Advertisement
২৫ জুন ২০২৪
Kunal Ghosh

নারদকাণ্ড ছাড়া ‘প্রমাণিত’ অভিযোগ নেই, শুভেন্দুর ভিডিয়ো তুলে গ্রেফতারির দাবি, কী এল জবাব?

নারদকাণ্ডে কেন এখনও শুভেন্দু অধিকারীকে গ্রেফতার করা হয়নি? সমাজমাধ্যমে প্রশ্ন তুললেন কুণাল ঘোষ। সিবিআইয়ের নিরপেক্ষতা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি। একটি ভিডিয়ো পোস্ট করেছেন সমাজমাধ্যমে।

image of kunal ghosh suvendu adhikari

শুভেন্দুর (ডান দিকে) একটি ভিডিয়ো পোস্ট করে সমাজমাধ্যমে কুণাল (বাঁ দিকে) প্রশ্ন তুললেন, কেন এখনও শুভেন্দুকে গ্রেফতার করা হয়নি? — ফাইল ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৪ মার্চ ২০২৩ ১১:৫৭
Share: Save:

নিয়োগ দুর্নীতির পর নারদকাণ্ড নিয়েও নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি তুললেন তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ। তাঁর নিশানায় সেই রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। শুভেন্দুর একটি ভিডিয়ো (আনন্দবাজার অনলাইন সেই ভিডিয়োর সত্যতা যাচাই করেনি) পোস্ট করে সমাজমাধ্যমে কুণাল প্রশ্ন তুললেন, কেন এখনও শুভেন্দুকে গ্রেফতার করা হয়নি? নিরপেক্ষতা নিয়ে খোঁচাও দিলেন সিবিআইকে। শুভেন্দু যদিও এই নিয়ে মুখ খুলতে চাননি। তাঁর দফতর আবার কুণালকে ‘জেলখাটা আসামি’ সম্বোধন করে জানিয়েছে, এই নিয়ে কোনও মন্তব্য করবে না।

টুইটারে একটি ভিডিয়ো পোস্ট করেছেন কুণাল। সেখানে শুভেন্দুকে বলতে শোনা যায়, ‘‘আড়াই বছর ধরে সাঁতার কেটেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, আমার বিরুদ্ধে। হাঁপিয়ে গিয়েছেন। আমাকে বিচারব্যবস্থা সুরক্ষা দিয়েছে। কারণ, মিথ্যে অভিযোগ উঠেছে। আমি তিন দশকেরও বেশি সময় ধরে রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত। ছাত্রনেতা হিসাবে ১৯৮৮-এ রাজনীতি শুরু করি। ১৯৯৫ সালে কাউন্সিলর নির্বাচিত হই। এই দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে, আপনারা যা-ই বলুন না কেন, ওই নারদ স্টিং অপারেশন ছাড়া আমার বিরুদ্ধে প্রমাণিত কোনও অভিযোগ নেই।’’ ভিডিয়োতে এই পর্যন্তই রয়েছে শুভেন্দুর বক্তব্য। আর এই বক্তব্য নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন কুণাল।

সমাজমাধ্যমে কুণাল শুভেন্দুর কথা উদ্ধৃত করে লিখেছেন, ‘‘‘নারদা ছাড়া আমার বিরুদ্ধে প্রমাণিত অভিযোগ নেই।’ প্রমাণিত! নিজের মুখেই। তা হলে গ্রেফতার নয় কেন? সিবিআই কী করছে? এটা নিরপেক্ষতা? আর সারদা?’’এখানেই থামেননি কুণাল। তাঁর দাবি, তদন্ত হচ্ছে না বলেই এত কথা বলার সুযোগ পাচ্ছেন শুভেন্দু। আর এই সুযোগের জন্য দল বদলেছেন বলেও অভিযোগ করেছেন কুণাল। তিনি লিখেছেন, ‘‘তদন্ত হচ্ছে না বলেই তো বড় বড় কথার সুযোগ। সেই ভয়েই তো দলবদলু হয়ে বিজেপিতে। সিবিআই ধরবে না জেনেই এই মেকি বীরত্ব।’’

তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের পর থেকেই শুভেন্দুর বিরুদ্ধে এই অভিযোগ এনেছে শাসকদলের নেতারা। এমনকি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও ২০২১ সালের বিধানসভা ভোটপ্রচারে গিয়ে শুভেন্দুর নাম না করেই এই অভিযোগ তুলেছিলেন। রানাঘাটের এক সভায় তিনি বলেছিলেন, ‘‘ওরা অনেক টাকা করেছে। কাউকে ইডি, কাউকে সিবিআইয়ের ভয় দেখিয়েছে। ওই সব ভয় দেখিয়ে বলেছে, যদি টাকা রাখতে চাও, তা হলে বিজেপিতে যাও। যদি কালো টাকা সাদা করতে চাও, তবে বিজেপিতে যাও।’’ এ বার তাঁর সুরেই শুভেন্দুর দিকে অভিযোগের আঙুল তুললেন কুণাল। দাবি করলেন, কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার থেকে বাঁচতেই দল বদলেছেন শুভেন্দু।

শুভেন্দু অবশ্য আগের মতোই কুণালের মন্তব্যে কোনও প্রতিক্রিয়া দিতে চাননি। তাঁর দফতর মনে করে, ‘‘কুণাল জেলখাটা আসামি। তিন বছরের আসামির কোনও বক্তব্যের জবাব বিরোধী দলনেতা দেন না। তাঁর দফতরও দেওয়ার প্রয়োজন বোধ করে না।’’

বৃহস্পতিবার নিয়োগ দুর্নীতিতে কুণাল তাঁর নাম নেওয়ার পরও একই মন্তব্য করেছিলেন শুভেন্দু। কুণাল সমাজমাধ্যমে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে লিখেছিলেন, ‘‘শিক্ষায় নিয়োগ বিতর্ক: দিলীপ ঘোষ, সুজন চক্রবর্তী, শুভেন্দু অধিকারী, শমীক ভট্টাচার্য ও আরও কয়েক জন চাকরির সুপারিশ করেছিলেন কি? তৎকালীন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কাছে অনুরোধ করেছিলেন কি? তদন্ত হোক। কেন্দ্রীয় এজেন্সি একমুখী কাজ না করে নিরপেক্ষ কাজ করুক।’’ এর পরে দুপুর ১২টা নাগাদ, প্রায় ১৮ মিনিট পর আদালত চত্বরে প্রায় একই মন্তব্য করেন পার্থ। তিনি বলেন, ‘‘যে সুজন চক্রবর্তী, দিলীপবাবু, শুভেন্দুবাবুরা বড় বড় কথা বলছেন, তাঁরা নিজের দিকে দেখুন। উত্তরবঙ্গে তাঁরা কী করেছেন? ২০০৯-১০-এর সিএজি রিপোর্ট পড়ুন। সমস্ত জায়গায় তদ্বির করেছেন, কারণ, আমি তাঁদেরকে বলেছি, করতে পারব না। আমি নিয়োগকর্তা নই। এ ব্যাপারে কোনও সাহায্য তো দূরের কথা আমি কোনও কাজ বেআইনি করতে পারব না। শুভেন্দু অধিকারীর ২০১১-১২ সালটা দেখুন না! দেখুন না, কী করেছিলেন তাঁরা।’’

এরই জবাব দিতে গিয়ে শুভেন্দু পরে বলেন, ‘‘খুব দুর্বল চিত্রনাট্য। এই ধরনের ড্রামা সুদীপ্ত সেনকে দিয়েও করা হয়েছিল। যেখানে সম্মাননীয় বিমান বসুর সঙ্গে আমার নামও করা হয়েছিল।’’ শুভেন্দু এও দাবি করেন, ওই ‘চিত্রনাট্য’ ১৮ মিনিটের ব্যবধানে যাঁরা টুইট করেছেন এবং বলেছেন তাঁরা দু’জনেই ‘জেলখাটা’। এ বার নারদকাণ্ড নিয়ে কুণালের টুইট প্রসঙ্গে একই কথা জানাল শুভেন্দুর দফতর।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Kunal Ghosh Suvendu Adhikari TMC BJP CBI ED
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE