Advertisement
১৬ জুন ২০২৪
Board Examination

টেস্টের ফল দেখে পড়ুয়াদের ঘাটতি মেটাতে বিশেষ ক্লাস

চলতি বছর গরমের ছুটি প্রলম্বিত হওয়া, পঞ্চায়েত ভোট— এমন নানা কারণে অনেক বেশি ছুটি ছিল স্কুলগুলিতে। ফলে পুরো ক্লাস না হওয়ায় অনেকেরই প্রস্তুতি কম হয়েছে।

An image of Examination

—প্রতীকী চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২০ নভেম্বর ২০২৩ ০৭:২৮
Share: Save:

পুজোর ছুটির শেষে স্কুল খোলার পরে ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিকের টেস্ট। শহরের বেশ কিছু স্কুলের প্রধান শিক্ষকেরা জানাচ্ছেন, আগামী বছর লোকসভা ভোটের কারণে ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে মাধ্যমিক এবং দ্বিতীয় সপ্তাহে উচ্চ মাধ্যমিক শুরু হয়ে যাবে। চলতি বছর গরমের ছুটি প্রলম্বিত হওয়া, পঞ্চায়েত ভোট— এমন নানা কারণে অনেক বেশি ছুটি ছিল স্কুলগুলিতে। ফলে পুরো ক্লাস না হওয়ায় অনেকেরই প্রস্তুতি কম হয়েছে। তাই টেস্টের ফল বেরোনোর পরে পরীক্ষার খাতা মূল্যায়ন করে যার যেখানে খামতি আছে, সে সব পূরণ করার জন্য অতিরিক্ত ক্লাস নেওয়া হবে।

যাদবপুর বিদ্যাপীঠের প্রধান শিক্ষক পার্থপ্রতিম বৈদ্য জানান, তাঁদের স্কুলে বিভিন্ন পরীক্ষা শুরু হয়ে গিয়েছে। পর পর হবে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের টেস্ট, উচ্চ মাধ্যমিকের প্র্যাক্টিক্যাল এবং পঞ্চম থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত তৃতীয় সামগ্রিক মূল্যায়ন। উচ্চ মাধ্যমিকের প্র্যাক্টিক্যাল পরীক্ষা ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে শেষ করতে হবে। আগামী বছরের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক এগিয়ে আসায় টেস্টের পরে পড়ুয়ারা পড়ার সময়ও পাবে কম। পার্থপ্রতিম বলেন, ‘‘এ বার আমরা দ্রুত খাতা দেখে ৯ ডিসেম্বরের মধ্যে টেস্টের ফল বার করব। পরীক্ষার্থীরা যেখানে যেখানে ভুল করবে, সেগুলি শুধরে এবং আলোচনা করে আলাদা ক্লাস নেওয়া হবে।’’

যোধপুর পার্ক বয়েজ় হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক অমিত সেন মজুমদারও বলছেন, ‘‘টেস্টের ফল দ্রুত প্রকাশ করা হবে। খাতা দেখার সময়ে যাদের যেখানে দুর্বলতা পাওয়া যাবে, দিন সাতেক তার উপরে ক্লাস নেওয়া হবে। তার পরে ফের ওই ক্লাসে পড়ানোর ভিত্তিতে লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হবে।’’ তিনি জানান, অনেক সময়েই দেখা যায়, অনেক পড়ুয়া ঠিক উত্তর লিখলেও বানান ভুল করার জন্য নম্বর কাটা যায়। অথবা জানা প্রশ্ন সময়ের অভাবে সে হয়তো লিখে আসতে পারে না। তাই নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কী ভাবে সব প্রশ্ন লিখে আসতে হবে, সেই পরামর্শও দেওয়া হবে পরীক্ষার্থীদের।

শিয়ালদহের টাকি হাউস গভর্নমেন্ট স্পনসর্ড গার্লস হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষিকা শম্পা চক্রবর্তী জানান, টানা পুজোর ছুটি থাকলেও মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য লক্ষ্মীপুজোর পর থেকেই প্রয়োজন মতো অনলাইনে ক্লাস নেওয়া হয়েছে। ছুটিতে অনলাইন ক্লাস করে তারা অনেকটা আত্মবিশ্বাসী। শম্পা বলেন, ‘‘টেস্টের ফল ভাল করলে ওদের মনোবল বাড়বে। তবে টেস্টে কোনও বিষয়ে খারাপ করলে অনলাইন বা অফলাইন যে পদ্ধতিতে পড়ুয়াদের সুবিধা, সেই পদ্ধতিতেই তাকে পড়া দেখানো হবে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE