Advertisement
০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
ISF

বিধায়কের মুক্তির দাবিতে কলকাতার মিছিলে শাসক বিরোধী স্লোগান, তবে প্রতিশ্রুতি মেনে অশান্তি হল না

মিছিলে আইএসএফের পতাকা, প্রতীক নামাঙ্কিত পোস্টার নেই। তবে আইএসএফ বিধায়কের মুক্তির দাবিতে লেখা প্ল্যাকার্ড ছিল। ১ ফেব্রুয়ারির মধ্যে বিধায়ক-সহ দলের কর্মীদের মুক্তির দাবি করা হয়েছে তাতে।

মিছিলে ছিল না আইএসএফের পতাকা বা প্রতীকও।

মিছিলে ছিল না আইএসএফের পতাকা বা প্রতীকও। নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৫ জানুয়ারি ২০২৩ ১৮:৫০
Share: Save:

শাসকের বিরুদ্ধে স্লোগান উঠল কিন্তু ভাঙড়ের বিধায়ক নওশাদ সিদ্দিকির মুক্তির দাবিতে কলকাতা শহরের নাগরিক মিছিল শেষ হল শান্তিপূর্ণ ভাবেই।

Advertisement

বুধবার দলের বিধায়কের মুক্তির দাবিতে কলকাতায় নাগরিক মিছিলের ডাক দিয়েছিল ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্ট (আইএসএফ)। সেই মতো দুপুরে শিয়ালদহ স্টেশন থেকে মিছিল রওনা হয় রানি রাসমণি অ্যাভিনিউয়ের দিকে। আইএসএফ আগেই জনিয়েছিল, দলের পতাকা এবং রাজনৈতিক রং ছাড়া শান্তিপূর্ণ ভাবে হবে এই মিছিল। দেখা যায় মিছিলে আইএসএফের পতাকা, প্রতীক নামাঙ্কিত পোস্টার নেই। তবে আইএসএফ বিধায়কের মুক্তির দাবিতে লেখা প্ল্যাকার্ড ছিল। ১ ফেব্রুয়ারির মধ্যে বিধায়ক-সহ দলের কর্মীদের মুক্তির দাবি করা হয়েছে তাতে। উঠেছিল ভাঙড়ের তৃণমূল নেতা আরাবুল ইসলামকে গ্রেফতারের দাবিও। তবে একই সঙ্গে তথাকথিত ‘শান্তিপূর্ণ’ মিছিলে বার বার উঠেছে শাসকবিরোধী স্লোগানও।

বুধবার ওই মিছিলে শোনা যায়, ‘‘কৃষক মারা সরকার, আর নেই দরকার’’। আবার রাজ্যের পুলিশমন্ত্রী, যিনি কিনা বাংলার মুখ্যমন্ত্রীও, তাঁর বিরুদ্ধেও ধিক্কার জানানো হয় মিছিলে। আইএসএফের এক কর্মী প্রিয়াঙ্কা বর্মণ বলেন, ‘‘পুলিশ শাসকের কথা শুনে চলছে। যাঁরা সন্ত্রাস ছড়িয়েছে, তাঁদের গ্রেফতার না করে যারা সন্ত্রাস ছড়ায়নি তাঁদের গ্রেফতার করেছে।’’ এমনকি, পুলিশ যদি শান্তিপূর্ণ মিছিলে বাধা দিতে আসে তবে তারাও ‘‘দেখে নেবে’’! এ কথাও বলতে শোনা যায় আইএসএফ কর্মীদের।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.