Advertisement
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

মদ-হুকার ‘অবৈধ’ আসর, রেস্তোরাঁয় ধৃত ৬

সরকারি অনুমতি ছাড়াই শহরের একটি রেস্তোরাঁয় মদ বিক্রি এবং হুকা বার চালানোর অভিযোগে গ্রেফতার করা হল সেখানকার ছয় কর্মীকে।

নিজস্ব সংবাদদাতা
শেষ আপডেট: ০১ ডিসেম্বর ২০১৬ ০২:৪০
Share: Save:

সরকারি অনুমতি ছাড়াই শহরের একটি রেস্তোরাঁয় মদ বিক্রি এবং হুকা বার চালানোর অভিযোগে গ্রেফতার করা হল সেখানকার ছয় কর্মীকে।

পুলিশ সূত্রের খবর, মঙ্গলবার গভীর রাতে বেনিয়াপুকুর থানার বেকবাগানে ওই রেস্তোরাঁয় হানা দিয়ে অবাক হয়ে যান গোয়েন্দারা। ছোট ছোট ঘরে সোফা, কাউচ, বার টুল। গিজগিজ করছে ছেলে-মেয়ের দল। যাদের বেশির ভাগই নাবালক-নাবালিকা। কেউ হুকায় টান দিচ্ছে, কেউ বা চুমুক দিচ্ছে পানীয়ে। ডান্স ফ্লোর থেকে ছোট ঘর, সর্বত্রই এক ছবি। আচমকা পুলিশ দেখে হতচকিত হয়ে যান সকলেই। রেস্তোরাঁয় আসা সকলকে বাইরে বার করে দিয়ে সেখানকার ছ’জন কর্মীকে তুলে নিয়ে আসে পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, অভিযানের খবর শুনে এলাকা ছেড়ে পালিয়েছেন রেস্তোরাঁর দুই মালিক। বুধবার রাত পর্যন্ত তাঁদের খোঁজে তল্লাশি চালায় পুলিশ। ধৃতদের বিরুদ্ধে সিগারেট এবং অনান্য তামাকজাত দ্রব্য আইন (কোটপা), আবগারি আইন-সহ তিনটি ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশের দাবি, রাত ১টা নাগাদ হানা দিয়ে দেখা যায়, রেস্তোরাঁর ভিতরে প্রচুর ভিড়। তখনও চলছে পানীয় সরবরাহ। গোয়েন্দারা আবগারি দফতরের ছাড়পত্র দেখতে চাইলে তা দেখাতে পারেননি রেস্তোরাঁর কর্মীরা। পুলিশ জানায়, রেস্তোরাঁ থেকে আকাশ কুমার, মহম্মদ মুরসোলিন, মহম্মদ সাদাব, ফয়জল জামাল, কাজি ইজাজ ও নুরউদ্দিনকে নামে ছয় কর্মীকে রাতেই লালবাজারে নিয়ে আসা হয়।

পুলিশ সূত্রের খবর, রেস্তোরাঁটি গত কয়েক বছর ধরেই চলছিল। অভিযোগ, কয়েক সপ্তাহ আগে থেকে ওই রেস্তোরাঁয় মদ বিক্রি এবং সমস্ত ধরনের আইনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে শেষ রাত পর্যন্ত ওই রেস্তোরাঁ ও হুকা বার খুলে রেখে ব্যবসাও চলছিল। সম্প্রতি সেই খবর পৌঁছয় গোয়েন্দাদের কাছে।

বুধবার লালবাজারে ভারপ্রাপ্ত গোয়েন্দাপ্রধান বিশাল গর্গ বলেন, ‘‘একটি হুকা বার চালানোর জন্য যে যে দফতরের অনুমতি থাকার কথা, তার কোনওটাই এই রেস্তোরাঁর কাছে ছিল না। ওই বার থেকে দুই বোতল হুইস্কি এবং কিছু তামাকের পাত্র উদ্ধার হয়েছে।’’ গোয়েন্দা সূত্রের খবর, বিনা অনুমতিতে হুক্কা-বার চালানোর অভিযোগে রেস্তোরাঁ ও বারের দুই মালিক তুনজ কুমার শর্মা এবং বিশাল চাপারির খোঁজ চলছে।

লালবাজারের এক শীর্ষ কর্তা বুধবার জানান, শহরের বিভিন্ন প্রান্তে এ ভাবেই আইনের তোয়াক্কা না করে রেস্তোরাঁর আড়ালে হুকা বার এবং বেআইনি ভাবে মদ বিক্রি চলছে। যা থেকে আইনশৃঙ্খলা অবনতির আশঙ্কা করছেন পুলিশ কর্তারা। তাই শহরের বিভিন্ন এলাকায় হুকা বারের বিরুদ্ধে অভিযানও শুরু হয়েছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE