Advertisement
০৩ ডিসেম্বর ২০২২
Calcutta High Court

Suvendu Adhikari: ২৪ ঘণ্টায় রিপোর্ট চাই, শুভেন্দু অধিকারীর নিরাপত্তা নিয়ে রাজ্যকে নির্দেশ হাই কোর্টের

মন্ত্রী থাকাকালীন শুভেন্দু ‘জেড প্লাস’ ক্যাটেগরির নিরাপত্তা পেতেন রাজ্যের তরফে। মন্ত্রিত্বে ইস্তফা দেওয়ার আগে তা ছেড়ে দিয়েছিলেন।

গ্রাফিক।

গ্রাফিক।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ৩০ জুন ২০২১ ১৬:০৫
Share: Save:

শুভেন্দু অধিকারীর নিরাপত্তা নিয়ে রাজ্য সরকারের কাছে বুধবার রিপোর্ট তলব করল কলকাতা হাই কোর্ট। বিচারপতি শিবকান্ত প্রসাদের নির্দেশ, বৃহস্পতিবারের মধ্যেই রাজ্যকে এ বিষয়ে জমা দিতে হবে রিপোর্ট।

Advertisement

রাজ্যে কারা কারা সরকারি নিরাপত্তা পান তা জানতে চেয়েছে আদালত। কী কারণে শুভেন্দুকে নিরাপত্তা দিয়েছিল রাজ্য সরকার এবং কী কারণেই বা রাজ্য তা তুলে নিল, তা-ও জানাতে চেয়েছেন বিচারপতি প্রসাদ। সেই সঙ্গে মামলার শুনানি-পর্বে বুধবার বিচারপতি প্রসাদ, আবেদনকারী পক্ষের আইনজীবী বিল্লালদল ভট্টাচার্যের কাছে জানতে চান, ‘‘মামলাকারী (শুভেন্দু) জেড ক্যাটেগরির নিরাপত্তা পান। তার পরেও কেন অতিরিক্ত নিরাপত্তা প্রয়োজন?’’

বিজেপি-তে যোগ দেওয়ার কয়েক সপ্তাহ পরে গত জানুয়ারিতে ‘পর্যাপ্ত নিরাপত্তা’র দাবিতে কলকাতা হাই কোর্টে মামলা করেছিলেন শুভেন্দু। রাজ্য বিধানসভার বিরোধী দলনেতা নির্বাচিত হওয়ার পরে চলতি মাসে হাই কোর্টে তিনি অভিযোগ করেন, রাজ্য সরকার তাঁকে একজন পূর্ণমন্ত্রীর সমতুল নিরাপত্তা দেয়নি। সাংবিধানিক বিধি অনুযায়ী যা তাঁর প্রাপ্য। এখনও তাঁকে কেন্দ্রীয় নিরাপত্তার উপর নির্ভর করতে হচ্ছে।

শুনানি-পর্বে বুধবার বিচারপতি প্রসাদ বলেন, ‘‘তিনি (শুভেন্দু) একজন রাজনৈতিক নেতা। কোনও সরকারি কর্মচারী নন। শক্তিশালী বিরোধী দলের নেতা। এটাও রাজ্যকে মনে রাখতে হবে। মানুষকে সাহায্য করতে বিভিন্ন জায়গায় যাবেন। সে ক্ষেত্রে কেন রাজ্যের সঙ্গে যোগাযোগ থাকবে না। আগামীকালই (বৃহস্পতিবার) বিষয়টি জানাতে হবে রাজ্যকে।’’

Advertisement

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের মন্ত্রী থাকাকালীন শুভেন্দু ‘জেড প্লাস’ ক্যাটেগরির নিরাপত্তা পেতেন রাজ্যের তরফে। কিন্তু মন্ত্রিত্বে ইস্তফা দেওয়ার আগেই তিনি সেই নিরাপত্তা ছেড়ে দিয়েছিলেন। যদিও রাজ্য পুলিশ ‘গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি’ হিসেবে তাঁর নিরাপত্তা বহাল রেখেছিল। এরপর গত ডিসেম্বরে বিজেপি-তে যোগ দেন তিনি। কেন্দ্রের তরফে তাঁর জন্য ‘জেড’ স্তরের নিরাপত্তা এবং বুলেটপ্রুফ গাড়ি বরাদ্দ করা হয়েছিল।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.