Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২২ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

ভাইপোকে শাস্তি দিতে গরম ছুরির ছেঁকা দিয়ে ধৃত পিসি

নিজস্ব সংবাদদাতা
২৯ মে ২০১৯ ০২:১৫
গরম ছুরির ছেঁকায় কোমরের ক্ষত দেখাচ্ছে ওই বালক। মঙ্গলবার। নিজস্ব চিত্র

গরম ছুরির ছেঁকায় কোমরের ক্ষত দেখাচ্ছে ওই বালক। মঙ্গলবার। নিজস্ব চিত্র

বাবা-মায়ের বিচ্ছেদ হয়ে গিয়েছে। ঠাকুরমা-পিসির কাছে সাত বছরের ছেলেকে রেখে গিয়েছেন বাবা। সেই ভাইপোকে শাস্তি দিতে তার হাতে, পায়ে, মুখে এবং কোমরে গরম ছুরির ছেঁকা দেওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার হলেন তার পিসি। সোমবার দুপুরে, রাজাবাজারের বাড়ি থেকে।

ছেলের উপরে নির্যাতন চালানোর অভিযোগে পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছিলেন তার মা। মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে নারকেলডাঙা থানার পুলিশ সোমবার গ্রেফতার করেছে অভিযুক্ত পিসিকে। শিয়ালদহ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি অরূপ চক্রবর্তী জানান, অভিযুক্তকে বিচারক ২০ জুন পর্যন্ত জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন। একই সঙ্গে সাত বছরের বালকটি বিচারকের কাছে গোপন জবানবন্দিও দিয়েছে। মা-বাবা আলাদা থাকায় বালকটিকে কোথায় রাখা হবে, তা জানতে শিশুকল্যাণ সমিতির সামনে হাজির করানো হয়। পরে সেখানকার বিচারক বালকটিকে মায়ের কাছে রাখার নির্দেশ দেন। এর আগে কৃষ্ণনগর এবং বেলুড়েও দু’টি শিশুকে গরম খুন্তির ছেঁকা দেওয়ার

অভিযোগ উঠেছিল।

Advertisement

পুলিশ জানায়, একটি বেসরকারি স্কুলের তৃতীয় শ্রেণির ওই ছাত্রটি বছর দেড়েক ধরে বাবার সঙ্গে রাজাবাজারে থাকত। বালকটির বাবা পেশায় মিস্ত্রি। কিছু দিন আগে তিনি রাজারহাটে থাকতে শুরু করলে ছেলেকে নিজের মা ও বোনের কাছে রেখে দিয়ে যান। গত শনিবার দুপুরে এলাকায় অন্যদের সঙ্গে খেলে বাড়ি ফেরে ছেলেটি। অভিযোগ, ওই সময়ে তাকে শাস্তি দিতে সারা গায়ে গরম ছুরির ছেঁকা দিয়ে শাস্তি দেন তার পিসি।

অভিযোগ, শনিবার ঘটনাটি ঘটলেও বালকটির কোনও চিকিৎসা হয়নি। পিসির সঙ্গে ওই বাড়ির বাকি সদস্যেরাও তা চেপে যান। কাছেই ছেলেটির মায়ের বাড়ি। রবিবার বিকেলে ব্যথা সহ্য করতে না পেরে সে মায়ের কাছে গিয়ে পুরো ঘটনা জানায়। পুলিশ সূত্রের খবর, রবিবার গভীর রাতে ছেলেকে নিয়ে তার মা নারকেলডাঙা থানায় যান এবং অভিযোগ দায়ের করেন ননদের বিরুদ্ধে।

তদন্তকারীরা জানান, জেরায় অভিযুক্ত মহিলা দাবি করেছেন, তাঁর ভাইপো অত্যন্ত দুষ্টু। পরিবারের কারও কথা শোনে না সে। তাই তাকে শাস্তি দিতে তিনি ওই কাজ করেছেন বলে পুলিশের কাছে দাবি করেছেন বালকের পিসি। পরিবারের বাকি সদস্যেরাও ওই বালকের দস্যিপনায় বিরক্ত বলে জানিয়েছেন। মঙ্গলবার ছেলেটির খোঁজে তার মায়ের বাড়ি গেলে দেখা যায়, সে অন্যদের সঙ্গে ঘরে খেলছে। কী হয়েছে জানতে চাইলে হাত, পা, কোমর এবং মুখের ক্ষত দেখিয়ে সে জানায়, পিসি তাকে ছেঁকা দিয়েছে। মাঝেমধ্যেই তাকে মারধর করা হত বলেও জানায় সে।

আরও পড়ুন

Advertisement