Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৬ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

বাসিন্দারা চাইলেই পাড়ায় এসে করোনা পরীক্ষা করবে পুরসভা

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৩ অগস্ট ২০২০ ০৫:০২
ছবি: পিটিআই।

ছবি: পিটিআই।

শহরে করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিহ্নিত করতে ‘কোভিড টেস্টিং টু ইওর ডোরস্টেপ’ কর্মসূচি গ্রহণ করল কলকাতা পুরসভা। ওই কর্মসূচি অনুযায়ী এলাকার কোনও বহুতল বা পাড়ার অন্তত ২০ জন বাসিন্দা যদি করোনা পরীক্ষা করাতে চেয়ে পুর কর্তৃপক্ষকে জানান, তবে সেখানে গাড়ি পাঠিয়ে ‘র্যাপিড অ্যান্টিজেন’ পরীক্ষা করাবে পুরসভা। শনিবার এমনটাই জানালেন কলকাতা পুরসভার প্রশাসকমণ্ডলীর চেয়ারম্যান ফিরহাদ হাকিম।

পুর কর্তৃপক্ষ জানান, র্যাপিড পরীক্ষা করাতে ইচ্ছুকেরা ৯৮৩০০৩৭৪৯৩ নম্বরে হোয়াটসঅ্যাপ করে জানালে তাঁদের সঙ্গে কথা বলে একটি নির্দিষ্ট দিনে গাড়ি পাঠিয়ে ওই পরীক্ষা করানো হবে। যাঁরা পজ়িটিভ হবেন, তাঁদের ব্যবস্থা করা ছাড়াও যাঁরা সংক্রমিত নন, অথচ সংক্রমণের লক্ষণ রয়েছে তাঁদের জন্যও আলাদা ব্যবস্থা করা হবে। কোনও বহুতল বাড়ির চত্বর, স্থানীয় ক্লাব অথবা কমিউনিটি সেন্টারে এই পরীক্ষা করা যেতে পারে। তবে ওই ঘরে শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্র থাকলে সুবিধা হবে বলেই জানান পুর কর্তৃপক্ষ।

এর আগেই কলকাতা পুরসভার তরফে বিভিন্ন ওয়ার্ডে গাড়ি পাঠিয়ে করোনার জন্য ভ্রাম্যমাণ ‘র্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষা করার ব্যবস্থা করা হয়েছে ঠিকই। কিন্তু বাসিন্দাদের নিজেদের ইচ্ছায় এলাকায় এই ধরনের পরীক্ষা প্রথম। ফিরহাদ বলেন, “যত বেশি সংখ্যক পরীক্ষা করা সম্ভব, তত বেশি রোগীকে চিহ্নিত করা যাবে। সে ক্ষেত্রে দ্রুত চিকিৎসার মাধ্যমে এই রোগ নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব।’’

Advertisement

এ ছাড়াও, এই রোগ ঠেকাতে বাড়ি বাড়ি গিয়ে ‘মাইক্রো প্ল্যানিং’- এর অংশ হিসেবে পুরসভা একটি সমীক্ষা করে দেখবে কোন বাড়ির বাসিন্দাদের কী কী অসুখ রয়েছে। তার একটি নথি তৈরি করে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের কাছে পাঠানো হবে যাতে তাঁদের কেউ করোনায় আক্রান্ত হলে সঙ্গে সঙ্গে ওই রোগীর অন্য অসুখের ব্যাপারেও জানা সম্ভব হয়। সে ক্ষেত্রে দ্রুত যাতে সামগ্রিক ভাবে তাঁর চিকিৎসা করা যায় সেই কারণেই এই উদ্যোগ।

পুরসভার দাবি, এই রোগের প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেক বাসিন্দার মধ্যেই গড়ে ওঠার ফলে শহরে কিছুটা হলেও করোনা নিয়ন্ত্রিত হয়েছে। তবে, দূরত্ব-বিধি এবং অন্যান্য নিয়ম সবাইকে মানতে হবে বলেই জানান ফিরহাদ।

(জরুরি ঘোষণা: কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের জন্য কয়েকটি বিশেষ হেল্পলাইন চালু করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। এই হেল্পলাইন নম্বরগুলিতে ফোন করলে অ্যাম্বুল্যান্স বা টেলিমেডিসিন সংক্রান্ত পরিষেবা নিয়ে সহায়তা মিলবে। পাশাপাশি থাকছে একটি সার্বিক হেল্পলাইন নম্বরও।

• সার্বিক হেল্পলাইন নম্বর: ১৮০০ ৩১৩ ৪৪৪ ২২২
• টেলিমেডিসিন সংক্রান্ত হেল্পলাইন নম্বর: ০৩৩-২৩৫৭৬০০১
• কোভিড-১৯ আক্রান্তদের অ্যাম্বুল্যান্স পরিষেবা সংক্রান্ত হেল্পলাইন নম্বর: ০৩৩-৪০৯০২৯২৯)

আরও পড়ুন

Advertisement