরিস্থিতিতে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার যাবতীয় বৈঠক অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত করে দেওয়া হয়েছে। বুধবার এই মর্মে সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিধানসভার সচিবালয়। গত বছর ডিসেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে রাজ্য দ্রুত গতিতে ছড়িয়েছে কোভিড-১৯-এর সংক্রমণ। তাই নতুন বছরের গোড়া থেকেই বিধিনিষেধ আরোপ করতে শুরু করেছে রাজ্য সরকার। সেই পদক্ষেপের কথা মাথায় রেখেই এ বার বিধানসভার কাজেও বেশকিছু বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। যেখানে বিধানসভার বিভিন্ন কমিটির বৈঠক অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায় মোট ৪১টি কমিটি রয়েছে। তার মধ্যে ২৫টি স্ট্যান্ডিং কমিটি ও ১৬টি অ্যাসেম্বলি কমিটি। রাজ্য সরকারের দফতর সংক্রান্ত এই কমিটিগুলির বৈঠক হয় সারা মাস জুড়ে। কিন্তু বর্তমানে পরিস্থিতি বিবেচনা করে আপাতত যাবতীয় বৈঠক স্থগিত করে দেওয়া হয়েছে।

২০২০ সালে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের প্রথম আক্রমণের সময় লকডাউন হলে, বন্ধ করে দেওয়া হয় বিধানসভার সচিবালয়। ২০২১ সালে বিধানসভা নির্বাচনের পর করোনা সংক্রমণ দ্বিতীয় বার মাথা চাড়া দিলে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। সে বারও বন্ধ রাখা হয়েছিল বিধানসভার সচিবালয়। এ বার অবশ্য সরকার পুরোপুরি লকডাউনে না গিয়ে বিধিনিষেধ আরোপ করেছে রাজ্য সরকার। তাই বিধানসভার সচিবালয় বিধানসভা পুরোপুরি বন্ধ না করে বরং কর্মপরিকল্পনায় কাটছাঁট করেছে। ফলস্বরূপ, ২৯৪ জন বিধায়ককে নিয়ে তৈরি ৪১টি কমিটির সব বৈঠক স্থগিত করে দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে বিধানসভার এক আধিকারিক বলেছেন,‘‘বিধায়করা রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বৈঠকে যোগ দিতে আসেন। তাঁদের এলাকায় করোনা সংক্রমণের পরিস্থিতি কেমন রয়েছে, তা বিধানসভার সচিবালয়ের পক্ষে জানা সম্ভব নয়। তা ছাড়া বিধায়করা কমিটির বৈঠকে যোগ দিতে এলে তাঁর সঙ্গে নিরাপত্তা রক্ষী-সহ বেশি কিছু মানুষ আসেন। সবার শারীরিক পরীক্ষা করাও বিধানসভার পক্ষে সহজ কথা নয়। তাই সব বিষয় মাথায় রেখেই বৈঠক স্থগিত রাখা হচ্ছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আবার নিয়মমাফিক বৈঠক শুরু হবে। তা জানিয়ে দেওয়া হবে বিধায়কদের।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Covid 19 Meetings Legisltaive Assembly
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE