Advertisement
১৬ জুন ২০২৪
Crime

Bhawanipore Couple Murder Case: ভবানীপুর হত্যাকাণ্ড: খোয়া যাওয়া মোবাইল মিলল ধর্মতলায়, ফেলা হয় সুইচ অন করে

প্রাথমিক ভাবে তদন্তকারীরা মনে করছেন, ভবানীপুরের দম্পতিকে খুন করে একাধিক আততায়ী এবং তারা শাহ দম্পতির পরিচিত। থানায় ডাকা হয়েছে মেয়েকে।

গুজরাতি দম্পতি খুনে নয়া সূত্রের খোঁজে পুলিশ।

গুজরাতি দম্পতি খুনে নয়া সূত্রের খোঁজে পুলিশ। গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৮ জুন ২০২২ ১১:৫২
Share: Save:

ভবানীপুরের হরিশ মুখার্জি রোডের প্রৌঢ় দম্পতির খুনের কাণ্ডে নতুন সূত্রের খোঁজে পুলিশ। ভবানীপুরে খুন হওয়া গুজরাতি দম্পতির হারিয়ে যাওয়া দুটি মোবাইল ফোনের একটি পাওয়া গেল ধর্মতলা চত্বরে। পুলিশ সূত্রে খবর, সোমবার খুনের ঘটনার পর ওই দুটি মোবাইলের খোঁজে ছিল তারা। তার মধ্যে একটি মোবাইল চালু ছিল। ওই নম্বরে ফোন করলে রিংও হত। সেটি একটি ম্যানহোলের কাছে পায় পুলিশ।

প্রথমে ওই মোবাইলের খোঁজে টাওয়ার লোকেশন ট্র্যাক করা শুরু করে পুলিশ। সেই সূত্র ধরে মঙ্গলবার রাতে এমজি রোড-স্ট্র্যান্ড রোডে চলে মোবাইলের খোঁজ। পরে রাতের দিকে ধর্মতলা চত্বরে একটি ম্যানহোলের কাছে পাওয়া যায় মোবাইলটি। এই মোবাইল ফোন উদ্ধারের ঘটনায় একাধিক প্রশ্ন উঠছে। কী ভাবে মোবাইলটি ধর্মতলায় গেল? আততায়ীরা ফোনটি চুরি করে থাকলে, কেনই বা তারা সেটি চালু অবস্থাতেই ফেলে রেখে গেল? ধর্মতলা থেকেই কি কোথাও পালিয়েছে খুনিরা?

আপাতত ওই ফোন থেকে কোনও তথ্য মেলে কি না, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। উল্লেখ্য, খুন হওয়া অশোক শাহর বড়বাজার এলাকায় ব্যবসা ছিল। তাঁর একাধিক আত্মীয়েরও ওই অঞ্চলে দোকান রয়েছে। এই বিষয়টিকেও মাথায় রাখছে পুলিশ।

প্রসঙ্গত, সোমবার মুখ্যমন্ত্রীর পাড়ায় খুন হন শাহ দম্পতি। ময়নাতদন্তের প্রাথমিক রিপোর্টে জানা যায় ব্যবসায়ী অশোক শাহকে ছুরি মেরে খুন করা হয়। প্রাথমিক ভাবে পুলিশ মনে করছে, তাঁর স্ত্রীকেও খুন করা হয়েছে। পুরো ঘটনাটি ঘটে সোমবার দুপুর দেড়টা নাগাদ। প্রাথমিক ভাবে তদন্তকারীরা মনে করছেন, একাধিক আততায়ী ছিল এবং তারা শাহ দম্পতির পরিচিত।

বুধবার ভবানীপুর থানায় যান অশোকের মেয়ে। তাঁকে সেদিনের সিসিটিভি ফুটেজ দেখায় পুলিশ। সেখানে পরিচিত কাউকে তিনি চিহ্নিত করতে পারেন কি না, খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তেফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ

সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE